‘দেশবাসীর প্রত্যাশা পূরণ করাই লক্ষ্য’

বিশ্বকাপে বাংলাদেশের লক্ষ্য সম্পর্কে তামিম ইকবাল

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১৮ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

তামিম,

দেশের বাইরে তামিম ইকবালের প্রিয় ভেন্যু ইংল্যান্ড। বছরে অন্তত একবার হলেও সেখানে যান তিনি। ২০১০ সালে টেস্টে লর্ডসে সেঞ্চুরি করে বাংলাদেশের প্রথম ব্যাটসম্যান হিসেবে অনার্স বোর্ডে নাম লিখিয়েছিলেন তামিম। পরের ইনিংসে ম্যানচেস্টারেও সেঞ্চুরি। এবার ক্রিকেট বিশ্বকাপ ইংল্যান্ডে। তামিমের কাছে দল যা চায় সেটা দিতে পারলেই খুশি হবেন এই বাঁ-হাতি ওপেনার। বিশ্বকাপে বাংলাদেশকে ভালো অবস্থানে দেখতে চান তিনি। বুধবার ঢাকার ইন্টারকন্টিনেন্টাল হোটেলে মানিগ্রামের বিশ্বকাপ দলকে অভিনন্দন শীর্ষক এক প্রোগ্রামে তামিম এসব কথা বলেন -

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে আপনার ব্যক্তিগত লক্ষ্য কী?

তামিম : আমি কোনো লক্ষ্য স্থির করতে পছন্দ করি না। দল আমার কাছে যে জিনিসটা দাবি করবে, আমি সেটা দেয়ার চেষ্টা করব। বিশ্বকাপের আগে হাতে সময় আছে। আয়ারল্যান্ড সিরিজ আছে তার আগে। সবারই শক্তি ও দুর্বলতার জায়গা থাকে। চেষ্টা করব আমার দুর্বলতার জায়গায় ৫-১০% উন্নতি করতে। এত অল্প সময়ে হয়তো বড় ধরনের উন্নতি আনতে পারব না। দুর্বলতাগুলো যদি ৫-১০% কাটিয়ে উঠতে পারি, এটাই আমার কাছে বড় কিছু হবে।’

প্রশ্ন : বিশ্বকাপের ফরম্যাট নিয়ে কী বলবেন? বাংলাদেশের লক্ষ্য কী?

তামিম : ভিন্ন ফরম্যাটের বিশ্বকাপ। সবাই সবার সঙ্গে খেলবে। অনেক চ্যালেঞ্জ। দু’একটা ম্যাচ ভালো খেললে হবে না। টানা ভালো খেলতে হবে। আমরা চার বছর ধরে প্রস্তুতি নিচ্ছি বিশ্বকাপের জন্য। এখানে ভালো খেলব বলে অনেক পরিকল্পনা করে এগিয়েছি। সেটা বাস্তবে রূপ দেয়াই হবে আসল কাজ। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও আমরা সক্ষমতা দেখিয়েছিলাম। ২০১৫ বিশ্বকাপের পর আমরা দেশে ও দেশের বাইরে বেশ কিছু সাফল্য পেয়েছি। যারা দলে সুযোগ পেয়েছে তারা জানে বিশ্বকাপে কী করতে হবে। দেশবাসী যে প্রত্যাশা করছে সেটা পূরণ করাই আমাদের লক্ষ্য।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপ দল কেমন হল?

তামিম : যে কোনো দল ঘোষণার পরই ‘যদি’ ‘কিছু’ এসব প্রশ্ন থাকে। পছন্দ-অপছন্দ থাকবেই। তবে দল তৈরি করা সহজ কাজ নয়। অবশ্যই এখানে কিছু প্লেয়ার আছে যারা খুব ভালো পারফর্ম করেছে, কিন্তু সুযোগ পায়নি। কে থাকলে ভালো হতো এ নিয়ে এখন আলোচনা না করে যে ১৫ জন সুযোগ পেয়েছে তাদের সাহায্য করাই ভালো কাজ হবে। সমালোচনা করলে যারা সুযোগ পেয়েছে তাদের মন ছোট হয়ে যাবে। আমরা চার বছর অপেক্ষা করেছি বিশ্বকাপের জন্য। এখন মন ছোট না করে তাদের আত্মবিশ্বাস বাড়ানো উচিত।

প্রশ্ন : বিশ্বকাপে এবার যারা প্রথম খেলবে তাদের ভালো করার সম্ভাবনা কতটুকু?

তামিম : বিশ্বকাপ সবচেয়ে বড় মঞ্চ। সেখানে তারকারা জন্ম নেয়। বিশ্বকাপে ভালো করলে এক রাতেই অনেকে সুপারস্টার হয়ে যায়। সব তরুণ ক্রিকেটারের নিজেদের মেলে ধরার বড় সুযোগ। আমাদেরও কিছু খেলোয়াড় আছে যারা বিশ্বকাপে তাদের প্রতিভা দেখাবে। প্রতিভা দেখানোর জন্য বিশ্বকাপের চেয়ে আর কোনো ভালো মঞ্চ হতে পারে না।

প্রশ্ন : ইংল্যান্ডে বাংলাদেশি সমর্থকরা কতটা অনুপ্রাণিত করতে পারে?

তামিম : ইংল্যান্ডে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফি খেলার সময় মনে হয়েছে আমি যেন ঢাকায় খেলছি। সেখানে বাংলাদেশের সমর্থক ইংল্যান্ডের চেয়েও বেশি ছিল। বিশ্বকাপেও আমরা অনেক সমর্থন পাব। সেখানে সারা বিশ্ব থেকে বাংলাদেশকে সমর্থন জানাতে দর্শকরা যাবে। বাংলাদেশ থেকেও অনেকে যাবে। আশা করি, আমরাও সমর্থকদের কিছু দিতে পারব।

প্রশ্ন : বাংলাদেশ দলের পক্ষে কতদূর যাওয়া সম্ভব?

তামিম : কতদূর যাওয়া সম্ভব এটা আমি বলতে পছন্দ করি না। কারণ ১০টা দল বিশ্বকাপ খেলছে। কোনো দল অংশগ্রহণ করার জন্য খেলছে না। সবাই যাচ্ছে জেতার জন্য। আমরাও যাচ্ছি জেতার জন্য। যদি বলি শুধু অংশগ্রহণ করার জন্য যাচ্ছি, তাহলে যাওয়ার কোনো মানেই হয় না। আমরা পারি বা না পারি, আগে আমাদের বিশ্বাস করতে হবে যে, আমরাও জিততে পারি।

প্রশ্ন : সবাই বলছে ভারত ও ইংল্যান্ড এবার বিশ্বকাপে ফেভারিট। আপনার কী মনে হয়?

তামিম : অবশ্যই ভারত ফেভারিট। ইংল্যান্ডও ফেভারিট। এখানে অনেক দলই আছে তাদের আপনি সহজে নিতে পারবেন না। অস্ট্রেলিয়া, পাকিস্তান আছে, আরও অনেক দল আছে। এটা নির্ভর করে টুর্নামেন্টে দল হিসেবে কারা ফর্মে আছে সেটার ওপর। ক্রিকেটে যে কোনো কিছু হতে পারে। অনিশ্চয়তার খেলা ক্রিকেট। ১৯৯৬-এ কেউ প্রত্যাশা করেনি শ্রীলংকা জিতবে। আপনি জানবেনই না যে, ক্রিকেট সবার জন্য কী চমক জমা করে রেখেছে।

প্রশ্ন : বাংলাদেশের প্রস্তুতি কেমন?

তামিম : মানসিকভাবে প্রস্তুত হওয়া বেশি গুরুত্বপূর্ণ। অনেক সময় ৫০ দিন অনুশীলন করেও মানসিকভাবে প্রস্তুত হওয়া যায় না। আমরা ভাগ্যবান যে, ইংল্যান্ড যাচ্ছি অনেক আগেই। ত্রিদেশীয় সিরিজ খেলব আয়ারল্যান্ডে। যদিও আয়ারল্যান্ডের উইকেট ও ইংল্যান্ডের উইকেটে অনেক পার্থক্য। তবে আমার বিশ্বাস, ওই কন্ডিশন থেকে আমরা ভালো কিছু নিতে পারব।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×