চট্টগ্রাম টেস্ট জিততে চান মুমিনুল
jugantor
চট্টগ্রাম টেস্ট জিততে চান মুমিনুল

  মজুমদার নাজিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম ব্যুরো  

২৬ নভেম্বর ২০২১, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তামিম, সাকিব, মাহমুদউল্লাহ, তাসকিনের মতো নির্ভরযোগ্য চার খেলোয়াড় দলে নেই। সিনিয়রদের অনুপস্থিতিতে তারুণ্যনির্ভর একটি দল নিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ শুক্রবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট খেলতে নামছে বাংলাদেশ।

এই সিরিজকে চ্যালেঞ্জ হিসাবেই মানছেন টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক। টি ২০ বিশ্বকাপে ভরাডুবি ও এরপর ঘরের মাঠে পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজ হারের হতাশা কাটিয়ে চট্টগ্রাম টেস্ট জিতে আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে চান মুমিনুলরা। পাকিস্তানের বিপক্ষে জিততে হলে ভালো বোলিং এবং সেই সঙ্গে ভালো ব্যাটিং করতে হবে বলে জানালেন টাইগার অধিনায়ক। চট্টগ্রামের মাঠ ব্যাটিং সহায়ক হতে পারে।

তাই ব্যাটিং দিয়েই মূলত পাকিস্তানিদের ঘায়েল করতে চান তিনি। বোলারদের ওপরও রয়েছে আত্মবিশ্বাস। বৃহস্পতিবার ম্যাচ-পূর্ব ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক।

সিনিয়র প্লেয়ারদের অনুপস্থিতি প্রসঙ্গ এলো ঘুরেফিরে। মুমিনুলের জবাব, ‘টেস্ট ম্যাচে সবসময় সিনিয়র প্লেয়ারদের প্রয়োজন হয়। সেদিক থেকে আমার মনে হয় চ্যালেঞ্জ তো অবশ্যই থাকবে। তার মধ্যে আবার খেলা যখন পাকিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে। আমার কাছে মনে হয় যে নতুন যারা, তাদের জন্য বিরাট একটা সুযোগ, যেটা আমি আগেও বলেছিলাম। সাকিব ভাই, তামিম ভাই, তাসকিন তারা রেগুলার ব্যাটার, বোলার। তারা না থাকলে জুনিয়র ক্যাপ্টেন হিসাবে আমার জন্যও একটু কঠিন হয়ে যায়। ওই জায়গায় পড়ে থাকলে হবে না। জিনিসটা হলো চলমান প্রক্রিয়া। কাউকে পাব, কাউকে পাব না-এভাবে চলতে থাকবে। এটা নিয়ে হতাশ হলে বা পড়ে থাকলে চলবে না। যারা টিমে আছে তাদের নিয়ে এগোতে হবে।’

চট্টগ্রামে আপনার পারফরম্যান্স ভালো। সাতটি সেঞ্চুরি আছে। এবারও কি সেই ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে?

আগের সেঞ্চুরি আছে। এগুলো মাথায় রাখতে চাই না। সবসময় যেটা টার্গেট করি লম্বা সময় ব্যাটিং করা। ৪-৫ সেশন ব্যাটিং করতে চাই।

পাকিস্তানি গণমাধ্যমকর্মীরা তাদের অধিনায়ককে প্রশ্ন করতে গিয়ে বলেছেন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আগে তারা একটি সহজ সিরিজ খেলতে যাচ্ছে। আপনারা চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য কতটুকু প্রস্তুত। আসলেই কি সিরিজ সহজ হবে বলে মনে করেন? এমন প্রশ্নে মুমিনুল বললেন, ‘দেখুন ক্রিকেট অনিশ্চয়তার খেলা। বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেট। প্রতি সেকেন্ড, ঘণ্টায় ঘণ্টায় মোমেন্টাম চেঞ্জ হয়। চার দিনের ১৬টা সেশনের ১২টা যদি জিতেনও, পঞ্চম দিনে যদি ভালো না করেন, তাহলে আপনার পক্ষে আসবে না খেলা। ৫ দিনের সবক’টা সেশন যে ভালো খেলবে সে-ই ম্যাচ জিতবে। আমি আমার টিম নিয়ে কনফিডেন্ট। ওরা কি বলল না বলল, তা নিয়ে অত চিন্তাভাবনা করছি না। আমি আমার প্ল্যানে ঠিক থাকার চেষ্টা করছি।’

চট্টগ্রাম টেস্ট জিততে চান মুমিনুল

 মজুমদার নাজিম উদ্দিন, চট্টগ্রাম ব্যুরো 
২৬ নভেম্বর ২০২১, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

তামিম, সাকিব, মাহমুদউল্লাহ, তাসকিনের মতো নির্ভরযোগ্য চার খেলোয়াড় দলে নেই। সিনিয়রদের অনুপস্থিতিতে তারুণ্যনির্ভর একটি দল নিয়ে পাকিস্তানের বিপক্ষে আজ শুক্রবার চট্টগ্রাম জহুর আহমেদ চৌধুরী স্টেডিয়ামে প্রথম টেস্ট খেলতে নামছে বাংলাদেশ।

এই সিরিজকে চ্যালেঞ্জ হিসাবেই মানছেন টাইগার অধিনায়ক মুমিনুল হক। টি ২০ বিশ্বকাপে ভরাডুবি ও এরপর ঘরের মাঠে পাকিস্তানের সঙ্গে সিরিজ হারের হতাশা কাটিয়ে চট্টগ্রাম টেস্ট জিতে আত্মবিশ্বাস ফিরিয়ে আনতে চান মুমিনুলরা। পাকিস্তানের বিপক্ষে জিততে হলে ভালো বোলিং এবং সেই সঙ্গে ভালো ব্যাটিং করতে হবে বলে জানালেন টাইগার অধিনায়ক। চট্টগ্রামের মাঠ ব্যাটিং সহায়ক হতে পারে।

তাই ব্যাটিং দিয়েই মূলত পাকিস্তানিদের ঘায়েল করতে চান তিনি। বোলারদের ওপরও রয়েছে আত্মবিশ্বাস। বৃহস্পতিবার ম্যাচ-পূর্ব ভার্চুয়াল প্রেস ব্রিফিংয়ে এমনটাই জানালেন বাংলাদেশ টেস্ট দলের অধিনায়ক মুমিনুল হক।

সিনিয়র প্লেয়ারদের অনুপস্থিতি প্রসঙ্গ এলো ঘুরেফিরে। মুমিনুলের জবাব, ‘টেস্ট ম্যাচে সবসময় সিনিয়র প্লেয়ারদের প্রয়োজন হয়। সেদিক থেকে আমার মনে হয় চ্যালেঞ্জ তো অবশ্যই থাকবে। তার মধ্যে আবার খেলা যখন পাকিস্তানের মতো দলের বিপক্ষে। আমার কাছে মনে হয় যে নতুন যারা, তাদের জন্য বিরাট একটা সুযোগ, যেটা আমি আগেও বলেছিলাম। সাকিব ভাই, তামিম ভাই, তাসকিন তারা রেগুলার ব্যাটার, বোলার। তারা না থাকলে জুনিয়র ক্যাপ্টেন হিসাবে আমার জন্যও একটু কঠিন হয়ে যায়। ওই জায়গায় পড়ে থাকলে হবে না। জিনিসটা হলো চলমান প্রক্রিয়া। কাউকে পাব, কাউকে পাব না-এভাবে চলতে থাকবে। এটা নিয়ে হতাশ হলে বা পড়ে থাকলে চলবে না। যারা টিমে আছে তাদের নিয়ে এগোতে হবে।’

চট্টগ্রামে আপনার পারফরম্যান্স ভালো। সাতটি সেঞ্চুরি আছে। এবারও কি সেই ধারাবাহিকতা বজায় থাকবে?

আগের সেঞ্চুরি আছে। এগুলো মাথায় রাখতে চাই না। সবসময় যেটা টার্গেট করি লম্বা সময় ব্যাটিং করা। ৪-৫ সেশন ব্যাটিং করতে চাই।

পাকিস্তানি গণমাধ্যমকর্মীরা তাদের অধিনায়ককে প্রশ্ন করতে গিয়ে বলেছেন টেস্ট চ্যাম্পিয়নশিপের আগে তারা একটি সহজ সিরিজ খেলতে যাচ্ছে। আপনারা চ্যালেঞ্জ জানানোর জন্য কতটুকু প্রস্তুত। আসলেই কি সিরিজ সহজ হবে বলে মনে করেন? এমন প্রশ্নে মুমিনুল বললেন, ‘দেখুন ক্রিকেট অনিশ্চয়তার খেলা। বিশেষ করে টেস্ট ক্রিকেট। প্রতি সেকেন্ড, ঘণ্টায় ঘণ্টায় মোমেন্টাম চেঞ্জ হয়। চার দিনের ১৬টা সেশনের ১২টা যদি জিতেনও, পঞ্চম দিনে যদি ভালো না করেন, তাহলে আপনার পক্ষে আসবে না খেলা। ৫ দিনের সবক’টা সেশন যে ভালো খেলবে সে-ই ম্যাচ জিতবে। আমি আমার টিম নিয়ে কনফিডেন্ট। ওরা কি বলল না বলল, তা নিয়ে অত চিন্তাভাবনা করছি না। আমি আমার প্ল্যানে ঠিক থাকার চেষ্টা করছি।’

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন

ঘটনাপ্রবাহ : বাংলাদেশ-পাকিস্তান সিরিজ ঢাকা ২০২১