বন্দুক খুইয়ে বাঘ শিকারের স্বপ্ন

  যুগান্তর ডেস্ক    ২৮ ফেব্রুয়ারি ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

অধিনায়ককে সবসময় ভালো ভালো কথা বলতে হয়। খাদের কিনারে দঁাঁড়িয়েও শোনাতে হয় আশার বাণী। সেই ধারা মেনে জেসন হোল্ডার যে বাণী শোনালেন, তাতে নতুন হাস্যরসের জন্ম হতে পারে। বন্দুক খুইয়ে শুধু লাইসেন্স দিয়েই যে বাঘ শিকারের স্বপ্ন দেখছেন ওয়েস্ট ইন্ডিজ অধিনায়ক! বিশ্বকাপে খেলাই যাদের নিশ্চিত নয়, তারাই কিনা বিশ্বকাপ জয়ের স্বপ্ন দেখছে! ক্রিকেট বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজের ইতিহাস নিঃসন্দেহে সমৃদ্ধ। বিশ্বকাপের প্রথম দুই আসরের চ্যাম্পিয়ন তারা। তৃতীয় আসরে হয়েছিল রানার্সআপ। কিন্তু সেই ওয়েস্ট ইন্ডিজ এখন অতীতের কংকাল! অনেকদিন ধরেই হতশ্রী অবস্থা ক্যারিবীয় ক্রিকেটের। বিশেষ করে টেস্ট ও ওয়ানডেতে। পতনের ধারায় প্রথমবারের মতো বিশ্বকাপের টিকিট পেতে বাছাইপর্বে নামতে হচ্ছে তাদের। ১০ দলের ২০১৯ বিশ্বকাপে সরাসরি খেলবে র‌্যাংকিংয়ের শীর্ষ আট দল। সেরা আটে না থাকায় উইন্ডিজকে পেরোতে হবে বাছাইপর্বের বৈতরণী। আগামী ৪ মার্চ জিম্বাবুয়েতে শুরু হচ্ছে ১০ দলের বাছাইপর্ব। গ্রুপপর্ব শেষে সুপার সিক্সের শীর্ষ দু’দল পাবে বিশ্বকাপের টিকিট। জিম্বাবুয়ে, আফগানিস্তান ও আয়ারল্যান্ডের মতো দলগুলোর সঙ্গে টক্কর দিয়ে উইন্ডিজ বিশ্বকাপে যেতে পারবে কিনা তা নিয়ে অনেকেই সন্দিহান। কিন্তু হোল্ডার এখনই উইন্ডিজকে তৃতীয় বিশ্বকাপ ট্রফি এনে দেয়ার স্বপ্ন দেখছেন, ‘আগামী বছর বিশ্বকাপের আগে নিজেদের ঝালিয়ে নেয়ার দারুণ এক সুযোগ এটি। বিশ্বকাপের গুরুত্ব আমরা সবাই জানি। দু’বার এটা জিতেছি আমরা। তৃতীয়টি জেতার জন্য নিজেদের প্রস্তুত করছি। সাম্প্রতিক সময়ে আমরা টি ২০ ক্রিকেট, মেয়েদের ক্রিকেট ও অনূর্ধ্ব-১৯ ক্রিকেটে ভালো করেছি। সুতরাং আমার ধারণা, সেদিন আর দূরে নয়, যেদিন আমরা আরেকটি ওয়ানডে বিশ্বকাপ জিতব।’

পরিসংখ্যান কিন্তু আশার আলো দেখাচ্ছে না। ২০১৫ বিশ্বকাপের পর গত তিন বছরে ৪২টি ওয়ানডে খেলে মাত্র আটটিতে জিতেছে উইন্ডিজ। এই সময়ে ওয়ানডে খেলা আর কোনো দলের রেকর্ডই এত বিবর্ণ নয়। বাস্তবতা অস্বীকার করছেন না হোল্ডার, ‘এই পরিস্থিতির জন্য আমরাই দায়ী। আগে কখনই বাছাইপর্বে খেলতে হয়নি আমাদের। এটা তাই নতুন এক চ্যালেঞ্জ। এখন সব ভুল শুধরে ক্যারিবীয় ক্রিকেটকে আলোয় ফেরাতে হবে আমাদেরই। গেইল ও স্যামুয়েলস এজন্যই এখানে এসেছে। তারা আরেকটি বিশ্বকাপে খেলা নিশ্চিত করতে চায়। ক্যারিয়ারের মধুর সমাপ্তির ভালো সুযোগ এটি। আশা করি, আমরা সফল হব।’ ওয়েবসাইট।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter