মাথায় আঘাত হেডিংলি টেস্টে নেই স্মিথ

  এএফপি, লন্ডন ২১ অগাস্ট ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

খেলার ব্যাপারে স্টিভেন স্মিথ নিজে আশাবাদী ছিলেন। অন্যদিকে কনকাশনের লক্ষণ দেখা দেয়ায় এত দ্রুত তার সেরে ওঠা নিয়ে ছিল প্রবল শঙ্কা। শেষ পর্যন্ত শঙ্কাটাই সত্যি হল অস্ট্রেলিয়ার জন্য।

আগামীকাল হেডিংলিতে শুরু হতে যাওয়া অ্যাশেজ সিরিজের তৃতীয় টেস্ট থেকে ছিটকে গেলেন তাদের সেরা ব্যাটসম্যান স্মিথ। ড্র হওয়া লর্ডস টেস্টে ইংলিশ পেসার জফরা আর্চারের গতিময় বাউন্সারে ঘারে আঘাত পেয়ে মাঠ ছাড়তে হয়েছিল স্মিথকে। সেই আঘাতই তাকে পরের টেস্টে দর্শক বানিয়ে দিল।

লর্ডস টেস্টের প্রথম ইনিংসে আর্চারের বাউন্সারের ছোবলে মুখ থুবড়ে পড়ে গিয়েছিলেন স্মিথ। বাধ্য হয়েছিলেন রিটায়ার্ড হার্ট হয়ে মাঠ ছাড়তে। পরে অবশ্য ড্রেসিংরুমে প্রাথমিক কনকাশন টেস্টে উতরে আবার ব্যাটিংয়ে নেমেছিলেন। শেষ পর্যন্ত আউট হন ৯২ রানে। কিন্তু চতুর্থদিনের খেলা শেষে রাতে তার অবস্থার অবনতি হয়। মাথা ব্যথার সঙ্গে ছিল ঝিম ধরা অনুভূতি। যা কনকাশনের লক্ষণ। মাথা বা ঘাড়ে বড় ধরনের আঘাত পেলে সাধারণত এমন লক্ষণ দেখা যায়। এতে মৃত্যুর ঝুঁকিও থাকে। শেষদিনে তাই ম্যাচ থেকে তুলে নেয়া হয় স্মিথকে।

কনকাশন বদলির নতুন নিয়ম অনুযায়ী তার বদলে খেলতে নামেন মার্নাস লাবুশেন। দুই টেস্টের মধ্যে মাত্র তিনদিনের বিরতি থাকায় হেডিংলিতে স্মিথের খেলা নিয়ে তাই শঙ্কা ছিল তখন থেকেই। সোমবার স্মিথ জানিয়েছিলেন, তার অবস্থা ভালোর দিকে। কিন্তু মঙ্গলবার দলের সঙ্গে মাঠে গেলেও অনুশীলন করতে দেখা যায়নি তাকে। লম্বা সময় ধরে স্মিথের সঙ্গে কথা বলেন দলের চিকিৎসক রিচার্ড শ।

এসব ক্ষেত্রে চিকিৎসকের সিদ্ধান্তই চূড়ান্ত। কনকাশনের লক্ষণ থাকায় নিজেকে খেলার জন্য সুস্থ প্রমাণ করতে কয়েকটি পরীক্ষায় উতরাতে হতো স্মিথকে। ধারণা করা হচ্ছে, রিচার্ড শ তাকে খেলার মতো সুস্থ মনে করেননি। চিকিৎসকের সঙ্গে আলোচনার পর দেখা যায় স্মিথের কাছে গিয়ে সান্ত্বনা দেয়ার ভঙ্গিতে তার পিঠ চাপড়ে দিচ্ছেন কোচ জাস্টিন ল্যাঙ্গার ও সহ-অধিনায়ক প্যাট কামিন্স। একটু পর ল্যাঙ্গার আনুষ্ঠানিকভাবে জানিয়ে দেন, হেডিংলি টেস্টে থাকছেন না স্মিথ।

লর্ডসে দ্বিতীয় ইনিংসে কনকাশন বদলি হিসেবে খেলতে নেমে ম্যাচ বাঁচানো ফিফটি করা লাবুশেন এবার মূল একাদশেই স্মিথের জায়গা নিচ্ছেন। সিরিজে ১-০তে এগিয়ে থাকা অস্ট্রেলিয়ার জন্য স্মিথকে হারানো নিঃসন্দেহে অনেক বড় ধাক্কা। এবারের অ্যাশেজে অস্ট্রেলিয়ার ইনিংস টেনে নিচ্ছিলেন স্মিথ একাই। প্রথম টেস্টে জোড়া সেঞ্চুরির পর লর্ডসে একমাত্র ইনিংসে করেন ৯২ রান। হেডিংলির বাউন্সি উইকেটে স্মিথকে ছাড়া আর্চারের গোলা সামলানোর কঠিন চ্যালেঞ্জ অস্ট্রেলিয়ার সামনে।

আরও খবর

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত