এমবাপ্পে যদি হন কণ্ঠশিল্পী নেইমার যন্ত্রবাদক
jugantor
এমবাপ্পে যদি হন কণ্ঠশিল্পী নেইমার যন্ত্রবাদক
পোর্তো ০ : ২ চেলসি * বায়ার্ন মিউনিখ ২ : ৩ পিএসজি (স্বাগতিক দল আগে)

  ক্রীড়া ডেস্ক  

০৯ এপ্রিল ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রিয়াল মাদ্রিদে যাচ্ছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে! স্প্যানিশ সাংবাদিক হোসেফ পেদ্রেরোলের এই ভবিষ্যদ্বাণী সত্যি হোক, কায়মনোবাক্যে চাইবেন রিয়াল ভক্তরা। গত পরশু রাতে মিউনিখে যে ‘এমবাপ্পে শো’ হয়ে গেল, সেটি দেখার পর রিয়াল অনুরাগীদের আগ্রহ আরও বাড়বে বৈকি! আট মাস আগের ফাইনালের পুনর্মঞ্চায়নে ৩০ মিনিটের মধ্যে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর রক্তের ঘ্রাণ পেয়ে গিয়েছিল প্যারিসের ক্লাব।

পিএসজি কী গতবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে হারের জখমে মলম লাগানোর জন্য এই ম্যাচকেই বেছে নিয়েছিল? বায়ার্নের মাঠে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ৩-২ গোলের জয়, এমবাপ্পে-নেইমারের একসঙ্গে জ্বলে ওঠা তারই ইঙ্গিতবহ। গানের সুর বেঁধে দেন সুরকার। কণ্ঠশিল্পী তাতে প্রাণ দেন। সহায়তা করেন যন্ত্রশিল্পীরা। এই ম্যাচের কণ্ঠশিল্পী যদি হন এমবাপ্পে, তাহলে নেইমার যন্ত্রবাদক। ব্রাজিলীয় ফরোয়ার্ডের দুটি অ্যাসিস্ট সেকথাই স্মরণ করিয়ে দেয়।

বায়ার্ন জোর লড়াই করেছে। কিন্তু ক্যানভাসে সবচেয়ে উজ্জ্বল রংতুলির আঁচড়ে মূর্ত না হয়ে ওঠার মতো রবার্ট লেওয়ানডোস্কির অভাব হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে তারা। এরিক ম্যাক্সিম চুপো-মোটিং ও টমাস মুলারের গোল যথেষ্ট হয়নি বায়ার্নের হার এড়ানোর জন্য। ৬৮ মিনিটে ফরাসি সুপারস্টার এমবাপ্পের ‘শেষ হাসি’ অ্যালিয়াঞ্জে তুষারপাতের মধ্যে মরিসিও পচেত্তিনোর মুখের হাসি আরও চওড়া করে দেয়। জয়ের জন্য যার রণকৌশলকে সব থেকে বেশি কৃতিত্ব দিচ্ছেন ম্যাচসেরা এমবাপ্পে।

পিএসজির অপর গোল মারকুইনহোসের। গোলপ্রহরী কেইলর নাভাসেরও ঢের ভূমিকা রয়েছে। শেষেরদিকে গোল পেতে মরিয়া বায়ার্নের একাধিক প্রচেষ্টা নস্যাৎ হয়েছে নাভাসের ক্ষিপ্রতায়। শেষ বাঁশি বাজার পর বাভারিয়ান জায়ান্টদের উল্লাস করার মতো কিছুই অবশিষ্ট থাকেনি। শুধু চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে রেকর্ড ১৯বার খেলার সান্ত্বনা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। সান্ত্বনার সঙ্গে যন্ত্রণাও। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৯ ম্যাচে অপরাজিত থাকার পর যে হারতে হলো তাদের।

এমবাপ্পে যদি হন কণ্ঠশিল্পী নেইমার যন্ত্রবাদক

পোর্তো ০ : ২ চেলসি * বায়ার্ন মিউনিখ ২ : ৩ পিএসজি (স্বাগতিক দল আগে)
 ক্রীড়া ডেস্ক 
০৯ এপ্রিল ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

রিয়াল মাদ্রিদে যাচ্ছেন কিলিয়ান এমবাপ্পে! স্প্যানিশ সাংবাদিক হোসেফ পেদ্রেরোলের এই ভবিষ্যদ্বাণী সত্যি হোক, কায়মনোবাক্যে চাইবেন রিয়াল ভক্তরা। গত পরশু রাতে মিউনিখে যে ‘এমবাপ্পে শো’ হয়ে গেল, সেটি দেখার পর রিয়াল অনুরাগীদের আগ্রহ আরও বাড়বে বৈকি! আট মাস আগের ফাইনালের পুনর্মঞ্চায়নে ৩০ মিনিটের মধ্যে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা ২-০ গোলে পিছিয়ে পড়ার পর রক্তের ঘ্রাণ পেয়ে গিয়েছিল প্যারিসের ক্লাব।

পিএসজি কী গতবারের চ্যাম্পিয়ন্স লিগ ফাইনালে হারের জখমে মলম লাগানোর জন্য এই ম্যাচকেই বেছে নিয়েছিল? বায়ার্নের মাঠে কোয়ার্টার ফাইনালের প্রথম লেগে ৩-২ গোলের জয়, এমবাপ্পে-নেইমারের একসঙ্গে জ্বলে ওঠা তারই ইঙ্গিতবহ। গানের সুর বেঁধে দেন সুরকার। কণ্ঠশিল্পী তাতে প্রাণ দেন। সহায়তা করেন যন্ত্রশিল্পীরা। এই ম্যাচের কণ্ঠশিল্পী যদি হন এমবাপ্পে, তাহলে নেইমার যন্ত্রবাদক। ব্রাজিলীয় ফরোয়ার্ডের দুটি অ্যাসিস্ট সেকথাই স্মরণ করিয়ে দেয়।

বায়ার্ন জোর লড়াই করেছে। কিন্তু ক্যানভাসে সবচেয়ে উজ্জ্বল রংতুলির আঁচড়ে মূর্ত না হয়ে ওঠার মতো রবার্ট লেওয়ানডোস্কির অভাব হাড়ে হাড়ে টের পেয়েছে তারা। এরিক ম্যাক্সিম চুপো-মোটিং ও টমাস মুলারের গোল যথেষ্ট হয়নি বায়ার্নের হার এড়ানোর জন্য। ৬৮ মিনিটে ফরাসি সুপারস্টার এমবাপ্পের ‘শেষ হাসি’ অ্যালিয়াঞ্জে তুষারপাতের মধ্যে মরিসিও পচেত্তিনোর মুখের হাসি আরও চওড়া করে দেয়। জয়ের জন্য যার রণকৌশলকে সব থেকে বেশি কৃতিত্ব দিচ্ছেন ম্যাচসেরা এমবাপ্পে।

পিএসজির অপর গোল মারকুইনহোসের। গোলপ্রহরী কেইলর নাভাসেরও ঢের ভূমিকা রয়েছে। শেষেরদিকে গোল পেতে মরিয়া বায়ার্নের একাধিক প্রচেষ্টা নস্যাৎ হয়েছে নাভাসের ক্ষিপ্রতায়। শেষ বাঁশি বাজার পর বাভারিয়ান জায়ান্টদের উল্লাস করার মতো কিছুই অবশিষ্ট থাকেনি। শুধু চ্যাম্পিয়ন্স লিগের কোয়ার্টার ফাইনালে রেকর্ড ১৯বার খেলার সান্ত্বনা নিয়ে মাঠ ছাড়তে হয় তাদের। সান্ত্বনার সঙ্গে যন্ত্রণাও। চ্যাম্পিয়ন্স লিগে ১৯ ম্যাচে অপরাজিত থাকার পর যে হারতে হলো তাদের।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন