ওয়ার্নারের শিক্ষা

  যুগান্তর ডেস্ক    ০৬ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বল ট্যাম্পারিং-কাণ্ডে এক বছরের জন্য নিষিদ্ধ হয়েছেন অস্ট্রেলিয়ার সাবেক অধিনায়ক স্টিভেন স্মিথ। শাস্তি পাওয়ার পর বেশ লম্বা একটা সময় তিনি কাটিয়ে এসেছেন যুক্তরাষ্ট্রে। দেশে ফিরে ভক্ত ও পরিবারের সমর্থনের জন্য কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেছেন তিনি। এবার তার মতোই শাস্তি পাওয়া অস্ট্রেলিয়ার সাবেক সহ-অধিনায়ক ডেভিড ওয়ার্নার মুখ খুললেন। তার কণ্ঠেও ঝরে পড়েছে সমাজের মানুষের প্রতি শ্রদ্ধা, কারণ তারা তাকে সমর্থন দিয়ে গেছেন এবং যাচ্ছেন। ওয়ার্নার জানালেন, বল টেম্পারিং-কলঙ্ক থেকে মূল্যবান শিক্ষাই তিনি পেয়েছেন।

শাস্তি পাওয়ার পর দেশে ফিরে সংবাদ সম্মেলনে কান্নায় ভেঙে পড়েছিলেন ৩১ বছর বয়সী এই ব্যাটসম্যান। তারপর এই প্রথমবারের মতো গণমাধ্যমের সামনে মুখ খুললেন ওয়ার্নার। তার কাছে দুঃসময়ে সাধারণ মানুষের কাছ থেকে সমর্থন পাওয়াটা খুবই সম্মানজনক একটা বিষয়, ‘এটা মন আর্দ্র করে দেয়, অভিভূত করে দেয়। কখনও কখনও আমাদের সমাজে খুব খারাপ কিছু হতে হয় মানুষের এগিয়ে আসতে ও সমর্থন পেতে। মনে হয় আমি এর মাঝে খুব মূল্যবান একটি শিক্ষা পেয়েছি। আমি সমর্থন পেয়েছি যেন সামনে এগিয়ে থেকে অন্যদের সাহায্য করতে পারি।’ নিষেধাজ্ঞার সময়টা পরিবারের সঙ্গে কাটছে ওয়ার্নারের। মেয়েদের সময় দিচ্ছেন, যা ভালোই উপভোগ করছেন বলে জানিয়েছেন তিনি, ‘আমার মনে হয় রুটিনে থাকলে আমরা একটা চক্রের মাঝে পড়ে যাই- ক্রিকেট, হোটেল, ব্যাগ গোছানো। বাড়ি আসা হয় খুব অল্প সময়ের জন্য। কিন্তু অতিরিক্ত সময়ের ক্ষেত্রে আপনি একটি ভালো রুটিনের মধ্যে থাকেন এবং এটা স্বার্থহীন- এ সময় বাচ্চারা অগ্রাধিকার পায়- তাই সারা দিনই বাচ্চাদের দেখাশোনা করা, সাঁতার শেখানোর মতো কাজগুলো উপভোগ করা যায়।’ ওয়েবসাইট।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter