প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদান পেলেন ক্রীড়াঙ্গনের সাত ব্যক্তি
jugantor
প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদান পেলেন ক্রীড়াঙ্গনের সাত ব্যক্তি
বাদল রায়ের নামে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের প্রেসবক্স

  ক্রীড়া প্রতিবেদক  

১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রেসবক্সের সংস্কার কাজ চলছে। নাম হবে বাদল রায় প্রেসবক্স। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাবেক তারকা ক্রীড়াবিদ ও সংগঠক প্রয়াত বাদল রায়সহ অসুস্থ কয়েকজন ক্রীড়াবিদ এবং ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের আর্থিক অনুদান দিয়েছেন।

বুধবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে সাতজনের হাতে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার এক কোটি ১০ লাখ টাকার চেক, সঞ্চয়পত্র ও একটি ফ্ল্যাটের বরাদ্দপত্র তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

তিনি বলেন, ‘বাদল দা আমাদের ক্রীড়াঙ্গনের বিশিষ্ট ব্যক্তি ছিলেন। তিনি ফুটবল ছাড়াও আমাদের ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদসহ অনেক জায়গায় আন্তরিকতার সঙ্গে সময় এবং মেধা দিয়েছেন। উনার মতো ব্যক্তিত্বের স্মরণে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে একটি স্থাপনার নাম করার ঘোষণা করছি।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘স্টেডিয়ামের অন্যতম সৌন্দর্য প্রেসবক্স। বাদল দা’র সঙ্গে সাংবাদিকদের সখ্য ছিল। সব কিছু বিবেচনা করে আমরা তার নামে প্রেসবক্সের নাম করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ ক্রীড়া সংগঠক ফজলুর রহমান বাবুল মিডিয়া গেটের নামও বাদল রায়ের নামে করার অনুরোধ জানান ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীকে।

এদিকে সাত ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের হাতে আর্থিক অনুদান তুলে দেওয়া হয়। প্রয়াত বাদল রায়ের পরিবারকে ২৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র ও ফ্ল্যাটের বরাদ্দপত্র দেওয়া হয়। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর কাছ থেকে তা বুঝে নেন বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায়। এছাড়া স্বাধীনবাংলা দলের ফুটবলার সুভাষ সাহাকে পাঁচ লাখ টাকা ও ২৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র এবং আমিনুল ইসলাম সবুজকে ২৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র দেওয়া হয়। তন্দ্রিমা সিকদার ও আকরাম হোসেন সরকারকে ১০ লাখ টাকা, সাব্বির হোসেন ও সাইফুল ইসলাম ভোলাকে পাঁচ লাখ করে, ক্রীড়া সংগঠক সাব্বির হোসেনকে পাঁচ লাখ টাকা, আবাহনীর সমর্থক গোষ্ঠীর গাজীপুরের কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ভোলাকে পাঁচ লাখ টাকা দেওয়া হয়।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমেই ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে। ক্রীড়াঙ্গনের সব বিষয়ে তিনি পাশে থাকেন। উনার পরামর্শেই আমরা চলছি।’ বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায় বলেন, ‘বাদলকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে চিকিৎসা করিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। আবার আমাদের পাশে দাঁড়ালেন। আমাদের পরিবার উনার কাছে কৃতজ্ঞ।’

প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক অনুদান পেলেন ক্রীড়াঙ্গনের সাত ব্যক্তি

বাদল রায়ের নামে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামের প্রেসবক্স
 ক্রীড়া প্রতিবেদক 
১৬ সেপ্টেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে প্রেসবক্সের সংস্কার কাজ চলছে। নাম হবে বাদল রায় প্রেসবক্স। প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা সাবেক তারকা ক্রীড়াবিদ ও সংগঠক প্রয়াত বাদল রায়সহ অসুস্থ কয়েকজন ক্রীড়াবিদ এবং ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের আর্থিক অনুদান দিয়েছেন।

বুধবার জাতীয় ক্রীড়া পরিষদে সাতজনের হাতে প্রধানমন্ত্রীর আর্থিক সহায়তার এক কোটি ১০ লাখ টাকার চেক, সঞ্চয়পত্র ও একটি ফ্ল্যাটের বরাদ্দপত্র তুলে দেন যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী জাহিদ আহসান রাসেল এমপি।

তিনি বলেন, ‘বাদল দা আমাদের ক্রীড়াঙ্গনের বিশিষ্ট ব্যক্তি ছিলেন। তিনি ফুটবল ছাড়াও আমাদের ক্রীড়া মন্ত্রণালয়, জাতীয় ক্রীড়া পরিষদসহ অনেক জায়গায় আন্তরিকতার সঙ্গে সময় এবং মেধা দিয়েছেন। উনার মতো ব্যক্তিত্বের স্মরণে বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে একটি স্থাপনার নাম করার ঘোষণা করছি।’

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘স্টেডিয়ামের অন্যতম সৌন্দর্য প্রেসবক্স। বাদল দা’র সঙ্গে সাংবাদিকদের সখ্য ছিল। সব কিছু বিবেচনা করে আমরা তার নামে প্রেসবক্সের নাম করার সিদ্ধান্ত নিয়েছি।’ ক্রীড়া সংগঠক ফজলুর রহমান বাবুল মিডিয়া গেটের নামও বাদল রায়ের নামে করার অনুরোধ জানান ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীকে।

এদিকে সাত ক্রীড়াবিদ ও ক্রীড়া সংশ্লিষ্টদের হাতে আর্থিক অনুদান তুলে দেওয়া হয়। প্রয়াত বাদল রায়ের পরিবারকে ২৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র ও ফ্ল্যাটের বরাদ্দপত্র দেওয়া হয়। ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রীর কাছ থেকে তা বুঝে নেন বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায়। এছাড়া স্বাধীনবাংলা দলের ফুটবলার সুভাষ সাহাকে পাঁচ লাখ টাকা ও ২৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র এবং আমিনুল ইসলাম সবুজকে ২৫ লাখ টাকার পরিবার সঞ্চয়পত্র দেওয়া হয়। তন্দ্রিমা সিকদার ও আকরাম হোসেন সরকারকে ১০ লাখ টাকা, সাব্বির হোসেন ও সাইফুল ইসলাম ভোলাকে পাঁচ লাখ করে, ক্রীড়া সংগঠক সাব্বির হোসেনকে পাঁচ লাখ টাকা, আবাহনীর সমর্থক গোষ্ঠীর গাজীপুরের কর্মকর্তা সাইফুল ইসলাম ভোলাকে পাঁচ লাখ টাকা দেওয়া হয়।

যুব ও ক্রীড়া প্রতিমন্ত্রী বলেন, ‘প্রথমেই ধন্যবাদ এবং কৃতজ্ঞতা জানাই মাননীয় প্রধানমন্ত্রীকে। ক্রীড়াঙ্গনের সব বিষয়ে তিনি পাশে থাকেন। উনার পরামর্শেই আমরা চলছি।’ বাদল রায়ের স্ত্রী মাধুরী রায় বলেন, ‘বাদলকে সিঙ্গাপুরে নিয়ে চিকিৎসা করিয়েছিলেন প্রধানমন্ত্রী। আবার আমাদের পাশে দাঁড়ালেন। আমাদের পরিবার উনার কাছে কৃতজ্ঞ।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন