ভারতীয় মেয়েদের ছয় গোল হকিতে

  স্পোর্টস রিপোর্টার ২১ আগস্ট ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হকি

একদিকে বছরজুড়ে অনুশীলনে থাকা ভারতের সাই একাডেমি দল, অন্যদিকে মাস ছয়েক আগে গড়া দল। পার্থক্য স্পষ্ট। খেলার ফলাফলেও তার স্পষ্ট প্রতিফলন।

প্রথম ম্যাচে হাফ ডজন গোলে হেরেছে বাংলাদেশ অনূর্ধ্ব-২১ নারী হকি দল। মঙ্গলবার মওলানা ভাসানী হকি স্টেডিয়ামে অনুষ্ঠিত সিরিজের প্রথম ম্যাচে সফরকারীরা ৬-০ গোলে হারায় স্বাগতিকদের।

সাই একাডেমির কাছে ছয় গোলে হারলেও মাঝে মাঝে আক্রমণে গিয়ে অভিজ্ঞতার অভাবে গোল করতে পারেনি বাংলাদেশ দলের ফরোয়ার্ডরা। আগেরবার ঢাকায় আসা কলকাতা অ্যাথলেটিক্স ক্লাবের চেয়ে সাই একাডেমি দলটি অনেক এগিয়ে। ম্যাচ শেষে খেলোয়াড়রা নিজেরাই বুঝতে পেরেছেন কেন তারা পিছিয়ে। নমিতা কর্মকার সহজভাবেই স্বীকার করে নিলেন, ‘ওরা দীর্ঘ সময় ধরে অনুশীলন করেছে। ওদের দমের সঙ্গে আমরা পেরে উঠিনি। দীর্ঘমেয়াদে অনুশীলনে থাকলে ওদের মতোই হতে পারব আমরা।’

দলের প্রধান কোচ তারিকুজ্জামান নান্নু ও সহকারী কোচ হেদায়েতুল ইসলাম রাজিব বলেন, ‘আজ ওরা যে চাপ নিল তাতে সহজেই বুঝতে পারল নিজেদের অবস্থান। সামনে আরও পাঁচটি ম্যাচ আছে। ধীরে ধীরে মানিয়ে নিতে পারবে দলটি। এ ম্যাচ থেকে সিঙ্গাপুরে অনুষ্ঠিতব্য ম্যাচগুলো সম্পর্কে একটা ধারণা পেয়ে গেল মেয়েরা। সবচেয়ে বেশি ফিজিক্যাল ফিটনেসেই পিছিয়ে পড়েছে মেয়েরা। ওরা যথেষ্ট পরিমাণ পিসি পেয়েছে। কিন্তু কাজে লাগাতে পেরেছে মাত্র একটি। সব ঠিক হয়ে যাবে ইনশআল্লাহ। ভিডিও ফুটেজ দেখিয়ে ওদের ভুলত্রুটিগুলো শুধরে দেব।’

উপদেষ্টা কোচ অজয় কুমার বানসাল বলেন, ‘বাংলাদেশের মেয়েদের পারফরম্যান্সে আমি খুশি। শেষ পর্যন্ত তারা লড়াই করেছে। আমি গোলের হিসবা আনছি না। অতিথি দলটি সারা বছর অনুশীলন করে। স্টেমিনায় পিছিয়ে গেছি আমরা। তাছাড়া সিদ্ধান্ত নিতে পারেনি কোন সময় কি করা উচিত। প্রথম ম্যাচ বলেই এমন হয়েছে। কিছু কিছু জায়গায় কাজ করলে আশা করছি সিঙ্গাপুরে ভালো করবে বাংলাদেশ।’

প্রথম কোয়ার্টারে গোলশূন্য থাকে দু’দল। দ্বিতীয় কোয়ার্টারে তিন গোল, তৃতীয় কোয়ার্টারে দু’গোল ও শেষ কোয়ার্টারে এক গোল হজম করে বাংলাদেশ। সাই একাডেমির হয়ে ভিনামারাতা দুটি, লালাওন, তানিয়া, লোটিয়া ও লালরুয়াতফেলি একটি করে গোল করেন। বৃহস্পতিবার বিকেল ৪টায় সিরিজের দ্বিতীয় ম্যাচ।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×