হ্যাটট্রিকের সঙ্গে ভালোবাসাও পেলেন মেসি

প্রকাশ : ১৯ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  স্পোর্টস ডেস্ক

লা লিগায় আরেকটি মেসিময় রাত। আর্জেন্টাইন জাদুকর উপহার দিলেন আরেকটি জাদুকরী হ্যাটট্রিক। রিয়াল বেটিসের মাঠ থেকে রোববার বার্সেলোনা ফিরল ৪-১ গোলের দাপুটে জয় নিয়ে। এর কোনোটিতেই নতুনত্ব নেই। অনেকের কাছে অমৃত হলেও মেসির জন্য হ্যাটট্রিকও ডাল-ভাত। গত এক মাসেই করেছেন দুটি হ্যাটট্রিক। চলতি মৌসুমে সংখ্যাটা চার।

সবমিলিয়ে ক্যারিয়ারের ৫১তম হ্যাটট্রিক। এরমধ্যে লিগে করেছেন ৩৩টি। লা লিগায় চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ক্রিশ্চিয়ানো রোনাল্ডোর সর্বোচ্চ ৩৪টি হ্যাটট্রিকের রেকর্ড ছুঁতে আর একটি হ্যাটট্রিক দরকার মেসির। তবে এ ধরনের ব্যক্তিগত কীর্তি কখনই সেভাবে স্পর্শ করে না বার্সেলোনা অধিনায়ককে। গত পরশু রাতের সবচেয়ে চমকপ্রদ দৃশ্য ছিল মেসির হ্যাটট্রিকের পর প্রতিপক্ষ সমর্থকদের প্রতিক্রিয়া।

যে মানুষটা তাদের বুকে ছুরি চালিয়েছেন, তার জন্যই করতালি আর হর্ষধ্বনিতে প্রকম্পিত হল বেনিতো ভিয়ামারিন স্টেডিয়াম! উঠে দাঁড়িয়ে মেসিকে টুপিখোলা কুর্নিশ জানায় রিয়াল বেটিস সমর্থকরা। প্রতিপক্ষের ডেরায় এমন অভাবনীয় ভালোবাসা ও সম্মান পেয়ে মেসি নিজেও আপ্লুত, ‘সত্যি বলতে একটি গোলের জন্য কখনও প্রতিপক্ষের সমর্থকরা উঠে দাঁড়িয়ে আমাকে সম্মান জানিয়েছে, এমনটা আমার মনে পড়ে না। এমন দারুণ প্রতিক্রিয়ার জন্য তাদের কাছে আমি কৃতজ্ঞ। যখনই এই স্টেডিয়ামে আসি, খুব ভালো অভ্যর্থনা পাই আমরা।’

মেসির জন্য গোটা স্টেডিয়াম এক হয়ে যাওয়ার কারণটা ব্যাখ্যা করেছেন বার্সা কোচ আর্নেস্তো ভালভার্দে, ‘আমাদের সব প্রতিপক্ষকেই মেসির জন্য ভুগতে হয়, কিন্তু তারাও মেসির খেলা উপভোগ করে।’ টিকিটের পয়সা উসুল করার মতো খেলাই এদিন উপহার দিয়েছেন মেসি। গত নভেম্বরে ন্যুক্যাম্পে বেটিসের কাছে ৪-৩ গোলে হেরেছিল বার্সা। ঘরের মাঠেও বার্সার সঙ্গে সমান তালে লড়েছে বেটিস।

বার্সার বল পজেশন ছিল মাত্র ৪৩.৯ ভাগ। ২০০৪-০৫ মৌসুমের পর লা লিগায় বল দখলে কখনও এতটা পিছিয়ে থাকেনি কাতালানরা। কিন্তু ব্যবধান গড়ে দেয়ার জন্য বার্সার একজন মেসি ছিলেন। ১৮ মিনিটে দুর্দান্ত এক ফ্রিকিকে দলকে এগিয়ে দেন মেসি। বিরতির ঠিক আগে সুয়ারেজের জাদুকরী এক ব্যাকহিল থেকে মেসিই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন। গোলের দুটি সহজ সুযোগ নষ্ট করার পর

৬৩ মিনিটে ব্যবধান ৩-০ করেন সুয়ারেজ। ৮২ মিনিটে লোরেন মোরনের গোলে ব্যবধান কমালেও ম্যাচে ফিরতে পারেনি বেটিস। উল্টো ৮৫ মিনিটে আরেকটি চোখধাঁধানো গোলে মেসি তুলে নেন হ্যাটট্রিক। ইনজুরি টাইমে পোস্টের বাধায় চতুর্থ গোল পাননি আর্জেন্টাইন জাদুকর। তবে এ মৌসুমে ইউরোপের সর্বোচ্চ গোলদাতা মেসিই। লা লিগায় ২৯টি ও সবমিলিয়ে করেছেন ৩৯ গোল। তার দলও লিগ শিরোপা ধরে রাখার পথে অনেকটা এগিয়ে গেছে। ২৮ ম্যাচ শেষে দ্বিতীয় স্থানে থাকা অ্যাটলেটিকো মাদ্রিদের (৫৬) চেয়ে দশ পয়েন্টের ব্যবধানে এগিয়ে বার্সা। ৫৪ পয়েন্ট নিয়ে তিনে আছে রিয়াল মাদ্রিদ।