ঘুষ দিয়ে টোকিও অলিম্পিকের আয়োজক হয়েছে জাপান?

  নিউইয়র্ক টাইমস ২১ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অলিম্পিক,

২০২০ টোকিও অলিম্পিকের আয়োজক হতে ঘুষ দিয়েছে জাপান। এ অভিযোগ আগেই উঠেছে। জাপান অবশ্য দাবি করেছে যে, স্বচ্ছ প্রক্রিয়ায় তারা গেমস আয়োজনের দায়িত্ব পেয়েছে। তবুও বিতর্ক নিরসনে তদন্তে নেমেছে ফরাসি কর্তৃপক্ষ। অভিযোগের পর পদত্যাগের ঘোষণা দিয়েছেন জাপানের অলিম্পিক কমিটির প্রধান সুনেকাজু তাকেদা।

ফরাসি আইনজীবীদের দাবি, আয়োজক হতে দুই মিলিয়ন ইউরো ঘুষ দিয়েছেন জাপানের অলিম্পিক কমিটির প্রভাবশালী প্রধান। এ ঘটনায় তিনি তদন্তের মুখে রয়েছেন। ২০১৩ সালে টোকিও অলিম্পিক আয়োজনের দায়িত্ব পায় মাদ্রিদ ও ইস্তাম্বুলকে হারিয়ে।

তাকেদার বিরুদ্ধে অভিযোগ, তিনি ভোটের আগে সিঙ্গাপুরের একটি কনসালটেন্সি প্রতিষ্ঠানকে অর্থ দিয়েছিলেন। যার সঙ্গে সম্পৃক্ত সাবেক বিশ্ব অ্যাথলেটিক্স প্রধান লামিন ডিয়াকের ছেলে! যিনি টোকিওকে যখন আয়োজক হিসেবে বিজয়ী ঘোষণা করা হয়, তখন আন্তর্জাতিক অলিম্পিক কমিটির সদস্যও ছিলেন। তার নাম পাপা মাসাতা ডিয়াক। তার বিরুদ্ধেও আনা হয়েছে এ অভিযোগ। অভিযোগ উড়িয়ে দিয়েছেন তাকেদা।

তিনি দুর্নীতির অভিযোগ অস্বীকার করে বলেছেন, ‘আমার মনে হয় না যে, আমি অবৈধ কিছু করেছি। এ বিষয়টি অতিমাত্রায় গুরুত্ব পাওয়ায় বিষয়টি আমাকে পীড়া দিচ্ছে।’

তাকেদার মেয়াদ শেষ হবে আগামী জুনে। বিতর্কিত ঘটনায় মেয়াদের পরই সরে দাঁড়াবেন তিনি। আর নির্বাচনে অংশ নেবেন না। এই পদে তিনি আসীন রয়েছেন ২০০১ সাল থেকে। চলমান বিতর্কের পরও মেয়াদ শেষ করে পদ ছাড়ার ঘোষণা দিয়েছেন, এখনও এটা আমার দায়িত্ব। বাকি যে কয়দিন আছে সেটা পূরণ করে যেতে চাই।’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×