‘আমাদের ক্রীড়াবিদদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে’

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৭ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

‘আমাদের ক্রীড়াবিদদের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে’
জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

নিউজিল্যান্ডে অল্পের জন্য বাংলাদেশ দলের ক্রিকেটাররা সন্ত্রাসী হামলা থেকে রক্ষা পাওয়ায় স্বস্তি বোধ করছেন দেশের ক্রীড়াঙ্গন সংশ্লিষ্টরা। সেই সঙ্গে তারা বিদেশে প্রতিটি বাংলাদেশ ক্রীড়া দলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করার ওপর জোর দিয়েছেন-

জাহিদ আহসান রাসেল এমপি, যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী

নিউজিল্যান্ডের অনাকাক্সিক্ষত ঘটনা আমাদের চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিয়েছে, নিরাপত্তার কী ভীষণ প্রয়োজন। তাই এখন থেকে যে কোনো দেশে বাংলাদেশের ক্রীড়াবিদদের পাঠানোর আগে তাদের নিরাপত্তা দেখে পাঠানো হবে। ওই দেশের সরকার যদি আমাদের দলের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করে, তাহলেই বিদেশে যাবেন ক্রীড়াবিদরা। আর সাউথ এশিয়ান গেমসে যাওয়ার আগে অবশ্যই নিরাপত্তার বিষয়টি খতিয়ে দেখতে একটি অগ্রগামী দল পাঠানো হবে। কারণ এসএ গেমসে ক্রীড়াবিদদের বিশাল দল যায়। ইতিমধ্যে নেপালে সাফ গেমসে যাওয়া নারী দলের নিরাপত্তা বাড়ানোর বিষয়েও আয়োজক কমিটির সঙ্গে কথা হয়েছে। আমি সব সময় তাদের খোঁজখবর নিচ্ছি।

আশিকুর রহমান মিকু, বিওএ উপ-মহাসচিব

আমরা ক্রীড়া মন্ত্রণালয়কে জানিয়ে দিয়েছি, যে কোনো আন্তর্জাতিক ক্রীড়া প্রতিযোগিতায় অংশ নেয়ার আগে আমাদের দলের নিরাপত্তা নিশ্চিত করতে হবে। প্রয়োজনে ক্রীড়াবিদরা যাওয়ার আগে সংশ্লিষ্ট দেশে অগ্রগামী দল পাঠানো যেতে পারে। ক্রীড়াবিদদের নিরাপত্তার বিষয়টি নিশ্চিত করা জরুরি।

এএসএম আলী কবির, সভাপতি বাংলাদেশ অ্যাথলেটিক্স ফেডারেশন

সর্বোচ্চ নিরাপত্তার মধ্যেও দুর্ঘটনা ঘটতে পারে। ঘটার পর হয়তো অনেক কিছু করা যায়। কিন্তু কোথাও কিছু ঘটবে না, এ গ্যারান্টি কেউ দিতে পারবে না। এর জন্য দরকার সচেতনতা বৃদ্ধি। ক্রীড়া কর্মকর্তা যারা যাবেন তারা ঘোরাফেরা কিংবা শপিং না করে যেন ক্রীড়াবিদদের নিরাপত্তার বিষয়ে দায়িত্ব পালন করেন। তাহলেই অর্ধেক নিরাপত্তা নিশ্চিত হয়ে যাবে।

ইন্তেখাবুল হামিদ অপু, মহাসচিব বাংলাদেশ শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশন

আমাদের শুটিংয়ের বিষয়টি আলাদা। বিদেশে গেলে, বিমানবন্দর থেকে শুরু করে ভেন্যু এবং শপিংমলে বাড়তি নিরাপত্তা থাকে। অন্যদের ক্ষেত্রেও এমন নিরাপত্তা প্রয়োজন। কারণ নিউজিল্যান্ডের মতো শান্তিপ্রিয় দেশেও যখন এমন ঘটনা ঘটেছে, অন্য দেশেও ঘটতে পারে। আশা করি, আমাদের সরকার, ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং সংশ্লিষ্ট সবাই বিদেশে ক্রীড়াবিদদের নিরাপত্তা জোরদার করবেন। নিউজিল্যান্ডের ঘটনা আমাদের জন্য সতর্কতা। যারা বিদেশে খেলতে যাবেন, সবাই আমাদের সন্তান।

আহমেদ আসিফুল হাসান, সাধারণ সম্পাদক রোলার স্কেটিং ফেডারেশন

রোলবল বিশ্বকাপে ৩৯টি দেশ ঢাকায় এসেছে। তখন পুলিশের পক্ষ থেকে বলা হয়েছিল, ‘অস্ট্রেলিয়াকে আমরা বাড়তি নিরাপত্তা দেয়ার নিশ্চয়তা দিলেও তারা আসেনি। আর আপনারা ৩৯ দেশের ক্রীড়াবিদদের নিয়ে খেলা শেষ করেছেন।’ আমাদের দেশ অনেক শান্তির। নিউজিল্যান্ডে যা ঘটল তা ন্যক্কারজনক। কোনো পুলিশকে ক্রিকেটারদের সঙ্গে দেখা যায়নি। বিদেশি ক্রীড়াবিদদের যে সার্ভিস আমরা দিই, সেই সার্ভিস বিদেশে পাই না। এবার থেকে আমরা বাইরে খেলতে গেলে নিরাপত্তা চাইব। নইলে খেলতে যাব না। আমরা এত নিরপত্তা দিই, অথচ তারা দেবে না, তা হয় না।

মাজহারুল ইসলাম তুহিন, সাধারণ সম্পাদক বক্সিং ফেডারেশন

আমরা বিদেশিদের যেমন নিরাপত্তা দিই, বিদেশে আমাদের নিরাপত্তা পাওয়ার অধিকার রয়েছে। ক্রীড়াবিদরা আমাদের সন্তানের মতো। তাদের ভালো চাওয়াটা আমাদের দায়িত্ব। তাই এখন থেকে বিদেশে খেলতে গেলে আমাদের ক্রীড়াবিদদের নিরাপত্তার বিষয়টি আগে দেখব আমরা।

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশের নিউজিল্যান্ড সফর-২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×