বাকির ব্রোঞ্জ জয়
jugantor
বাকির ব্রোঞ্জ জয়

  স্পোর্টস রিপোর্টার  

১৯ অক্টোবর ২০২০, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শেখ রাসেল আন্তর্জাতিক অনলাইন এয়ার রাইফেল শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে তৃতীয় হয়েছেন আবদুল্লাহ হেল বাকি। নারী বিভাগে পঞ্চম হয়েছেন বাংলাদেশের আরেক প্রতিযোগী সৈয়দা আতকিয়া হাসান দিশা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শহীদ শেখ রাসেলের নামে সাত দেশের শুটারদের নিয়ে এই চ্যাম্পিয়নশিপের আয়োজন করা হয়। ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের জন্মদিনে ব্রোঞ্জ জেতেন বাকি।

রোববার গুলশানের শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশনের রেঞ্জে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে বাকি ৬১৭.৩ স্কোর করে ব্রোঞ্জ পান। জাপানের নাওইয়া ওকাদা ৬৩০.৯ স্কোর করে জেতেন সোনা। ভারতের শাহু তুষার মানে ৬২৩.৮ স্কোর করে নিশ্চিত করেন রুপা।

নারীদের ইভেন্টে সৈয়দা আতকিয়া হাসান ৬১৬.৪ স্কোর করে পঞ্চম হয়েছেন। এই ইভেন্টে সোনা জেতেন ভারতের ইলাভেনিল ভালারিভান। তার স্কোর ৬২৭.৫।

রুপা জিতেছেন জাপানের সিরোয়ি নোরিতা (৬২২.৬)। ব্রোঞ্জ জিতেছেন ইন্দোনেয়িশার বিদ্যা রাফিকা রহমাতান তৈয়বা। তার স্কোর ৬২১.১। ব্রোঞ্জজয়ী বাকি বলেন, ‘আমি পদক নিয়ে চিন্তা করিনি। অনুশীলনই শুরু করেছি মাত্র ১০-১২ দিন হল। তিনটি সিলেকশন হয়েছে প্রতিযোগিতার আগে। সেখানে গড় স্কোর ছিল ৬২৩.৬। এখানে টার্গেট করেছিলাম ৬২৩-৬২৪ স্কোর। তবে সেই স্কোর হয়নি। হলে হয়তো রুপা চলে আসত।’

বাংলাদেশ, ভারত, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান ও ভুটানের একজন করে পুরুষ ও নারী শুটার এই অনলাইন প্রতিযোগিতায় অংশ নেন।

বাকির ব্রোঞ্জ জয়

 স্পোর্টস রিপোর্টার 
১৯ অক্টোবর ২০২০, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শেখ রাসেল আন্তর্জাতিক অনলাইন এয়ার রাইফেল শুটিং চ্যাম্পিয়নশিপে তৃতীয় হয়েছেন আবদুল্লাহ হেল বাকি। নারী বিভাগে পঞ্চম হয়েছেন বাংলাদেশের আরেক প্রতিযোগী সৈয়দা আতকিয়া হাসান দিশা।

জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ছোট ছেলে শহীদ শেখ রাসেলের নামে সাত দেশের শুটারদের নিয়ে এই চ্যাম্পিয়নশিপের আয়োজন করা হয়। ১৮ অক্টোবর শেখ রাসেলের জন্মদিনে ব্রোঞ্জ জেতেন বাকি।

রোববার গুলশানের শুটিং স্পোর্ট ফেডারেশনের রেঞ্জে ১০ মিটার এয়ার রাইফেলে বাকি ৬১৭.৩ স্কোর করে ব্রোঞ্জ পান। জাপানের নাওইয়া ওকাদা ৬৩০.৯ স্কোর করে জেতেন সোনা। ভারতের শাহু তুষার মানে ৬২৩.৮ স্কোর করে নিশ্চিত করেন রুপা।

নারীদের ইভেন্টে সৈয়দা আতকিয়া হাসান ৬১৬.৪ স্কোর করে পঞ্চম হয়েছেন। এই ইভেন্টে সোনা জেতেন ভারতের ইলাভেনিল ভালারিভান। তার স্কোর ৬২৭.৫।

রুপা জিতেছেন জাপানের সিরোয়ি নোরিতা (৬২২.৬)। ব্রোঞ্জ জিতেছেন ইন্দোনেয়িশার বিদ্যা রাফিকা রহমাতান তৈয়বা। তার স্কোর ৬২১.১। ব্রোঞ্জজয়ী বাকি বলেন, ‘আমি পদক নিয়ে চিন্তা করিনি। অনুশীলনই শুরু করেছি মাত্র ১০-১২ দিন হল। তিনটি সিলেকশন হয়েছে প্রতিযোগিতার আগে। সেখানে গড় স্কোর ছিল ৬২৩.৬। এখানে টার্গেট করেছিলাম ৬২৩-৬২৪ স্কোর। তবে সেই স্কোর হয়নি। হলে হয়তো রুপা চলে আসত।’

বাংলাদেশ, ভারত, জাপান, দক্ষিণ কোরিয়া, ইন্দোনেশিয়া, পাকিস্তান ও ভুটানের একজন করে পুরুষ ও নারী শুটার এই অনলাইন প্রতিযোগিতায় অংশ নেন।