নেইমারের লাল কার্ড

  স্পোর্টস ডেস্ক ২৫ ফেব্রুয়ারি ২০২০, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ম্যাচজুড়ে একের পর এক গোল। তাতে লড়াইটা হল জমজমাট। তবে এবার আর পা হড়কায়নি পিএসজির। রোববার ফরাসি লিগে শ্বাসরুদ্ধকর ম্যাচে বোর্দোকে ৪-৩ গোলে হারিয়ে দুই ম্যাচ পর জয়ে ফিরল টমাস টুখেলের দল। তবে স্বত্বির জয়েও অস্বস্তির কাঁটা হয়ে বিঁধছে নেইমারের লাল কার্ড। চোট কাটিয়ে মাঠে ফেরার পর দলকে নির্ভরতা দেয়া দূরে থাক, উল্টো আরও ঝামেলায় ফেলে দিয়েছেন ব্রাজিলীয় ফরোয়ার্ড।

ইনজুরি টাইমে বোর্দোর ইয়াসিন আদিলের সঙ্গে হাতাহাতিতে জড়িয়ে দ্বিতীয় হলুদ কার্ড দেখে মাঠ ছাড়েন নেইমার। এ ঘটনায় আরও কঠিন শাস্তি হতে পারে তার। নেইমারের আচরণ নিয়ে অতীতে বহুবার বিরক্তি প্রকাশ করলেও এবার শিষ্যের পাশে দাঁড়িয়েছেন কোচ টুখেল, ‘সবাইকে বুঝতে হবে নেইমারও মানুষ। সে ক্ষুব্ধ ছিল। ওই ঘটনার একটু আগে যে তাকে ফাউল করেছিল তার কোনো শাস্তিই হয়নি। মেজাজ হারানো তাই স্বাভাবিক।’

নেইমারের লাল কার্ডের চেয়ে দলের নড়বড়ে রক্ষণ নিয়ে বেশি চিন্তিত টুখেল। শেষ তিন ম্যাচে নয় গোল হজম করেছে পিএসজি। গত সপ্তাহে লিগে আমিয়েঁর সঙ্গে ৪-৪ গোলে ড্রয়ের পর চ্যাম্পিয়ন্স লিগে বরুশিয়া ডর্টমুন্ডের কাছে ২-১ গোলের হার। রোববার ঘরের মাঠেও অঘটনের শঙ্কা জাগিয়েছিল ফরাসি চ্যাম্পিয়নরা। ১৮ মিনিটে উই-জোর গোলে এগিয়ে যায় বোর্দো। ২৫ মিনিটে পিএসজির জার্সিতে ২০০তম গোলে ম্যাচে সমতা ফেরান এডিনসন কাভানি।

এরপর মার্কিনিয়োসের জোড়া গোল ও কিলিয়ান এমবাপ্পের লক্ষ্যভেদে এগিয়ে যায় স্বাগতিকরা। কিন্তু পাবলো ও রুবেন পার্দোর গোলে ব্যবধান কমিয়ে শেষ মুহূর্ত পর্যন্ত পিএসজিকে চাপে রেখেছিল বোর্দো। ইনজুরি টাইমে নেইমারের লাল কার্ড চাপ আরও বাড়িয়ে দেয়। শেষ পর্যন্ত অবশ্য বিপদে পড়তে হয়নি পিএসজিকে। এই জয়ে শিরোপা দৌড়ে ১৩ পয়েন্টের ব্যবধানে এগিয়ে গেল তারা।

আরও খবর
 

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত