কোচ জিদানের ১০০তম জয়
jugantor
কোচ জিদানের ১০০তম জয়

  স্পোর্টস ডেস্ক  

২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আগের তিনবারের দেখায় জয় ছিল অধরা। লা লিগায় সর্বশেষ হারও তাদের বিপক্ষে। জুজু হয়ে ওঠা রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে আবারও হারের শঙ্কায় পড়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। রেফারির আশীর্বাদে দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ পর্যন্ত নতুন মৌসুমে প্রথম জয় পায় জিনেদিন জিদানের দল। শনিবার লা লিগায় ১০ জনের বেতিসের বিপক্ষে ৩-২ গোলে জিতেছে ১২ জনের রিয়াল! একের পর এক প্রশ্নবিদ্ধ সিদ্ধান্তে রিয়ালের জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন রেফারি রিকার্দো। তবে জয় যেভাবেই আসুক না কেন, ম্যাচটা জিদানের জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। রিয়ালের কোচ হিসেবে লা লিগায় এটি তার শততম জয়। রিয়ালের মাত্র দ্বিতীয় কোচ হিসেবে লিগে জয়ের সেঞ্চুরি হাঁকালেন ফরাসি কিংবদন্তি। এই মাইলফলক ছুঁতে জিদানের লেগেছে ১৪৭ ম্যাচ। ১৪২ গোল হজমের বিপরীতে ৩৪২ গোল করেছে জিদানের রিয়াল। মৌসুমের প্রথম ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করা রিয়াল দ্বিতীয় ম্যাচেও চ্যাম্পিয়নের মতো খেলতে পারেনি। শুরুতে করিম বেনজেমার একটি গোল অফসাইডে বাতিল হওয়ার পর ১৪ মিনিটে রিয়ালকে এগিয়ে দেন ভালভার্দে। গোল হজমের পর উল্টো রিয়ালকে চেপে ধরে স্বাগতিকরা। ৩৫ মিনিটে আইসা মান্দি ম্যাচে সমতা ফেরানোর দুই মিনিট পর উইলিয়াম কারভালহোর গোলে এগিয়ে যায় বেতিস। কিন্তু বিরতির পর বিতর্কিত রেফারিং এবং দুর্ভাগ্য কেড়ে নেয় স্বাগতিকদের হাসি। ৪৮ মিনিটে নিজেদের জালে বল জড়িয়ে বেতিসের সর্বনাশ করেন ব্রাজিলীয় ডিফেন্ডার এমারসন। ৬৭ মিনিটে লুকা ইয়োভিচকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন তিনি। দীর্ঘক্ষণ ভিএআর দেখে পকেপ থেকে লাল কার্ড বের করা রেফারি ৮২ মিনিটে আরেকটি বিতর্কের জন্ম দেন। এবার সামান্য ঘটনায় ভিএআর দেখে রিয়ালের পক্ষে পেনাল্টির বাঁশি বাজান তিনি। পেনাল্টি থেকে জয়সূচক গোলটি করতে ভুল করেননি রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস।

কোচ জিদানের ১০০তম জয়

 স্পোর্টস ডেস্ক 
২৮ সেপ্টেম্বর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

আগের তিনবারের দেখায় জয় ছিল অধরা। লা লিগায় সর্বশেষ হারও তাদের বিপক্ষে। জুজু হয়ে ওঠা রিয়াল বেতিসের বিপক্ষে আবারও হারের শঙ্কায় পড়েছিল রিয়াল মাদ্রিদ। রেফারির আশীর্বাদে দ্বিতীয়ার্ধে ঘুরে দাঁড়িয়ে শেষ পর্যন্ত নতুন মৌসুমে প্রথম জয় পায় জিনেদিন জিদানের দল। শনিবার লা লিগায় ১০ জনের বেতিসের বিপক্ষে ৩-২ গোলে জিতেছে ১২ জনের রিয়াল! একের পর এক প্রশ্নবিদ্ধ সিদ্ধান্তে রিয়ালের জয়ে বড় ভূমিকা রেখেছেন রেফারি রিকার্দো। তবে জয় যেভাবেই আসুক না কেন, ম্যাচটা জিদানের জন্য স্মরণীয় হয়ে থাকবে। রিয়ালের কোচ হিসেবে লা লিগায় এটি তার শততম জয়। রিয়ালের মাত্র দ্বিতীয় কোচ হিসেবে লিগে জয়ের সেঞ্চুরি হাঁকালেন ফরাসি কিংবদন্তি। এই মাইলফলক ছুঁতে জিদানের লেগেছে ১৪৭ ম্যাচ। ১৪২ গোল হজমের বিপরীতে ৩৪২ গোল করেছে জিদানের রিয়াল। মৌসুমের প্রথম ম্যাচে রিয়াল সোসিয়েদাদের সঙ্গে গোলশূন্য ড্র করা রিয়াল দ্বিতীয় ম্যাচেও চ্যাম্পিয়নের মতো খেলতে পারেনি। শুরুতে করিম বেনজেমার একটি গোল অফসাইডে বাতিল হওয়ার পর ১৪ মিনিটে রিয়ালকে এগিয়ে দেন ভালভার্দে। গোল হজমের পর উল্টো রিয়ালকে চেপে ধরে স্বাগতিকরা। ৩৫ মিনিটে আইসা মান্দি ম্যাচে সমতা ফেরানোর দুই মিনিট পর উইলিয়াম কারভালহোর গোলে এগিয়ে যায় বেতিস। কিন্তু বিরতির পর বিতর্কিত রেফারিং এবং দুর্ভাগ্য কেড়ে নেয় স্বাগতিকদের হাসি। ৪৮ মিনিটে নিজেদের জালে বল জড়িয়ে বেতিসের সর্বনাশ করেন ব্রাজিলীয় ডিফেন্ডার এমারসন। ৬৭ মিনিটে লুকা ইয়োভিচকে ফাউল করে লাল কার্ড দেখেন তিনি। দীর্ঘক্ষণ ভিএআর দেখে পকেপ থেকে লাল কার্ড বের করা রেফারি ৮২ মিনিটে আরেকটি বিতর্কের জন্ম দেন। এবার সামান্য ঘটনায় ভিএআর দেখে রিয়ালের পক্ষে পেনাল্টির বাঁশি বাজান তিনি। পেনাল্টি থেকে জয়সূচক গোলটি করতে ভুল করেননি রিয়াল অধিনায়ক সার্জিও রামোস।