তিন ক্রিকেটারের বিয়ে

আজ আকদ মোস্তাফিজের। মুমিনুলের বিয়ে ১৯ এপ্রিল

  স্পোর্টস রিপোর্টার ২২ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

‘যার বিয়ে তার খোঁজ নাই, পাড়াপড়শির ঘুম নাই’। শুনতে যেমনই হোক, এটাই বাস্তব। বিয়েকে কেন্দ্র করে পাড়াপড়শিদের ঘুম হারাম হওয়াটা অস্বাভাবিক নয়। অন্তত ক্রিকেটপাড়ায় এখন এমনটাই চলছে। হুট করেই বিয়ের ধুম লেগে গেছে ক্রিকেটারদের। কিন্তু যাদের বিয়ে তারা রয়েছেন আড়ালেই। মিরপুর একাডেমি মাঠে বৃহস্পতিবার মাশরাফি মুর্তজার সঙ্গে সাংবাদিকদের আড্ডায় আলোচনা হয়ে থাকল শুধু বিয়ের খবরই। লাখ তরুণীর হৃদয় ভেঙে একই সঙ্গে বাংলাদেশ দলের তিন ‘ম’- মেহেদী হাসান মিরাজ, মোস্তাফিজুর রহমান ও মুমিনুল হক বিয়ে করছেন। ক’দিন আগে অনেকটা নীরবেই বিয়ে করেছেন সাব্বির রহমান। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটের ব্যস্ততা নেই, তাই এ সময়টাকেই বিয়ের জন্য উপযুক্ত মনে করছেন মিরাজ-মোস্তাফিজরা। একেবারে ঘরোয়া আয়োজনে গতকাল আকদ সেরে রেখেছেন মিরাজ। আজ আকদ হবে মোস্তাফিজের। আর আগেই ঠিক রয়েছে ১৯ এপ্রিল মুমিনুলের বিয়ে হবে।

বয়সভিত্তিক দল থেকেই মিরাজ ও মোস্তাফিজ ঘনিষ্ঠ বন্ধু। অভিষেকও হয়েছে প্রায় কাছাকাছি সময়ে। মোস্তাফিজের বয়স ২৩, মিরাজের ২১। এবার দু’জন বিয়ে সারলেন একদিনের ব্যবধানে। দু’জনেরই প্রেমের বিয়ে। মিরাজ রাবেয়া আক্তার প্রীতির সঙ্গে প্রায় ছয় বছর প্রেম করেছেন। দু’জনের বাড়িই খুলনায়। প্রেমের শেষ কথা যেটা সেই বিয়ে করেই এখন দু’জন জুটিবদ্ধ হলেন। মিরাজ বিয়ের জন্য ভালো একটা সময় বের করার চেষ্টায় ছিলেন। নিউজিল্যান্ডের ক্রাইস্টচার্চের দুটি মসজিদে সন্ত্রাসী হামলা থেকে অল্পের জন্য বেঁচে ফেরা মোস্তাফিজ-মিরাজদের মনোজগতে খানিকটা ধাক্কা লেগেছে। মানসিকতা অন্যদিকে নিতে তারা বিয়েকেই বেছে নিলেন। কাল মিরাজ বলেন, ‘আপতত আকদটা সেরে রাখছি। একেবারেই ঘরোয়া পরিবেশে। দুই পরিবারের বাইরে তেমন কাউকে বলিনি। বিশ্বকাপের পরই বিয়ের অনুষ্ঠান করার পরিকল্পনা রয়েছে। তখন সবাইকে জানাব।’

ছুটি পেলেই মোস্তাফিজ বাড়িতে চলে যান। সাতক্ষীরার কালীগঞ্জ উপজেলার তেঁতুলিয়ায় নিজের গ্রামের বাড়িতেই তার সময় কাটে। আগে থেকেই গুঞ্জন ছিল মামাতো বোন সামিয়া পারভীন শিমুর সঙ্গে মোস্তাফিজের প্রেমের সম্পর্ক রয়েছে। এবার নিউজিল্যান্ড সফর থেকে দেশে ফেরার পর বিমানবন্দরে কারও সঙ্গেই কথা বলেননি এ বাঁ-হাতি পেসার। পরদিনই তিনি ঢাকায় কয়েকটি শপিংমল থেকে বেশ কেনাকাটা করেছেন। সেগুলো ছিল নিজের এবং হবু স্ত্রী পারভীনের জন্য। বাকি কেনাকাটা সেজ ভাই মোখলেছুর রহমান পল্টু সেরেছেন। পারভীন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের শিক্ষার্থী। ভাই মোখলেছুর রহমান বলেন, ‘আপাতত আকদ করে রাখছি আমরা। নিজেদের কাছের মানুষজন থাকবে। বিশ্বকাপের পর সময়মতো সবাইকে জানিয়ে অনুষ্ঠান করব।’ মোস্তাফিজের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, ‘ভাইতো (মোখলেছুর) বলেই দিয়েছেন!’

এদিকে মুমিনুলের বিয়ে সম্পর্কে ক্রিকেট পাড়ায় অনেকেই আগে থেকে জানেন। কিন্তু তারিখটা মোটেও জানাতে চাচ্ছিলেন না ২৭ বছর বয়সী মুমিনুল। মোস্তাফিজ ও মিরাজের বিয়ের কথা শোনার পর নিজেরটাও বললেন। এ বাঁ-হাতি ব্যাটসম্যান বলেন, ‘আমার চেয়ে তো আপনারাই আমার বিয়ের কথা ভালো জানেন। তবে তারিখটা হয়তো জানতেন না। ১৯ এপ্রিল বিয়ে। এখন এসব নিয়ে ব্যস্ততা চলছে। আমন্ত্রণপত্র বানাতে দিয়েছি। সবাই দোয়া করবেন।’ মুমিনুলের হবু স্ত্রী ফারিহা বাশার বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব প্রফেশনালসের (বিইউপি) ব্যবস্থাপনা বিভাগের শিক্ষার্থী। মেয়ের বাসা মিরপুর ডিওএইচএসে। ক’দিন আগে বিয়ে করা সাব্বিরও বিশ্বকাপের পর অুনষ্ঠান করবেন।

খুলনা ব্যুরো জানায়, দ্বিতীয় ইনিংস শুরু করেছেন মেহেদী হাসান মিরাজ। বৃহস্পতিবার দুপুরে খুলনা মহানগরীর খালিশপুরের কাশিপুর এলাকার বেলাল হোসেনের মেয়ে রাবেয়া আক্তার প্রীতির সঙ্গে বিয়ে হল তার। ঘরোয়া অনুষ্ঠানে দুই পরিবারের ঘনিষ্ঠজনরা উপস্থিত ছিলেন। পরিবারের সদস্যরা জানান, নিউজিল্যান্ড সফর শেষে দেশে ফিরে আকদ সেরে রাখার কথা ছিল মিরাজের। কনে রাবেয়ার সঙ্গে মিরাজের পরিচয় ছয় বছর আগে। মিরাজ-প্রীতির পরিচয় থাকলেও প্রেমের সম্পর্ক ছিল না। মিরাজের বাবা জালাল হোসেন জানান, অনেকদিন ধরে মিরাজের বিয়ের কথা ভাবছিলেন। কিন্তু সময় হয়ে উঠছিল না। বিশ্বকাপের আগে লম্বা বিরতি কাজে লাগালেন। কাল কাশিপুর মেঘনা অয়েল ডিপো সড়কে কনের বাড়িতে আকদ হয়। বিয়ের অনুষ্ঠান বিশ্বকাপের পর।

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি জানান, কয়েক দিন ধরেই মুখে মুখে ভাসছে কথাগুলো। তবে কেউ খুলে বলছেন না। কেউ বলছেন শুনেছি। কেউ বলছেন আমার কথা যেন বলবেন না। সব মিলিয়ে ধন্দের মধ্যে রয়েছে কাটার মাস্টার মোস্তাফিজপ্রেমীরা। তারা বলেছেন মোস্তাফিজের বিয়ে হচ্ছে। আর স্বপ্নের বর সাতক্ষীরার কালিগঞ্জের তারালি ইউনিয়নের সেই মোস্তাফিজ। ক্রিকেট বিশ্ব কাঁপানো মোস্তাফিজ। কিন্তু কোথায় হচ্ছে বিয়ে। কার সঙ্গেই বা হচ্ছে এ বিয়ে। কে সেই স্বপ্নের রানী। তা নিয়েও ধন্দ কাটেনি। ফিজের পরিবারের সদস্যরাও এ বিষয়ে তেমন কোনো কথা বলছেন না। বৃহস্পতিবার বিকাল ৪টায় ফোন করে ফের জানতে চাইলে অপর প্রান্ত থেকে বলা হল ‘আমি কিছু জানি না’। মোস্তাফিজ কোথায়। ‘ভাইয়া ঘরে ঘুমুচ্ছে’। ওর ভাই পল্টু কোথায়। জবাব এলো ‘সে তো মাঠে। পরে ফোন করেন’।

তবে পাড়াপড়শি বন্ধুবান্ধব ও আত্মীয়স্বজনের কাছ থেকে জানা গেল মোস্তাফিজের মা মাহমুদা খাতুনের পছন্দ অনুযায়ী বিয়ে হচ্ছে ছেলের। কনে মোস্তাফিজের মামা দেবহাটা উপজেলার হাদিপুর গ্রামের রওনাকুল ইসলাম বাবুর মেয়ে। তিনি ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রথম বর্ষের ছাত্রী সুমাইয়া ইসলাম। আজ শুক্রবার ওদের আকদ হওয়ার কথা। ওরা বললেন মোস্তাফিজের তেঁতুলিয়ার বাড়িতে কনে আসবেন দলবল নিয়ে। মোস্তাফিজও প্রস্তুত থাকবেন ব্যাটিংয়ের জন্য। আর এ সময় খুব জানাজানি না করেই তাদের আকদ সম্পন্ন করা হবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×