আবাহনীর এপ্রিল টুয়েন্টি ফাইভ-পরীক্ষা

  স্পোর্টস রিপোর্টার ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

আকাশি নীল তাঁবু ছেড়ে চেন্নাইন এফসিতে চলে গেছেন আফগান ডিফেন্ডার মাসি সাইগনি। লাল কার্ডের নিষেধাজ্ঞায় মাঠে নামতে পারছেন না মিসরীয় ডিফেন্ডার ইসা আলেলদিন নসের। ইনজুরিতে মিডফিল্ডার মামুনুল ইসলাম।

খেলার আগেই এসব সংকটে পিছিয়ে আবাহনী। কপালে চিন্তার ভাঁজ থাকার কথা। কিন্তু তা নেই আবাহনীর পর্তুগিজ কোচ মারিও লেমোসের। মঙ্গলবার এক সংবাদ সম্মেলনে কোচের মুখে হাসি লেগে ছিল। তিন ফুটবলারকে ছাড়াই এএফসি কাপের ইন্টার জোন প্লে-অফ সেমিফাইনালে আজ মাঠে নামছে আবাহনী। উত্তর কোরিয়ার এপ্রিল টুয়েন্টি ফাইভ ক্লাবের সঙ্গে আবাহনীর ম্যাচ সন্ধ্যা ৬টা ৪৫ মিনিটে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে শুরু হবে।

ইসা, মাসি ও মামুনুল নেই, এটা কোনো সমস্যা নয়। কোচের কণ্ঠে দৃঢ়তা। লেমোসের কথা, ‘সানডে সিজোবাকে ছাড়াই আমরা মিনারভা পাঞ্জাবকে হারিয়েছি। ঢাকার মাঠে ওয়েলিংটনকে না পেয়েও চেন্নাইন এফসিকে হারাতে বেগ পেতে হয়নি। তাই ওই তিন ফুটবলারকে না পাওয়া আমাদের জন্য কোনো সমস্যা নয়।’ তিনি মনে করেন, ‘বলতে দ্বিধা নেই যে, উত্তর কোরিয়ার ক্লাবটি খুবই শক্তিশালী। তবে আমাদের নাইজেরিয়ান ফরোয়ার্ড সানডে সিজোবা ও নাবীব নেওয়াজ জীবন রয়েছে। বড় ম্যাচ। জিততেই হবে আমাদের। সেরা দল নিয়েই মাঠে নামব আমরা।’

কাফ মাসল ইনজুরি মামুনুলের। খেলার আগ মুহূর্ত পর্যন্ত মামুনুলের সেরে ওঠার অপেক্ষায় টিম ম্যানেজমেন্ট। অধিনায়ক শহিদুল আলম সোহেল বলেন, ‘দু’সপ্তাহ আমরা ভালো অনুশীলন করেছি। আমি ব্যক্তিগতভাবে এ ম্যাচের জন্য পর্যাপ্ত প্রস্তুতি নিয়েছি। জেতার জন্যই মাঠে নামব আমরা।’ দলের ম্যানেজার সত্যজিৎ দাশ রুপু বলেন, ‘এটা কেবল আবাহনীরই নয়, দেশের সম্মানেরও ব্যাপার। আমি দর্শকদের অনুরোধ করব, মাঠে আসুন। ছেলেদের উদ্বুদ্ধ করুন। আমরা ভালো কিছু দেখাতে চাই।’

এর আগে এশিয়ান ক্লাব চ্যাম্পিয়নশিপে উত্তর কোরিয়ার এই দলকে মোহামেডান ১৯৮৮-৮৯ মৌসুমে ১-০ গোলে হারিয়েছিল এবং ১৯৯০-৯১ মৌসুমে গোলশূন্য ড্র করে ছিল। এবার কি সেই ঐতিহ্য ধরে রাখতে পারবে আবাহনী? রুপুর উত্তর, ‘অতীতে মোহামেডান জিতেছে। আমরা সেই ধারাবাহিকতা বজায় রাখার জন্যই খেলব। বাকিটা মাঠে ফয়সালা হবে।’

হারতে চায় না উত্তর কোরিয়ার ক্লাব এপ্রিল টুয়েন্টি ফাইভও। কোচ ও ইউন সনের কথা, ‘প্রত্যেকটি ম্যাচই গুরুত্বপূর্ণ। জেতার জন্য আমরাও প্রস্তুত। হারলেই বাদ পড়তে হবে। ছেলেরা সেরাটা দিয়েই খেলবে।’ আবাহনীর খেলা ইউটিউবে দেখেছেন ইউন সন। তার কথা, ‘প্রতিপক্ষ সম্পর্কে আমরা তেমন জানি না। ইউটিউবে যতটুকু দেখেছি, তার ওপর ভর করেই রণকৌশল সাজাব।’

অধিনায়ক চো জং হায়োক বলেন, ‘আমরা জিততে এসেছি।’ এই ক্লাবে উত্তর কোরিয়ান জাতীয় দলের চার ফুটবলার রয়েছেন, কউন চুক হায়োক, ও হায়োক চল, কিম ইউ সং এবং আন তায়ে সংকে নিয়ে স্বপ্ন দেখছেন কোরিয়ান কোচ। খেলা দেখার জন্য দর্শকদের কোনো টিকিট কাটতে হবে না। গ্যালারি থাকবে উন্মুক্ত।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত