প্লিজ, বাবাকে দায়ী করবেন না
jugantor
অল্পস্বল্প
প্লিজ, বাবাকে দায়ী করবেন না

  ক্রীড়া ডেস্ক  

০৮ জানুয়ারি ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাবার শবযাত্রায় ভক্তদের ভিড়ের জন্য আর্জেন্টিনায় করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়াকে দায়ী করবেন না, প্লিজ। এক খোলা চিঠিতে দেশবাসীর কাছে এই আবেগঘন আবেদন করেছেন প্রয়াত আর্জেন্টাইন ফুটবল লিজেন্ডের কন্যা।

২৫ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৬০ বছর বয়সে প্রয়াত হয়েছেন আর্জেন্টিনার ’৮৬ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক ম্যারাডোনা। ম্যারাডোনার মেয়ে জিয়ান্নিনা চিঠিতে লিখেছেন, ‘২৫ নভেম্বর যা ঘটেছে, তাতে আমার বাবার কোনো দোষ নেই। দয়া করে তাকে সম্মান করুন। তিনি স্বর্গে আছেন।

কিছুটা সম্মান করুন আমাদের, আমরা যারা এখনও পৃথিবীতে আছি। বাবা, ভাই, নানা, দাদা-আমরা সবাই স্বজন হারানোর শোক কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি।’ জিয়ান্নিনা ম্যানসিটি তারকা সার্হিও আগুয়েরোর সাবেক স্ত্রী এবং ম্যারাডোনার সাবেক সহধর্মিণী ক্লদিয়া ভিল্লাফানের দুই মেয়ের মধ্যে কনিষ্ঠ।

আর্জেন্টিনায় কোভিড-১৯ সংক্রমণ ব্যাপক হারে বেড়েছে সাম্প্রতিককালে। এজন্য দায়ী করা হচ্ছে ম্যারাডোনার শবযাত্রায় অগুণতি মানুষের যোগ দেওয়াকে। অভিযোগ করা হচ্ছে, বুয়েনস এইরেসের উপকণ্ঠে ম্যারাডোনার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে হাজার হাজার ভক্ত অংশ নেওয়ায় করোনা পরিস্থিতি আরও নাজুক হয়ে উঠেছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে জিয়ান্নিনা খোলা চিঠি লিখেছেন।

অল্পস্বল্প

প্লিজ, বাবাকে দায়ী করবেন না

 ক্রীড়া ডেস্ক 
০৮ জানুয়ারি ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বাবার শবযাত্রায় ভক্তদের ভিড়ের জন্য আর্জেন্টিনায় করোনার সংক্রমণ বেড়ে যাওয়াকে দায়ী করবেন না, প্লিজ। এক খোলা চিঠিতে দেশবাসীর কাছে এই আবেগঘন আবেদন করেছেন প্রয়াত আর্জেন্টাইন ফুটবল লিজেন্ডের কন্যা।

২৫ নভেম্বর হৃদরোগে আক্রান্ত হয়ে ৬০ বছর বয়সে প্রয়াত হয়েছেন আর্জেন্টিনার ’৮৬ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক ম্যারাডোনা। ম্যারাডোনার মেয়ে জিয়ান্নিনা চিঠিতে লিখেছেন, ‘২৫ নভেম্বর যা ঘটেছে, তাতে আমার বাবার কোনো দোষ নেই। দয়া করে তাকে সম্মান করুন। তিনি স্বর্গে আছেন।

কিছুটা সম্মান করুন আমাদের, আমরা যারা এখনও পৃথিবীতে আছি। বাবা, ভাই, নানা, দাদা-আমরা সবাই স্বজন হারানোর শোক কাটিয়ে ওঠার চেষ্টা করছি।’ জিয়ান্নিনা ম্যানসিটি তারকা সার্হিও আগুয়েরোর সাবেক স্ত্রী এবং ম্যারাডোনার সাবেক সহধর্মিণী ক্লদিয়া ভিল্লাফানের দুই মেয়ের মধ্যে কনিষ্ঠ।

আর্জেন্টিনায় কোভিড-১৯ সংক্রমণ ব্যাপক হারে বেড়েছে সাম্প্রতিককালে। এজন্য দায়ী করা হচ্ছে ম্যারাডোনার শবযাত্রায় অগুণতি মানুষের যোগ দেওয়াকে। অভিযোগ করা হচ্ছে, বুয়েনস এইরেসের উপকণ্ঠে ম্যারাডোনার শেষকৃত্য অনুষ্ঠানে হাজার হাজার ভক্ত অংশ নেওয়ায় করোনা পরিস্থিতি আরও নাজুক হয়ে উঠেছে। এরই পরিপ্রেক্ষিতে জিয়ান্নিনা খোলা চিঠি লিখেছেন।

 

ঘটনাপ্রবাহ : ম্যারাডোনা আর নেই