‘অভিজ্ঞ’ বাংলাদেশকে আফগান-শিক্ষা

  স্পোর্টস ডেস্ক ১০ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ম্যাচ বাঁচাতে পুরো একটা দিন টিকে থাকতে হতো বাংলাদেশকে। স্বাগতিকদের দুর্দশা দেখে সহায়তার হাত বাড়িয়ে দিয়েছিল প্রকৃতি। সোমবার চট্টগ্রাম টেস্টের শেষ দিনে বাংলাদেশের হয়ে বৃষ্টি একাই ব্যাট করেছে দুই সেশন। কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হয়নি। বৃষ্টিও বাঁচাতে পারেনি দলকে। প্রকৃতির অনুকম্পা কাজে লাগানোর মতো সামান্য দৃঢ়তা দেখাতেও নিদারুণ ব্যর্থ সাকিব আল হাসানের দল। বৃষ্টিমুখর শেষদিনে জয়ের জন্য শেষ বিকেলে মাত্র ১৮.৩ ওভার সময় পেয়েছিল আফগানিস্তান। অধিনায়ক রশিদ খানের দুর্দান্ত বোলিংয়ে এর মধ্যেই আফগানরা বের করে নিল জয়ের পথ। বাংলাদেশ পেল বিব্রতকর এক হারের তেতো স্বাদ। চট্টগ্রাম টেস্টে বৃষ্টি ও বাংলাদেশকে হারিয়ে ২২৪ রানের অবিস্মরণীয় জয়ে ইতিহাস গড়ল আফগানিস্তান। মাত্র তৃতীয় টেস্টেই আফগানদের এটি দ্বিতীয় জয়। টেস্ট ইতিহাসে এতদিন প্রথম তিন ম্যাচের দুটি জেতার কীর্তি ছিল শুধু অস্ট্রেলিয়ার। বাংলাদেশ দ্বিতীয় জয় পেয়েছিল ৬০তম টেস্টে! তথাকথিত অভিজ্ঞ বাংলাদেশকে লজ্জার সঙ্গে ভালো একটা শিক্ষাও দিল নবীন আফগানরা।

শেষদিনের প্রায় পুরোটাই ভেসে গিয়েছিল বৃষ্টিতে। তাতে আফগানদের আশাও ভেসে যেতে বসেছিল। শেষ বিকেলে আফগানদের প্রতি প্রকৃতি একটু সদয় হতেই স্বাগতিকদের সর্বনাশ। বাংলাদেশের শেষ চার উইকেট তুলে নিতে আফগানদের লেগেছে মাত্র ১৭.২ ওভার। চতুর্থ ইনিংসে ৩৯৮ রানের অসম্ভব লক্ষ্য তাড়ায় রশিদের স্পিন-বিষে নিল হয়ে ১৭৩ রানে অলআউট বাংলাদেশ। কাল বৃষ্টির ফাঁকে দ্বিতীয় সেশনে প্রথম ধাপে খেলা হয় মাত্র ১৩ বল। দুই অপরাজিত ব্যাটসম্যান সাকিব আল হাসান ও সৌম্য সরকার শুরু করেছিলেন ম্যাচ বাঁচানোর লড়াই। এই ১৩ বলে কোনো উইকেট না হারিয়ে সাত রান যোগ করে বাংলাদেশ। এরপর ঝুম বৃষ্টি। দলের রান তখন ছয় উইকেটে ১৪৩। শেষ বিকেলে বৃষ্টি থামার পর বাংলাদেশ পায় ১৮.৩

ওভার টিকে থাকার চ্যালেঞ্জ। কিন্তু অসাধারণ মানসিক দৃঢ়তার প্রমাণ রেখে সম্ভাব্য ২০ বল বাকি থাকতেই ম্যাচ বের করে নেয় আফগানিস্তান।

শেষ বিকেলে বাংলাদেশের দুঃস্বপ্নের শুরু অধিনায়ককে দিয়ে। জহির খানের প্রথম বলেই ব্যাখাতীত এক বাজে শট খেলে নিজের মৃত্যু ডেকে আনেন সাকিব। ৫৪ বলে ৪৪ রান করে দলকে মহাবিপদে ঠেলে সাকিবের বিদায়ের পর টপাটপ বাকি তিন উইকেট তুলে নেন রশিদ। শেষ পর্যন্ত লড়াই করা সৌম্যও পারেননি দলকে উদ্ধার করতে। রশিদের ঘূর্ণি-জাদুর প্রলয় নাচনের মধ্যে তাইজুল ফেরেন আম্পায়ের ভুল সিদ্ধান্তের বলি হয়ে। তবে এই ম্যাচে বাংলাদেশ যেভাবে হেরেছে তাতে অজুহাত খোঁজারও সুযোগও নেই। আফগানরা চোখে আঙুল দিয়ে দেখিয়ে দিল, ১৯-এ পা রেখেও সাবালক হতে পারেনি টেস্টের বাংলাদেশ।

ইতিহাস গড়া জয়ে সাদা পোশাকে মোহাম্মদ নবীর শেষটা রাঙানোর পাশাপাশি রশিদও দাগ কেটেছেন রেকর্ডের পাতায়। প্রথম ইনিংসে পাঁচ উইকেট নেয়া আফগান অধিনায়ক দ্বিতীয় ইনিংসে পেয়েছেন ছয় উইকেট। ১১ উইকেটের সঙ্গে প্রথম ইনিংসে ফিফটিও করেছিলেন ম্যাচসেরা রশিদ। টেস্টে নেতৃত্বের অভিষেকে ১০ উইকেট ও ফিফটির কীর্তি নেই আর কারও।

টেস্টে রানের ব্যবধানে

বাংলাদেশের বড় হার

প্রতিপক্ষ হারের ব্যবধান মাঠ তারিখ

শ্রীলংকা ৪৬৫ রান চট্টগ্রাম ৩ জানু. ২০০৯

জিম্বাবুয়ে ৩৩৫ রান হারারে ১৭ এপ্রিল ২০১৩

দ. আফ্রিকা ৩৩৩ রান পচেফস্ট্র–ম ২৮ সেপ্টে. ২০১৭

ইংল্যান্ড ৩২৯ রান চট্টগ্রাম ২৯ অক্টো. ২০০৩

পাকিস্তান ৩২৮ রান ঢাকা ৬ মে ২০১৪

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২৯৬ রান গ্রোস আইলেট ১৩ সেপ্টে. ২০১৪

শ্রীলংকা ২৮৮ রান কলম্বো ২৮ জুলাই ২০০২

শ্রীলংকা ২৫৯ রান গল ৭ মার্চ ২০১৭

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ২২৯ রান ঢাকা ২৯ অক্টো. ২০১১

আফগানিস্তান ২২৪ রান চট্টগ্রাম ৫ সেপ্টে. ২০১৯

(ম্যাচ শুরুর তারিখ)

টেস্টে প্রথম দুটি জয় পেতে কোন দলের কয়টি ম্যাচ লেগেছে

দল ম্যাচ

অস্ট্রেলিয়া ৩

আফগানিস্তান ৩

ইংল্যান্ড ৪

পাকিস্তান ৯

ওয়েস্ট ইন্ডিজ ১২

দক্ষিণ আফ্রিকা ১৩

শ্রীলংকা ২০

ভারত ৩০

জিম্বাবুয়ে ৩১

নিউজিল্যান্ড ৫৫

বাংলাদেশ ৬০

স্কোর কার্ড

আফগানিস্তান প্রথম ইনিংস ৩৪২।

বাংলাদেশ প্রথম ইনিংস ২০৫।

আফগানিস্তান দ্বিতীয় ইনিংস ২৬০।

বাংলাদেশ দ্বিতীয় ইনিংস

রান বল ৪ ৬

লিটন এলবিডব্লু ব জহির ৯ ৩০ ০ ০

সাদমান এলবিডব্লু ব নবী ৪১ ১১৪ ৪ ০

মোসাদ্দেক ক আসগর ব জহির ১২ ১৭ ০ ০

মুশফিক এলবিডব্লু ব রশিদ ২৩ ২৫ ৪ ০

মুমিনুল এলবিডব্লু ব রশিদ ৩ ৮ ০ ০

সাকিব ক আফসার ব জহির ৪৪ ৫৪ ৪ ০

মাহমুদউল্লাহ ক ইব্রাহিম ব রশিদ ৭ ২১ ০ ০

সৌম্য ক ইব্রাহিম ব রশিদ ১৫ ৫৯ ২ ০

মিরাজ এলবিডব্লু ব রশিদ ১২ ২৮ ১ ০

তাইজুল এলবিডব্লু ব রশিদ ০ ৬ ০ ০

নাঈম নটআউট ১ ৮ ০ ০

অতিরিক্ত ৬

মোট (অলআউট, ৬১.৪ ওভারে) ১৭৩

উইকেট পতন : ১/৩০, ২/৫২, ৩/৭৮

৪/৮২, ৫/১০৬, ৬/১২৫, ৭/১৪৩, ৮/১৬৬ ৯/১৬৬, ১০/১৭৩।

বোলিং : ইয়ামিন আহমাদজাই ৪-১-১৪-০, মোহাম্মদ নবী ২০-৫-৩৯-১, রশিদ খান ২১.৪-৬-৪৯-৬, জহির খান ১৫-০-৫৯-৩, কাইস

আহমেদ ১-০-৬-০।

ফল : আফগানিস্তান ২২৪ রানে জয়ী।

ম্যান অব দ্য ম্যাচ : রশিদ খান (আফগানিস্তান)।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×