আর্চারকে খেলায় মন দিতে বললেন হোল্ডিং
jugantor
আর্চারকে খেলায় মন দিতে বললেন হোল্ডিং
এই দলে মানিয়ে নেয়া কঠিন হওয়ার কথা নয় আর্চারের জন্য

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৬ জুলাই ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রথমে করোনা প্রতিরোধের নিয়ম ভেঙে শাস্তি পাওয়া। এরপর বর্ণবাদের শিকার। গত কয়েকদিনে জফরা আর্চার খবরের শিরোনাম মাঠের বাইরের নানা ঘটনায়।

ক্যারিবিয়ান পেস কিংবদন্তি ও ধারাভাষ্যকার মাইকেল হোল্ডিংয়ের পরামর্শ, মাঠের বাইরের সবকিছু পেছনে ফেলে খেলায় মন দেয়া উচিত আর্চারের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শুক্রবার শুরু হওয়া শেষ টেস্টের ইংল্যান্ড একাদশে জায়গা পেয়েছেন আর্চার। ইংলিশদের ব্যাটিংয়ের প্রথম দিনে অবশ্য কোনো ভূমিকা রাখার সুযোগ হয়নি এই পেসারের।

গত টেস্টে বাদ পড়া ও জরিমানা গুনতে হওয়া, এর পরপর বর্ণবাদ নিয়ে তোলপাড়, এসবের পর আর্চারের পারফরম্যান্স নিয়ে থাকবে সবার বাড়তি আগ্রহ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও তুলনামূলক নবীন একজনের জন্য এটা হতে পারে বড় চাপ। তবে স্কাই স্পোর্টসে হোল্ডিং বললেন, এই ইংল্যান্ড দলে মানিয়ে নেয়া কঠিন হওয়ার কথা নয় আর্চারের জন্য, ‘সত্যি বলতে, আমার মনে হয় না কাজটি ততটা কঠিন হবে।

যে পরিবেশে সে আছে, এমন একটি দলে খেলছে, যারা মাত্রই আগের টেস্ট জিতেছে। ইংল্যান্ড দলে সে বন্ধুদের সঙ্গেই আছে। বেন স্টোকস তার কাছের একজন, যে কিনা খুবই আন্তরিক ও ইতিবাচক মানসিকতার একজন মানুষ।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ৬০ টেস্টে ২৪৯ উইকেট নেয়া হোল্ডিংকে মনে করা হয় সর্বকালের সেরা ফাস্ট বোলারদের একজন। আর্চারকেও তিনি দেখতে চান গ্রেট হয়ে উঠতে, ‘তার উচিত, দলে সম্পৃক্ত থাকা, বাইরের হইচই সব ভুলে যাওয়া এবং নিজের কাজটুকু করা। গ্রেট বোলার হয়ে ওঠার সম্ভাবনা তার আছে। সেদিকেই মনোযোগ দেয়া উচিত তার।’

বর্ণবাদের শিকার হওয়ার ধাক্কা সামলে ওঠা কঠিন, এটি অবশ্য মানছেন হোল্ডিং। আর্চারকে করণীয়ও বাতলে দিলেন তিনি, ‘কাজটি সহজ নয়। জাত নিয়ে যখন কটুকথা বলা হয়, গায়ের রং, ধর্ম, বা শারীরিক যে কোনো কিছু, এমনকি বাড়তি ওজন নিয়েও যখন খোঁচা দেয়া হয়, তখন তা সামলে ওঠা কঠিন। কিন্তু নিজের কাজে মন দিলেই হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মানিয়ে নেয়া কঠিন। এজন্যই কখনও আমার এসবে কোনো অ্যাকাউন্ট ছিল না।

এসব সামলাতে হলে মানসিকভাবে খুব শক্ত হতে হয়।’ হোল্ডিংয়ের মতে, ইংল্যান্ড দলের সবার উচিত, আর্চারকে স্বাভাবিক হয়ে উঠতে সহায়তা করা, ‘আমি জানি না ইংল্যান্ড দলের ভেতরের পরিবেশ কেমন। তবে এটা জানি, সফল একটি দলে সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকে ও পরস্পরের পাশে থাকে। এই মুহূর্তে আর্চারের এটিই প্রয়োজন খেলায় মন দিতে এবং বাকি সব ভুলে থাকতে।’

আর্চারকে খেলায় মন দিতে বললেন হোল্ডিং

এই দলে মানিয়ে নেয়া কঠিন হওয়ার কথা নয় আর্চারের জন্য
 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৬ জুলাই ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

প্রথমে করোনা প্রতিরোধের নিয়ম ভেঙে শাস্তি পাওয়া। এরপর বর্ণবাদের শিকার। গত কয়েকদিনে জফরা আর্চার খবরের শিরোনাম মাঠের বাইরের নানা ঘটনায়।

ক্যারিবিয়ান পেস কিংবদন্তি ও ধারাভাষ্যকার মাইকেল হোল্ডিংয়ের পরামর্শ, মাঠের বাইরের সবকিছু পেছনে ফেলে খেলায় মন দেয়া উচিত আর্চারের।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের বিপক্ষে শুক্রবার শুরু হওয়া শেষ টেস্টের ইংল্যান্ড একাদশে জায়গা পেয়েছেন আর্চার। ইংলিশদের ব্যাটিংয়ের প্রথম দিনে অবশ্য কোনো ভূমিকা রাখার সুযোগ হয়নি এই পেসারের।

গত টেস্টে বাদ পড়া ও জরিমানা গুনতে হওয়া, এর পরপর বর্ণবাদ নিয়ে তোলপাড়, এসবের পর আর্চারের পারফরম্যান্স নিয়ে থাকবে সবার বাড়তি আগ্রহ। আন্তর্জাতিক ক্রিকেটে এখনও তুলনামূলক নবীন একজনের জন্য এটা হতে পারে বড় চাপ। তবে স্কাই স্পোর্টসে হোল্ডিং বললেন, এই ইংল্যান্ড দলে মানিয়ে নেয়া কঠিন হওয়ার কথা নয় আর্চারের জন্য, ‘সত্যি বলতে, আমার মনে হয় না কাজটি ততটা কঠিন হবে।

যে পরিবেশে সে আছে, এমন একটি দলে খেলছে, যারা মাত্রই আগের টেস্ট জিতেছে। ইংল্যান্ড দলে সে বন্ধুদের সঙ্গেই আছে। বেন স্টোকস তার কাছের একজন, যে কিনা খুবই আন্তরিক ও ইতিবাচক মানসিকতার একজন মানুষ।’ ওয়েস্ট ইন্ডিজের হয়ে ৬০ টেস্টে ২৪৯ উইকেট নেয়া হোল্ডিংকে মনে করা হয় সর্বকালের সেরা ফাস্ট বোলারদের একজন। আর্চারকেও তিনি দেখতে চান গ্রেট হয়ে উঠতে, ‘তার উচিত, দলে সম্পৃক্ত থাকা, বাইরের হইচই সব ভুলে যাওয়া এবং নিজের কাজটুকু করা। গ্রেট বোলার হয়ে ওঠার সম্ভাবনা তার আছে। সেদিকেই মনোযোগ দেয়া উচিত তার।’

বর্ণবাদের শিকার হওয়ার ধাক্কা সামলে ওঠা কঠিন, এটি অবশ্য মানছেন হোল্ডিং। আর্চারকে করণীয়ও বাতলে দিলেন তিনি, ‘কাজটি সহজ নয়। জাত নিয়ে যখন কটুকথা বলা হয়, গায়ের রং, ধর্ম, বা শারীরিক যে কোনো কিছু, এমনকি বাড়তি ওজন নিয়েও যখন খোঁচা দেয়া হয়, তখন তা সামলে ওঠা কঠিন। কিন্তু নিজের কাজে মন দিলেই হয়। সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মানিয়ে নেয়া কঠিন। এজন্যই কখনও আমার এসবে কোনো অ্যাকাউন্ট ছিল না।

এসব সামলাতে হলে মানসিকভাবে খুব শক্ত হতে হয়।’ হোল্ডিংয়ের মতে, ইংল্যান্ড দলের সবার উচিত, আর্চারকে স্বাভাবিক হয়ে উঠতে সহায়তা করা, ‘আমি জানি না ইংল্যান্ড দলের ভেতরের পরিবেশ কেমন। তবে এটা জানি, সফল একটি দলে সবাই ঐক্যবদ্ধ থাকে ও পরস্পরের পাশে থাকে। এই মুহূর্তে আর্চারের এটিই প্রয়োজন খেলায় মন দিতে এবং বাকি সব ভুলে থাকতে।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : ইংল্যান্ড-ওয়েস্ট ইন্ডিজ টেস্ট সিরিজ - ২০২০

৩০ জুলাই, ২০২০
২৬ জুলাই, ২০২০