আবাহনীকে উড়িয়ে দিল মোহামেডান

  স্পোর্টস রিপোর্টার ১৭ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ফুটবলকে বিদায় জানালেন মোহামেডানের মিডফিল্ডার এনামুল হক শরীফ। অবসরের জন্য ঢাকা আবাহনীর বিপক্ষে বড় ম্যাচকেই বেছে নিয়েছেন তিনি। চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীদের বিপক্ষে জয়ের আবিরে এনামুল শরীফের শেষটা রাঙিয়ে দিলেন সতীর্থরা। মঙ্গলবার বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত দিনের শেষ ম্যাচে আবাহনীকে ৪-০ গোলে বিধ্বস্ত করে মোহামেডান। দীর্ঘদিন পর আকাশি নীল শিবিরকে হারাতে পেরে আনন্দে উদ্বেল ছিল সাদা কালো শিবির। লিগে মোহামেডানের কাছে ছয় ম্যাচ পর হারল ঢাকা আবাহনী।

সতীর্থদের সঙ্গে হাতে হাত রেখে মাঠে নামলেন। কিন্তু না খেলেই অবসরে গেলেন মোহামেডানের এনামুল হক শরীফ। ঘোষণাটা আগেই দিয়েছিলেন। সবাই ভেবেছিল খেলার বিরতিতে হয়তো অবসর নেবেন। কিন্তু একাদশে তার নাম না থাকায় ব্যাপারটা পরিষ্কার হয়ে যায়। ১৯ বছরের ফুটবল ক্যারিয়ার শেষ করলেন শরীফ। ২০০৬ থেকে ২০১৬ সাল পর্যন্ত তিন দফায় জাতীয় দলে খেলেছেন। ঢাকার মাঠে প্রথম অনুষ্ঠিত কোটি টাকার সুপার কাপ-জয়ী মোহামেডান দলের সদস্য ছিলেন তিনি। মোহামেডান ছাড়াও শেখ জামাল, শেখ রাসেল ও ভিক্টোরিয়াতে খেলেছেন। তবে ইনজুরি তাকে অনেক ভুগিয়েছে। শরীফের কথায়, ‘২০১১ থেকে ’১৩ পর্যন্ত ইনজুরিতে ভুগেছি। ওই সময় ইনজুরিতে না পড়লে হয়তো মোহামেডানের মতো ঐতিহ্যবাহী ক্লাবের অধিনায়ক হতে পারতাম। তারপরও ফুটবল আমাকে অনেক কিছু দিয়েছে। অনেক খ্যাতি ও মানুষের ভালোবাসা পেয়েছি।’

প্রিয় সতীর্থের বিদায়ের দিনে, উজ্জীবিত ফুটবলই খেলেছে মোহামেডান। প্রথমার্ধে দু’গোলে এগিয়ে যাওয়া সেটাই প্রমাণ করে। আক্রমণাÍক খেলে শুরুতেই আবাহনীর রক্ষণভাগ তছনছ করে দেন এমিলি, তখলিসরা। ১৬ মিনিটে মালির ফরোয়ার্ড সুলেমান দিয়াবাতের ক্রসে গোল করে মোহামেডানকে এগিয়ে দেন তখলিস (১-০)। প্রথমার্ধের অন্তিম সময়ে সেই তখলিসই ব্যবধান দ্বিগুণ করেন (২-০)। ৫০ মিনিটে এবার দলকে তৃতীয় গোল উপহার দেন মালির ফরোয়ার্ড সুলেমান (৩-০)। এরপর সুলেমান দিয়াবাতের ক্রস থেকে হেডে আবাহনীর কফিনে শেষ পেরেক ঠুকে দেন মোহামেডান অধিনায়ক জাহিদ হাসান এমিলি (৪-০)।

চার গোল হজম করেও জয়ের তেমন স্পৃহা দেখা যায়নি সদ্যই এএফসি কাপের প্রথম পর্ব থেকে দ্বিতীয় পর্বে পা রাখা আবাহনীর। বরং মোহামেডানের আক্রমণের ধার এত বেশি ছিল যে, আবাহনী আরও বড় ব্যবধানে হারলেও অবাক হওয়ার কিছুই থাকত না। সমর্থকদের ধুয়ো ধ্বনি শুনেই মাঠ ছাড়তে হয়েছে ওয়ালী ফয়সাল, শহিদুল আলম সোহেলদের। এই জয়ে ২০ ম্যাচে ২০ পয়েন্ট নিয়ে নবম স্থানে উঠে এল সাদা কালোরা। অন্যদিকে ৫১ পয়েন্ট নিয়ে দ্বিতীয়স্থানে থাকলেও শীর্ষে থাকা বসুন্ধরার সঙ্গে ব্যবধান আরও বাড়ল এক ম্যাচ বেশি খেলা আবাহনীর।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×