টন্টনের ছোট মাঠ যদি টেনে বড় করা যেত!

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১৭ জুন ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

টন্টনের ছোট মাঠ সম্ভব হলে টেনে বড় করার চেষ্টা করত বাংলাদেশ। বিশ্বকাপের সূচি প্রকাশের পর থেকেই এ নিয়ে কম কথা হয়নি। তবে মাশরাফি ছোট মাঠেই বাংলাদেশের সুবিধা বের করে ফেলেছেন। তার ধারণা, ছোট মাঠেই বাংলাদেশের ব্যাটসম্যানরা বেশি সুবিধা পাবেন।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যানরা মাঠ বড় হলেও ছক্কা মারবেন। ব্রিস্টল থেকে টন্টনে যাওয়ার পর সেখানে খেলা করছে মেঘ-বৃষ্টি। রোববার ঝলমলে রোদের দেখা মিলেছে টন্টনে। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে জিতে মাশরাফিরা সেমিফাইনালে খেলার স্বপ্ন উজ্জ্বল করতে চান।

দু’দলের শেষ সাতবারের মুখোমুখিতে বাংলাদেশ জিতেছে ছয়বার। শেষ চারবারের সবক’টিতেই জিতেছে টাইগাররা। আয়ারল্যান্ডে ত্রিদেশীয় সিরিজে তিনবার ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারিয়েছেন মাশরাফিরা। নিকট অতীতের এই রেকর্ড বলে দিচ্ছে, বাংলাদেশ আজ ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ফেভারিট। কিন্তু বিশ্বকাপ বলেই জোর দিয়ে তা বলতে পারছেন না কেউ। তামিম ইকবাল নিজেদের ফেভারিট দাবি করেছেন। নির্দিষ্ট দিনে গেইল-হোপরা জ্বলে উঠলে সেটা প্রতিপক্ষ দলের কাজ কঠিন হয়ে যায়। বাংলাদেশ ক্যারিবীয়দের জ্বলে ওঠার সুযোগ দিতে চায় না। তামিম বলেন, ‘সাম্প্রতিক অতীতে তাদের সঙ্গে আমরাই বেশি ম্যাচ জিতেছি। আয়ারল্যান্ডে তাদের বিপক্ষে তিনটি ম্যাচই জিতেছি। নিজেদের ফেভারিট আমরা ভাবতেই পারি।’

আজ বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা ছিল ৫০ ভাগের বেশি। এখন সেটা ২০ ভাগের আশপাশে। তাই বলাই যায় আজ বৃষ্টি খুব বেশি সমস্যা করবে না। আগের ম্যাচে শ্রীলংকার বিপক্ষে বৃষ্টির দরুন পয়েন্ট হারানোর হতাশা এই ম্যাচ জিতে ভুলতে চায় বাংলাদেশ। মাশরাফি মনে করেন, নির্দিষ্ট ম্যাচের দিনে ফর্মই বড় কথা। তিনি বলেন, ‘ছোট মাঠ হলেই তো বরং আমাদের ব্যাটসম্যানদের জন্য ভালো। ছক্কা বেশি মারতে পারবে। আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের ব্যাটসম্যান ছক্কা মারলে সেটা বড় মাঠেও হবে। ফর্মই আসল। ফর্ম না থাকলে ছোট মাঠেও বল বাউন্ডারি পার হবে না।’

হোপকে নিয়ে দুরাশা : সৌম্যকে নিয়ে আশা

বিশ্বকাপে এখনও নিজেকে মেলে ধরতে পারেননি শাই হোপ। বিশ্বকাপের আগে পাঁচ ম্যাচে তার রান ছিল ৪৭০। দুটি করে সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি। বিশ্বকাপে তিন ম্যাচে মাত্র একটি হাফ সেঞ্চুরি। বাংলাদেশকে সামনে পেয়ে ফেরার উপলক্ষ পেয়ে যেতে পারেন হোপ। মাশরাফিরা যে তাকে সহজে আউট করতে জানেন না! গেইল-রাসেলের চেয়েও তাই হোপ বড় চিন্তার কারণ। হোপের সঙ্গে মিল রয়েছে বাংলাদেশের বাঁ-হাতি ওপেনার সৌম্য সরকারের। ফর্ম নিয়ে বিশ্বকাপ শুরু করলেও এখনও ইনিংস বড় করতে পারেননি তিনি। ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে সৌম্যর পারফরম্যান্সও দুর্দান্ত। ওয়েস্ট ইন্ডিজ যেমন হোপের আশায় থাকবে, বাংলাদেশও সৌম্যর কাছ থেকে সেরাটা দেখার অপেক্ষায়।

বাংলাদেশের বিপক্ষে মাত্র নয় ম্যাচ খেলে হোপের সেঞ্চুরি ও হাফ সেঞ্চুরি তিনটি করে। ৯৪.৫৭ গড়ে করেছেন ৬৬২ রান। বিশ্বকাপে এখন পর্যন্ত শুধু অস্ট্রেলিয়ার বিপক্ষেই একটি হাফ সেঞ্চুরি (৬৮) করেছেন তিনি। বাকি দুই ম্যাচে তার রান ১১ ও ১১। উইকেটে শুরুতে কিছুটা সময় নিয়ে টিকে থাকতে পারলে তাকে আটকানো কঠিন। বাংলাদেশের বোলারদের তার চেনা। মাশরাফিদের নিশ্চয়ই প্রথম লক্ষ্য থাকবে হোপকে ফেরানো।

সৌম্য ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে ছয় ম্যাচে করেছেন চার হাফ সেঞ্চুরি। ৪৯.৬৬ গড়ে ২৯৮ রান। ১২ ছক্কা। ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে তার স্ট্রাইক রেট একশ’র উপরে (১০৭.১৯)। বিশ্বকাপে এই বাঁ-হাতি ওপেনারের ইনিংসের শুরুটাও ভালো হচ্ছে। কিন্তু সেটা ধরে রাখতে পারছেন না তিনি। একটি হাফ সেঞ্চুরিও করেননি। সৌম্য রানে ফিরলে বাংলাদেশের মিডলঅর্ডারে চাপ কমবে। টন্টনের ছোট মাঠে তার ব্যাট হাসার অপেক্ষায় বাংলাদেশ।

হেড-টু-হেড

ম্যাচ বাংলাদেশ জয়ী ওয়েস্ট ইন্ডিজ জয়ী পরিত্যক্ত

৩৭ ১৪ ২১ ২

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×