দুই পদে একজন ক্রীড়া সংগঠক আর থাকছেন না
jugantor
দুই পদে একজন ক্রীড়া সংগঠক আর থাকছেন না
শিগগিরই প্রজ্ঞাপন জারি

  স্পোর্টস রিপোর্টার  

১৭ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তৃণমূল ও জাতীয় ক্রীড়া সংগঠকদের জন্য নতুন বার্তা দিয়েছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। অনেক ক্রীড়া সংগঠক একই সঙ্গে বিভাগ ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন।

একাধিক জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশনেও দেখা যায় একজনকে। ক্রীড়া সংগঠকদের একাধিক কমিটিতে থাকা নিরুৎসাহিত করতে চান যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। এই সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন শিগগিরই জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাগুলোতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রীড়া পরিষদ।

একজন একাধিক পদে রয়েছেন দু-চারটি ক্রীড়া ফেডারেশনে। যেমন ক্রীড়া সংগঠক তোফাজ্জল হোসেন একই সঙ্গে রয়েছেন অ্যাথলেটিক, উশু এবং সাইক্লিংয়ের সহ-সভাপতি পদে। দুয়ের বেশি ক্রীড়া ফেডারেশন বা অ্যাসোসিয়েশনে রয়েছেন একাধিক ক্রীড়া সংগঠক।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘জেলা ও বিভাগে একই ব্যক্তি গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদে থাকতে পারবেন না। এছাড়া জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশন ও অ্যাসোসিয়েশনে একই ব্যক্তি গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদে (সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক) এবং গুরুত্বহীন দুয়ের বেশি পদেও থাকতে পারবেন না। আমরা তাদেরকে নিরুৎসাহিত করছি।’

এদিকে দুটি জেলার সাধারণ সম্পাদক একই সঙ্গে রয়েছেন বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থারও একই পদে। জামালপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ফুয়াদ রেদুয়ান ময়মনসিংহ বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থারও একই পদে আছেন। রংপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম রংপুর বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থারও একই পদে রয়েছেন।

একই ব্যক্তি দুই জায়গায় থাকলে অন্য ক্রীড়া সংগঠকদের আসার পথ রুদ্ধ হয়ে যায় বলে মনে করে ক্রীড়াঙ্গনের অভিভাবক সংস্থা। ফলে ‘একই ব্যক্তি বিভাগীয় ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনে নিরুৎসাহিতকরণ’ বিষয়ে শিগগিরই প্রজ্ঞাপন (নং-জাক্রীপ/১১৯/জেন/ ৬৪৬/১) জারি করতে যাচ্ছে ক্রীড়া পরিষদ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ক্রীড়া পরিষদের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘গতিশীল ও কার্যকর ক্রীড়া কর্মকাণ্ডের স্বার্থে একই ব্যক্তির একই সঙ্গে বিভাগীয় ও জেলা সংস্থার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনীত/নির্বাচিত হওয়া নিরুৎসাহিত করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তাছাড়া জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশনেও একজন ক্রীড়া সংগঠক দুটির বেশি কমিটিতে থাকতে পারবেন না।’

দুই পদে একজন ক্রীড়া সংগঠক আর থাকছেন না

শিগগিরই প্রজ্ঞাপন জারি
 স্পোর্টস রিপোর্টার 
১৭ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তৃণমূল ও জাতীয় ক্রীড়া সংগঠকদের জন্য নতুন বার্তা দিয়েছে জাতীয় ক্রীড়া পরিষদ। অনেক ক্রীড়া সংগঠক একই সঙ্গে বিভাগ ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক পদে রয়েছেন।

একাধিক জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশনেও দেখা যায় একজনকে। ক্রীড়া সংগঠকদের একাধিক কমিটিতে থাকা নিরুৎসাহিত করতে চান যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী এবং জাতীয় ক্রীড়া পরিষদের চেয়ারম্যান জাহিদ আহসান রাসেল এমপি। এই সংক্রান্ত প্রজ্ঞাপন শিগগিরই জেলা ও বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাগুলোতে পাঠানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে ক্রীড়া পরিষদ।

একজন একাধিক পদে রয়েছেন দু-চারটি ক্রীড়া ফেডারেশনে। যেমন ক্রীড়া সংগঠক তোফাজ্জল হোসেন একই সঙ্গে রয়েছেন অ্যাথলেটিক, উশু এবং সাইক্লিংয়ের সহ-সভাপতি পদে। দুয়ের বেশি ক্রীড়া ফেডারেশন বা অ্যাসোসিয়েশনে রয়েছেন একাধিক ক্রীড়া সংগঠক।

ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘জেলা ও বিভাগে একই ব্যক্তি গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদে থাকতে পারবেন না। এছাড়া জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশন ও অ্যাসোসিয়েশনে একই ব্যক্তি গুরুত্বপূর্ণ দুটি পদে (সভাপতি ও সাধারণ সম্পাদক) এবং গুরুত্বহীন দুয়ের বেশি পদেও থাকতে পারবেন না। আমরা তাদেরকে নিরুৎসাহিত করছি।’

এদিকে দুটি জেলার সাধারণ সম্পাদক একই সঙ্গে রয়েছেন বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থারও একই পদে। জামালপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক আবদুল্লাহ আল ফুয়াদ রেদুয়ান ময়মনসিংহ বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থারও একই পদে আছেন। রংপুর জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক অ্যাডভোকেট আনোয়ারুল ইসলাম রংপুর বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থারও একই পদে রয়েছেন।

একই ব্যক্তি দুই জায়গায় থাকলে অন্য ক্রীড়া সংগঠকদের আসার পথ রুদ্ধ হয়ে যায় বলে মনে করে ক্রীড়াঙ্গনের অভিভাবক সংস্থা। ফলে ‘একই ব্যক্তি বিভাগীয় ও জেলা ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদকের দায়িত্ব পালনে নিরুৎসাহিতকরণ’ বিষয়ে শিগগিরই প্রজ্ঞাপন (নং-জাক্রীপ/১১৯/জেন/ ৬৪৬/১) জারি করতে যাচ্ছে ক্রীড়া পরিষদ।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক ক্রীড়া পরিষদের এক কর্মকর্তা বলেন, ‘গতিশীল ও কার্যকর ক্রীড়া কর্মকাণ্ডের স্বার্থে একই ব্যক্তির একই সঙ্গে বিভাগীয় ও জেলা সংস্থার সাধারণ সম্পাদক হিসেবে মনোনীত/নির্বাচিত হওয়া নিরুৎসাহিত করার জন্য অনুরোধ করা হয়েছে। তাছাড়া জাতীয় ক্রীড়া ফেডারেশনেও একজন ক্রীড়া সংগঠক দুটির বেশি কমিটিতে থাকতে পারবেন না।’