সেরেনার সেই কার্টুন বর্ণবিদ্বেষী নয়

প্রকাশ : ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  এএফপি

গত বছর ইউএস ওপেনে সেরেনা উইলিয়ামসকে নিয়ে প্রকাশিত অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যমের কার্টুনে কোনো বিদ্বেষমূলক ইঙ্গিত করা হয়নি। এ রায় দিয়েছে অস্ট্রেলিয়ার সংবাদমাধ্যমের নজরদারি সংগঠন অস্ট্রেলিয়ান প্রেস কাউন্সিল।

রায়ে বলা হয়েছে, হেরাল্ড-সানে গত সেপ্টেম্বর প্রকাশিত সেই কার্টুনে কার্টুনিস্ট মার্ক নাইট আফ্রিকান বংশোদ্ভূত মার্কিন টেনিস গ্রেট সেরেনাকে বর্ণবিদ্বেষী বা নারীবিদ্বেষী ইঙ্গিত করতে চাননি। বরং বিশ্ব ক্রীড়ামঞ্চে জনপ্রিয় একটি খেলার ফাইনাল ম্যাচে বিশ্বখ্যাত এক খেলোয়াড়ের আম্পায়ারের প্রতি শিশুসুলভ আচরণকেই কটাক্ষ করেছিলেন মার্ক। কারণ ওই কার্টুনে চিৎকার করে টেনিস র‌্যাকেট ভেঙে ফেলে কাঁদতে থাকা সেরেনার পায়ের কাছেই পড়ে থাকতে দেখা যাচ্ছে একটা শিশুদের চুষিকাঠি। যা শিশুরা রেগে গেলে মুখ থেকে ছুড়ে ফেলে দেয়। যেটাকে অসিরা ‘?স্পিটিং দ্য ডামি’? বলে থাকে।

তবে প্রেস কাউন্সিল এটাও স্বীকার করেছে, ওই কার্টুনকে অনেকেরই বর্ণবিদ্বেষী বা নারীবিদ্বেষী মনে হতে পারে। কিন্তু একজন বিশ্বমানের খেলোয়াড়ের কাছ থেকে এ ধরনের অনভিজ্ঞ এবং শিশুসুলভ আচরণ অনভিপ্রেত বলে পত্রিকা বা কার্টুনিস্টের বিরুদ্ধে কোনো পদক্ষেপ নেয়া হবে না। হেরাল্ড সানের দাবি, অস্ট্রেলিয়ায় ‘?স্পিটিং দ্য ডামি’? কখনও বর্ণবিদ্বেষী ইঙ্গিত বা মন্তব্য নয়। সোমবার হেরাল্ড সান আবার সেই ছবিই পুনঃপ্রকাশ করে নতুন শিরোনাম লিখেছে, ‘?ওয়েলকাম টু পিসি ওয়ার্ল্ড’?।

গত বছর ইউএস ওপেনে নারী এককের ফাইনালে নাওমি ওসাকার বিপক্ষে সেরেনা যখন পিছিয়ে পড়ছিলেন, তখন ম্যাচে ভুল হওয়ায় আচমকা তিনি কোর্টের মধ্যেই রেগে যান। আম্পায়ারকে মিথ্যাবাদী বলে চিৎকার করে র‌্যাকেট ভেঙে ফেলে লাফাতে থাকেন। সেই ঘটনাই কার্টুনে এঁকেছিলেন মার্ক নাইট। কার্টুনে পুরু ঠোঁট, স্থূল চেহারা, কোঁকড়ানো চুলের সেরেনাকে দেখা গিয়েছিল। ২৩টি গ্র্যান্ডস্লামজয়ী সেরেনা উইলিয়ামসকে নিয়ে এ ধরনের কার্টুন প্রকাশে বিশ্বজুড়ে প্রতিবাদের ঝড় উঠেছিল। মার্ক নাইট এবং হেরাল্ড সানকে এজন্য ক্ষমা চাওয়ার দাবি উঠেছিল। সেই ঘটনারই রায় দিল অস্ট্রেলিয়ান প্রেস কাউন্সিল।