এবার বিসিবি চালাবে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’
jugantor
এবার বিসিবি চালাবে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’

  স্পোর্টস রিপোর্টার  

১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সপ্তম আসর নিয়ে বিসিবি ও ফ্র্যাঞ্জাইজিদের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। এরই মধ্যে হঠাৎ এলো চমকপ্রদ ঘোষণা। কোনো ফ্র্যাঞ্জাইজিকেই এবার দল করতে দেবে না বিসিবি। নিজেরাই দল চালাবে। সব দল বিসিবির ব্যবস্থাপনায় চলবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীকে সামনে রেখে এবারের বিপিএলের নাম ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। দ্বিতীয় চক্র শুরু করার জন্য নতুন নিয়মের বিপিএল আয়োজনের জন্য সব ফ্র্যাঞ্জাইজিকে ডেকেছিল বিসিবি। ফ্র্যাঞ্জাইজি মালিকপক্ষ যেসব দাবি করেছেন সেসব বিসিবির পক্ষে মানা সম্ভব হচ্ছে না। এজন্য এবার বিগ ব্যাশের মতো বিপিএল চালাতে চায় বোর্ড।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘এবার ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে আমরা বসেছিলাম। যে আলোচনা হয়েছে এবং সংবাদমাধ্যমে আমরা যা দেখেছি, সবকিছু থেকে আমি বলতে পারি, কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজির বেশ কিছু দাবি-দাওয়া আছে। সেসব দাবি বিপিএলের অরিজিনাল শিডিউলের সঙ্গে পুরোপুরি সাংঘর্ষিক। কোনোভাবেই মানিয়ে নিতে পারছি না।’ তিনি বলেন, সবকিছু মিলিয়ে আমরা ঠিক করেছি, এবারের বিপিএল বিসিবি নিজেরাই চালাবে। কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিকে আমরা নিচ্ছি না।’

বিসিবি সভাপতি জানান পূর্ব নির্ধারিত সময় ৬ ডিসেম্বরই শুরু হবে বিপিএল। তার আগে ৩ ডিসেম্বর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। নাজমুল হাসান বলেন, ‘আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। এবারের বিপিএল আমরা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করব। ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’ আয়োজন করে এ বছর আমরা চালাব।’

বিসিবি সব দল চালাবে কীভাবে? নাজমুল হোসেন বলেন, ‘প্রত্যেকটি দল ঠিক থাকবে। শুধু ব্যবস্থাপনায় বিসিবি। ক্রিকেটারদের থাকা-খাওয়া, টাকা-পয়সা, গাড়ি, সব আমরা দেব। এতে সবাই খুশি হবে। যারা

এবার করতে চাচ্ছিলেন না, তারা তো অবশ্যই খুশি হবেন। যারা আর্থিক ক্ষতির কথা বলছেন, তারা আরও বেশি খুশি হবেন। তাদের পুরো টাকা বেঁচে যাবে। তো আমরা ঠিক করেছি, আমরাই চালাব। আপনারা বিগ ব্যাশের কথা চিন্তা করতে পারেন। একই ফরম্যাট।’

তবে দল চালানোর জন্য স্পন্সর নিতে কোনো সমস্যা নেই। এমনকি কোনো দল স্পন্সর চাইলে বিদেশি কোচ বা বিদেশি ক্রিকেটারও নিতে পারবে।

এদিকে ফ্র্যাঞ্জাইজি মালিকদের কোন বিষয়গুলো নিয়ে আপত্তি, সেটা বলেননি বিসিবি সভাপতি। জানিয়েছেন, ফ্র্যাঞ্জাইজিদের অনেক দেয়া হয়। তিনি বলেন, ‘তারা রাজস্বের ভাগ চেয়েছে। সেটা দেয়া সম্ভব নয়। আমাদের তারা ৮০ কোটি টাকা করে দিক, আমরা ৪০ কোটি টাকা দেব। আট কোটি টাকা করে নেয়া হতো ফ্র্যাঞ্চাইজিদের কাছ থেকে (ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি), আমরা এক কোটি টাকায় নামিয়ে এনেছি। সাত কোটি তো ছেড়েই দিলাম, আবার কী চায়!’ তিনি বলেন, ‘আমরা সব আইন লিখে বুকলেট ছাপিয়ে দেব। তার পর সেসব মেনে কেউ যদি আসতে চায় আসবে, নইলে আমরাই চালাব। এখানে যারা আসবে তাদের ক্রিকেটের উন্নায়নের জন্য আসতে হবে। নিজেদের ব্যবসার জন্য নয়।’ ফ্র্যাঞ্জাইজিরা এরই মধ্যে ক্রিকেটারদের দলে নেয়ার কাজ এগিয়ে নিয়েছিল। তামিম ইকবালকে নিশ্চিত করেছিল খুলনা টাইটানস, মুশফিকুর রহিমকে দলে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। গত ৩১ জুলাই রংপুর রাইডার্স বড় আয়োজন করে জানায় সাকিব আল হাসানকে দলে নেয়ার খবর। এরপরই শুরু হয় বিপত্তি।

এবার বিসিবি চালাবে ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’

 স্পোর্টস রিপোর্টার 
১২ সেপ্টেম্বর ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ প্রিমিয়ার লিগের (বিপিএল) সপ্তম আসর নিয়ে বিসিবি ও ফ্র্যাঞ্জাইজিদের মধ্যে টানাপোড়েন চলছে। এরই মধ্যে হঠাৎ এলো চমকপ্রদ ঘোষণা। কোনো ফ্র্যাঞ্জাইজিকেই এবার দল করতে দেবে না বিসিবি। নিজেরাই দল চালাবে। সব দল বিসিবির ব্যবস্থাপনায় চলবে। জাতির জনক বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকীকে সামনে রেখে এবারের বিপিএলের নাম ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’। দ্বিতীয় চক্র শুরু করার জন্য নতুন নিয়মের বিপিএল আয়োজনের জন্য সব ফ্র্যাঞ্জাইজিকে ডেকেছিল বিসিবি। ফ্র্যাঞ্জাইজি মালিকপক্ষ যেসব দাবি করেছেন সেসব বিসিবির পক্ষে মানা সম্ভব হচ্ছে না। এজন্য এবার বিগ ব্যাশের মতো বিপিএল চালাতে চায় বোর্ড।

বুধবার মিরপুর শেরেবাংলা জাতীয় ক্রিকেট স্টেডিয়ামে সংবাদ সম্মেলনে বিসিবি সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘এবার ফ্র্যাঞ্চাইজিদের সঙ্গে আমরা বসেছিলাম। যে আলোচনা হয়েছে এবং সংবাদমাধ্যমে আমরা যা দেখেছি, সবকিছু থেকে আমি বলতে পারি, কয়েকটি ফ্র্যাঞ্চাইজির বেশ কিছু দাবি-দাওয়া আছে। সেসব দাবি বিপিএলের অরিজিনাল শিডিউলের সঙ্গে পুরোপুরি সাংঘর্ষিক। কোনোভাবেই মানিয়ে নিতে পারছি না।’ তিনি বলেন, সবকিছু মিলিয়ে আমরা ঠিক করেছি, এবারের বিপিএল বিসিবি নিজেরাই চালাবে। কোনো ফ্র্যাঞ্চাইজিকে আমরা নিচ্ছি না।’

বিসিবি সভাপতি জানান পূর্ব নির্ধারিত সময় ৬ ডিসেম্বরই শুরু হবে বিপিএল। তার আগে ৩ ডিসেম্বর উদ্বোধনী অনুষ্ঠান। নাজমুল হাসান বলেন, ‘আগামী বছর বঙ্গবন্ধুর জন্মশতবার্ষিকী। এবারের বিপিএল আমরা বঙ্গবন্ধুর নামে উৎসর্গ করব। ‘বঙ্গবন্ধু বিপিএল’ আয়োজন করে এ বছর আমরা চালাব।’

বিসিবি সব দল চালাবে কীভাবে? নাজমুল হোসেন বলেন, ‘প্রত্যেকটি দল ঠিক থাকবে। শুধু ব্যবস্থাপনায় বিসিবি। ক্রিকেটারদের থাকা-খাওয়া, টাকা-পয়সা, গাড়ি, সব আমরা দেব। এতে সবাই খুশি হবে। যারা

এবার করতে চাচ্ছিলেন না, তারা তো অবশ্যই খুশি হবেন। যারা আর্থিক ক্ষতির কথা বলছেন, তারা আরও বেশি খুশি হবেন। তাদের পুরো টাকা বেঁচে যাবে। তো আমরা ঠিক করেছি, আমরাই চালাব। আপনারা বিগ ব্যাশের কথা চিন্তা করতে পারেন। একই ফরম্যাট।’

তবে দল চালানোর জন্য স্পন্সর নিতে কোনো সমস্যা নেই। এমনকি কোনো দল স্পন্সর চাইলে বিদেশি কোচ বা বিদেশি ক্রিকেটারও নিতে পারবে।

এদিকে ফ্র্যাঞ্জাইজি মালিকদের কোন বিষয়গুলো নিয়ে আপত্তি, সেটা বলেননি বিসিবি সভাপতি। জানিয়েছেন, ফ্র্যাঞ্জাইজিদের অনেক দেয়া হয়। তিনি বলেন, ‘তারা রাজস্বের ভাগ চেয়েছে। সেটা দেয়া সম্ভব নয়। আমাদের তারা ৮০ কোটি টাকা করে দিক, আমরা ৪০ কোটি টাকা দেব। আট কোটি টাকা করে নেয়া হতো ফ্র্যাঞ্চাইজিদের কাছ থেকে (ফ্র্যাঞ্চাইজি ফি), আমরা এক কোটি টাকায় নামিয়ে এনেছি। সাত কোটি তো ছেড়েই দিলাম, আবার কী চায়!’ তিনি বলেন, ‘আমরা সব আইন লিখে বুকলেট ছাপিয়ে দেব। তার পর সেসব মেনে কেউ যদি আসতে চায় আসবে, নইলে আমরাই চালাব। এখানে যারা আসবে তাদের ক্রিকেটের উন্নায়নের জন্য আসতে হবে। নিজেদের ব্যবসার জন্য নয়।’ ফ্র্যাঞ্জাইজিরা এরই মধ্যে ক্রিকেটারদের দলে নেয়ার কাজ এগিয়ে নিয়েছিল। তামিম ইকবালকে নিশ্চিত করেছিল খুলনা টাইটানস, মুশফিকুর রহিমকে দলে নেয়ার ঘোষণা দিয়েছিল কুমিল্লা ভিক্টোরিয়ান্স। গত ৩১ জুলাই রংপুর রাইডার্স বড় আয়োজন করে জানায় সাকিব আল হাসানকে দলে নেয়ার খবর। এরপরই শুরু হয় বিপত্তি।