নিটোল নিউজিল্যান্ড টালমাটাল!

  ক্রিকইনফো, এএফপি ১৭ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

নিটোল নিউজিল্যান্ড টালমাটাল!
নিউজিল্যান্ডে উৎকণ্ঠার প্রহর পেরিয়ে শনিবার রাতে ঘরে ফিরলেন টাইগাররা।

বিশ্বের সবচেয়ে শান্তিপ্রিয় জাতি বলা হয় কিউইদের। সেই নিউজিল্যান্ডও শেষ পর্যন্ত সন্ত্রাসের বিষাক্ত ছোবল থেকে রেহাই পেল না।

শুক্রবার ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে ভয়াবহ সন্ত্রাসী হামলায় অন্তত ৪৯ জন নিহত হওয়ার ঘটনায় শোকবিহ্বল গোটা বিশ্ব। বাংলাদেশ জাতীয় ক্রিকেট দল এ হামলা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে গেছে।

জুমার নামাজ পড়তে মসজিদে পৌঁছতে সামান্য দেরি না হলে বাংলাদেশ দলের অধিকাংশ সদস্যই হয়তো প্রাণ হারাতেন। এ ঘটনায় বিশ্বব্যাপী নিন্দার ঝড় উঠেছে। শোকসন্তপ্ত পরিবারের প্রতি সহমির্মতা আসছে বিশ্বের বিভিন্ন প্রান্ত থেকে।

তবে সবচেয়ে বড় ধাক্কাটা খেয়েছে কিউইরাই। নিটোল নিউজিল্যান্ড এখন টালমাটাল। বাংলাদেশ দল বড় বাঁচা বেঁচে গেলেও এ ঘটনার পর দেশটির খেলাধুলা আয়োজনের কাঠামো ও নিরাপত্তা ব্যবস্থ আমূল পাল্টে যাবে বলে মনে করেন নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট বোর্ডের প্রধান নির্বাহী ডেভিড হোয়াইট, ‘এটা ভয়াবহ ব্যাপার।

এ ঘটনার পর নিউজিল্যান্ডে আন্তর্জাতিক খেলাধুলা আয়োজনের কাঠামোই পাল্টে যাবে। নিজেদের নিরাপত্তা ব্যবস্থা আমরা গভীরভাবে পর্যালোচনা করব।

নিউজিল্যান্ড নিরাপদ দেশ, সবার এই ধারণাটা এখন পাল্টে যাবে বলে আমি মনে করি। আমাদের এখন ভীষণ সতর্ক থাকতে হবে। ক্রীড়াঙ্গন থেকে শুরু করে সবাইকে।’

ক্রাইস্টচার্চের মসজিদে সন্ত্রাসী হামলার পরপরই বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড সিরিজের তৃতীয় ও শেষ টেস্ট বাতিল ঘোষণা করা হয়। বাংলাদেশ সময় শনিবার ভোর ৫টায় ক্রাইস্টাচার্চ থেকে সিঙ্গাপুর এয়ারলাইন্সের একটি বিমানে দেশের উদ্দেশে রওনা দিয়েছেন বাংলাদেশ দলের ১৯ সদস্য। বাংলাদেশ দলকে দেশে ফেরার ফ্লাইটে তুলে দেয়ার পাশাপাশি নিউজিল্যান্ড টেস্ট দলের খেলোয়াড়দেরও তাদের পরিবারের কাছে পাঠানোর ব্যবস্থা করেছে দেশটির ক্রিকেট বোর্ড।

এখন তাদের সামনে আরও কঠিন চ্যালেঞ্জ। নিউজিল্যান্ড ক্রীড়াঙ্গনের নিরাপত্তা ও সফরকারী দলগুলোর নিরাপত্তা ব্যবস্থা একেবারে ঢেলে সাজাতে হবে।

হ্যাগলি ওভালের পাশে আল নূর মসজিদে যখন গোলাগুলি চলছিল, বাংলাদেশ দলের টিম বাস তখন মসজিদের ঠিক সামনে। বাস আর পাঁচ মিনিট আগে পৌঁছে গেলে হামলার সময় মসজিদের ভেতরেই থাকতেন তামিম, মুশফিকরা।

ভাগ্যের জোরে বেঁচে গেলেও ওই সময় টিম বাসে কোনো নিরাপত্তা কর্মী বা লিয়াজোঁ কর্মকর্তা ছিলেন না। নিজেদের সিদ্ধান্তে ঝুঁকি নিয়ে বাস থেকে নেমে দৌড়ে মাঠে ফিরে আসেন ক্রিকেটাররা। হামলাকারী তখন মসজিদ থেকে বেরিয়ে এলে শেষ রক্ষা হতো না।

কোনো বিদেশি দল বাংলাদেশ সফরে এলে নিñিদ্র নিরাপত্তার মধ্যে রাখা হয় তাদের। অথচ নিউজিল্যান্ড সফরে মাঠ ও মাঠের বাইরে বাংলাদেশ দলকে ঘিরে ন্যূনতম কোনো নিরাপত্তা বলয় ছিল না।

এ ঘটনা থেকে শিক্ষা নিয়ে ভবিষ্যতে সফরকারী দলের নিরাপত্তার বিষয়টিতে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দেয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন ডেভিড হোয়াইট। আগামী অক্টোবরে নিউজিল্যান্ড সফরে আসার কথা রয়েছে ইংল্যান্ড দলের। সেই সিরিজের একটি টেস্ট হতে পারে ক্রাইস্টচার্চে।

শুক্রবারের ঘটনায় শুধু বাংলাদেশ দলের সফরসূচি নয়, বাতিল করা হয়েছে নিউজিল্যান্ড ডেভেলপমেন্ট দল ও অস্ট্রেলিয়া অনূর্ধ্ব-১৯ নারী দলের দুটি ম্যাচও। ঘরোয়া ক্রিকেটেও নেমে এসেছে স্থবিরতা।

ওয়েলিংটনে প্লাংকেট শিল্ডের শেষ রাউন্ডের ম্যাচ না খেলার সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্যান্টারবুরি। দলের প্রধান নির্বাহী জেরেমি কারউইন খেলোয়াড়দের সিদ্ধান্তকে সমর্থন জানিয়ে বলেছেন, ‘বিয়োগান্তক এই ঘটনা নানাভাবে

মানুষকে প্রভাবিত করবে। এই ট্রমা থেকে বেরিয়ে আসা খুব কঠিন। খেলোয়াড়দের যে কোনো সিদ্ধান্তের প্রতি পূর্ণ সমর্থন আছে আমাদের।’

ডানেডিনে ওটাগার বিপক্ষে আরেক ম্যাচে অকল্যান্ডের হয়ে খেলার কথা থাকলেও এ ঘটনার পর দল থেকে নিজেদের সরিয়ে নিয়েছেন মার্টিন গাপটিল ও লকি ফার্গুসন। খেলার মতো মানসিকতা নেই কারও। হতাহতদের প্রতি শ্রদ্ধা জানাতে শনিবার রাগবি লিগের একটি ম্যাচও বাতিল করা হয়েছে।

কিউইদের মনের কথাটা বলেছেন ডেভিড হোয়াইট, ‘ক্রিকেট এখানে তুচ্ছ। এটা খেলাধুলার চেয়ে অনেক বড় ও গুরুত্বপূর্ণ ব্যাপার। এটা জীবনের প্রশ্ন, শ্রদ্ধার প্রশ্ন। নিউজিল্যান্ডের বাকি সবার মতো খেলোয়াড়রাও ব্যথিত ও আতঙ্কিত। ক্রিকেট ও ক্রীড়া এখন পেছনের পাতায়।’

এখানে যে ভয়ংকর অভিজ্ঞতা হয়েছে সেই ধাক্কা সামলে উঠতে অবশ্যই কিছু সময় লাগবে আমাদের। এখন এটাই ভালো যে, আমরা আমাদের পরিবারের কাছে ফিরে যাচ্ছি। সবার পরিবারই ভীষণ উদ্বেগের মধ্যে আছে। আশা করি, দেশে ফেরার পর আপনালয়ে কিছু সময় কাটিয়ে এই ট্রমা থেকে বেরিয়ে আসতে পারব আমরা

- দেশে ফেরার আগে শনিবার ভোরে ক্রাইস্টচার্চ বিমানবন্দরে তামিম ইকবাল

নিউজিল্যান্ডের আর সবার মতো আমিও বিশ্বাস করতে পারছি না যা ঘটে গেছে। হতাহত, তাদের পরিবার, বন্ধু, মুসলিম সম্প্রদায় এবং বিপর্যস্ত সব দেশবাসীর প্রতি থাকল আমার হৃদয়ের সবটুকু ভালোবাসা। আসুন সবাই এক হই

- নিউজিল্যান্ড অধিনায়ক কেন উইলিয়ামসন

আলহামদুলিল্লাহ ... শেষ পর্যন্ত বাড়ি যাওয়ার সময় হয়েছে

- ক্রাইস্টচার্চ থেকে শনিবার ভোরে দেশে ফেরার বিমান ধরার আগে মুশফিকুর রহিম

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর-২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×