ভারতকে হারাবে পাকিস্তান?
jugantor
ভারতকে হারাবে পাকিস্তান?

  ক্রীড়া ডেস্ক  

১৫ অক্টোবর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ওয়ানডে হোক বা টি ২০, কোনো সংস্করণের বিশ্বকাপেই ভারতকে কখনও হারাতে পারেনি পাকিস্তান। বিশ্বকাপ মঞ্চে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর আগের ১২ ম্যাচের প্রতিটিই জিতেছে ভারত। এবারের টি ২০ বিশ্বকাপে সেই অচলায়তন ভাঙার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। ২৪ অক্টোবর দুবাইয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি হবে ভারত ও পাকিস্তান। ভেন্যুর কারণেই নিজের প্রথম টি ২০ বিশ্বকাপে ফেভারিট ভারতকে হারানোর কথা জোর গলায় বলতে পারছেন বাবর। মাঝে কয়েক বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতেই নিজেদের সব হোম সিরিজ খেলেছে পাকিস্তান। পিএসএলও হতো আরব আমিরাতে। আরব আমিরাতের তিন ভেন্যুর মধ্যে পাকিস্তানের রেকর্ড সবচেয়ে ভালো দুবাইয়ে। দুবাইয়ে খেলা আগের ছয়টি আন্তর্জাতিক টি ২০’র সবকটিই জিতেছে তারা। বিশ্বকাপেও সেই ধারা অব্যাহত রাখতে চান বাবর, ‘আমরা কয়েক বছর ধরেই আরব আমিরাতে খেলছি। এখানকার কন্ডিশন খুব ভালো জানা আছে

আমাদের। আমরা জানি, উইকেট কেমন এবং কীভাবে মানিয়ে নিতে হয়। নির্দিষ্ট দিনে যারা ভালো ক্রিকেট খেলে তারাই জেতে। তবে আমার কাছে জানতে চাইলে বলব এবার আমরাই জিতব (ভারতের বিপক্ষে)।

প্রতিটি ম্যাচই প্রবল চাপের, বিশেষ করে প্রথমটি। আশা করি, প্রথম ম্যাচ জিতে সেই মোমেন্টাম ধরে রেখে এগিয়ে যেতে পারব। দল হিসাবে আমাদের আত্মবিশ্বাস এবার তুঙ্গে। অতীত ভুলে আমরা সামনে তাকাচ্ছি এবং ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুত হচ্ছি।’

বাবর শুধু ভারতকে হারানোর কথা বলেছেন। তার এক পূর্বসূরি আরও বড় স্বপ্ন দেখছেন। পাকিস্তানের প্রথম টি ২০ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক শহিদ আফ্রিদির মন বলছে এবার বাবরের হাতেই শিরোপা উঠবে। ২০০৭ সালে প্রথম টি ২০ বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের কাছে পাকিস্তান হারলেও টুর্নামেন্টসেরা হয়েছিলেন আফ্রিদি। ২০০৯ আসরে দলকে শিরোপা জেতানোর পথে আফ্রিদি ছিলেন আরও উজ্জ্বল। সেমিফাইনাল ও ফাইনালে তার ঝড়ো ফিফটিই গড়ে দিয়েছিল ব্যবধান। ২০০৯ আসরের সঙ্গে এবারের প্রেক্ষাপটে অদ্ভুত এক সাদৃশ্যের কারণেই আশার আলো দেখছেন সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক। সেবার বিশ্বকাপের ঠিক আগে লাহোরে শ্রীলংকা দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার জের ধরে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এবারও বিশ্বকাপের আগে নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা বলে পাকিস্তান সফর বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। হুট করে পদত্যাগ করেছেন দুই কোচ মিসবাহ-উল-হক ও ওয়াকার ইউনুস।

ভারতকে হারাবে পাকিস্তান?

 ক্রীড়া ডেস্ক 
১৫ অক্টোবর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ওয়ানডে হোক বা টি ২০, কোনো সংস্করণের বিশ্বকাপেই ভারতকে কখনও হারাতে পারেনি পাকিস্তান। বিশ্বকাপ মঞ্চে দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীর আগের ১২ ম্যাচের প্রতিটিই জিতেছে ভারত। এবারের টি ২০ বিশ্বকাপে সেই অচলায়তন ভাঙার ব্যাপারে আত্মবিশ্বাসী পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। ২৪ অক্টোবর দুবাইয়ে নিজেদের প্রথম ম্যাচেই মুখোমুখি হবে ভারত ও পাকিস্তান। ভেন্যুর কারণেই নিজের প্রথম টি ২০ বিশ্বকাপে ফেভারিট ভারতকে হারানোর কথা জোর গলায় বলতে পারছেন বাবর। মাঝে কয়েক বছর সংযুক্ত আরব আমিরাতেই নিজেদের সব হোম সিরিজ খেলেছে পাকিস্তান। পিএসএলও হতো আরব আমিরাতে। আরব আমিরাতের তিন ভেন্যুর মধ্যে পাকিস্তানের রেকর্ড সবচেয়ে ভালো দুবাইয়ে। দুবাইয়ে খেলা আগের ছয়টি আন্তর্জাতিক টি ২০’র সবকটিই জিতেছে তারা। বিশ্বকাপেও সেই ধারা অব্যাহত রাখতে চান বাবর, ‘আমরা কয়েক বছর ধরেই আরব আমিরাতে খেলছি। এখানকার কন্ডিশন খুব ভালো জানা আছে

আমাদের। আমরা জানি, উইকেট কেমন এবং কীভাবে মানিয়ে নিতে হয়। নির্দিষ্ট দিনে যারা ভালো ক্রিকেট খেলে তারাই জেতে। তবে আমার কাছে জানতে চাইলে বলব এবার আমরাই জিতব (ভারতের বিপক্ষে)।

প্রতিটি ম্যাচই প্রবল চাপের, বিশেষ করে প্রথমটি। আশা করি, প্রথম ম্যাচ জিতে সেই মোমেন্টাম ধরে রেখে এগিয়ে যেতে পারব। দল হিসাবে আমাদের আত্মবিশ্বাস এবার তুঙ্গে। অতীত ভুলে আমরা সামনে তাকাচ্ছি এবং ভবিষ্যতের জন্য প্রস্তুত হচ্ছি।’

বাবর শুধু ভারতকে হারানোর কথা বলেছেন। তার এক পূর্বসূরি আরও বড় স্বপ্ন দেখছেন। পাকিস্তানের প্রথম টি ২০ বিশ্বকাপ জয়ের নায়ক শহিদ আফ্রিদির মন বলছে এবার বাবরের হাতেই শিরোপা উঠবে। ২০০৭ সালে প্রথম টি ২০ বিশ্বকাপ ফাইনালে ভারতের কাছে পাকিস্তান হারলেও টুর্নামেন্টসেরা হয়েছিলেন আফ্রিদি। ২০০৯ আসরে দলকে শিরোপা জেতানোর পথে আফ্রিদি ছিলেন আরও উজ্জ্বল। সেমিফাইনাল ও ফাইনালে তার ঝড়ো ফিফটিই গড়ে দিয়েছিল ব্যবধান। ২০০৯ আসরের সঙ্গে এবারের প্রেক্ষাপটে অদ্ভুত এক সাদৃশ্যের কারণেই আশার আলো দেখছেন সাবেক পাকিস্তান অধিনায়ক। সেবার বিশ্বকাপের ঠিক আগে লাহোরে শ্রীলংকা দলের ওপর সন্ত্রাসী হামলার জের ধরে পাকিস্তানের মাটিতে আন্তর্জাতিক ক্রিকেট বন্ধ হয়ে গিয়েছিল। এবারও বিশ্বকাপের আগে নিরাপত্তা ঝুঁকির কথা বলে পাকিস্তান সফর বাতিল করেছে নিউজিল্যান্ড ও ইংল্যান্ড। হুট করে পদত্যাগ করেছেন দুই কোচ মিসবাহ-উল-হক ও ওয়াকার ইউনুস।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন