সাবেক প্রধান নির্বাচকের দৃষ্টিতে বর্তমান নির্বাচকদের ভুল

আমার মনে হচ্ছে নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্ট দল নিয়ে অনিশ্চয়তায় রয়েছে

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১৯ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফারুক,

২০০৭ ও ২০১৫ বিশ্বকাপের জন্য বাংলাদেশ দল ঘোষণা করেছিলেন সেসময়ের প্রধান নির্বাচক ফারুক আহমেদ। বাংলাদেশ সবচেয়ে সফল হয়েছে ওই দু’বার। অভিমান করে প্রধান নির্বাচকের পদ থেকে সরে না দাঁড়ালে এবারও হয়তো দল ঘোষণা করতেন ফারুক। যে দল এবার দেয়া হয়েছে সেটি ভালো মনে করছেন এই সাবেক প্রধান নির্বাচক। তার ভয় দল নিয়ে নির্বাচকরা দ্বিধায় থাকায়।

তার ধারণা, বর্তমান টিম ম্যানেজমেন্টের দূরদর্শিতার অভাব রয়েছে। কাল মিরপুর শেরেবাংলা স্টেডিয়ামে ফারুক বলেন, ‘আমার মনে হচ্ছে নির্বাচক ও টিম ম্যানেজমেন্ট দল নিয়ে অনিশ্চয়তায় রয়েছে। এটা আমার ভালো লাগেনি। ২৩ মে পর্যন্ত সময় আছে, এটা নিয়ে এখনও তারা চিন্তা করছে। এভাবে চিন্তা করলে দল আত্মবিশ্বাসী হবে না।’

দীর্ঘ সময় নিয়ে বিশ্বকাপের জন্য পরিকল্পনা করেছে বিসিবি। পরিকল্পনার অংশ হিসেবে যাদের দলে চাওয়া হয়েছে তারা প্রায় সবাই সুযোগ পেয়েছেন। যদি-কিন্তুর চিন্তা থাকায় সেটা পরিষ্কার মনে হচ্ছে না ফারুকের কাছে। তিনি বলেন, ‘সবারই জানা ছিল জুন-জুলাইয়ে বিশ্বকাপ অনুষ্ঠিত হবে। এর জন্য পরিকল্পনা আরও ছয়-সাত মাস আগে থেকেই হওয়া উচিত ছিল। সেটাও হয়েছে। একই সঙ্গে বলা হচ্ছে আয়ারল্যান্ড সফরের পারফরম্যান্স দলের পরিবর্তন আনতে পারে। এটাকে ভালোভাবে দেখছি না। এতে দলের খেলোয়াড়রা আত্মবিশ্বাসহীনতায় ভুগবে। ভয় থাকবে তাদের- যদি ভালো না খেলি, বাদ পড়ে যেতে পারি।’

তিনি বলেন, ‘দল ঘোষণার পর যদি বলা হতো এটাই আমাদের সেরা দল এবং যারা ফর্মে নেই আশা করব তারা ফর্মে ফিরে আসবে, তাহলে সবার আত্মবিশ্বাস ভালো থাকত। ম্যানেজমেন্টের দূরদর্শিতার অভাব মনে হয়েছে। এছাড়া দলটা এই মুহূর্তে সেরা। আমি হয়তো থাকলে একজন লেগ-স্পিনার চাইতাম, সেটা থাকলে দলের মধ্যে বৈচিত্র্য থাকত। তবে লেগ-স্পিনার না থাকলেও বাঁ-হাতি সাকিবের সঙ্গে অফ-স্পিনার এবং ৬-৭ জন ব্যাটসম্যান আছে। কিন্তু নতুন খেলোয়াড়ের সঙ্গে তিনটি বিশ্বকাপ খেলা ক্রিকেটারও আছে। আশা করব দল ভালো করবে।’

দু’বারের সফল প্রধান নির্বাচক বাংলাদেশ দলকে শুভকামনা জানান। সবার কাছে আবু জায়েদ রাহি চমক হিসেবে থাকলেও সেটা ভালো হিসেবেই দেখছেন ফারুক। তিনি বলেন, ‘দলে সবসময় কিছু চমক থাকা ভালো। রাহি (আবু জায়েদ) দীর্ঘদিন ধরে ঘরোয়া ক্রিকেটে ভালো খেলছে। বিশ্বকাপেও হয়তো ভালো করবে।’ ২০১৫ বিশ্বকাপে বাংলাদেশ কোয়ার্টার ফাইনাল খেলেছে। ২০১৯ বিশ্বকাপে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে ফারুক বলেন, ‘২০১৫ বিশ্বকাপ অনেক ভালো ছিল। ২০১৭ সালে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফিতেও আমরা সেমিফাইনাল খেলেছি। এসব বিবেচনা করলে এবং আমাদের সিনিয়ররা যদি ভালো খেলে, তাহলে এবারও আমাদের ভালো সুযোগ আছে।’

ঘটনাপ্রবাহ : আইসিসি বিশ্বকাপ-২০১৯

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×