‘ক্রিকেট মাঠেই খেলতে হয়’

  স্পোর্টস রিপোর্টার ২১ মে ২০১৮, ০৫:৩৭ | প্রিন্ট সংস্করণ

‘ক্রিকেট মাঠেই খেলতে হয়’
মোসাদ্দেক হোসেন। ছবি: সংগৃহীত

দুঃসময় পেছনে ফেলে বাংলাদেশ টি ২০ দলে ফিরেছেন মোসাদ্দেক হোসেন। প্রায় এক বছর আন্তর্জাতিক ক্রিকেট থেকে বিরতি মোসাদ্দেকের কাছে এক যুগের সমান। এবার সুযোগ কাজে লাগিয়ে জাতীয় দলে নিজের সর্বোচ্চ দিতে প্রস্তুত ২২ বছর বয়সী অফ-স্পিনিং অলরাউন্ডার।

প্রশ্ন : টি ২০ দলে ফিরলেন। কেমন লাগছে?

মোসাদ্দেক : বিরতিটা আমার কাছে অনেক বড়। প্রায় এক বছর পর আমি আবার রঙিন পোশাকে বাংলাদেশ দলের হয়ে খেলব। এটা অনেক ভালো লাগারই বিষয়। নতুন সুযোগ আমার জন্য।

প্রশ্ন : নির্বাচকরা আস্থা রেখেছেন আপনার ওপর। আফগান সিরিজের জন্য প্রস্তুতিটা কেমন হচ্ছে?

মোসাদ্দেক : নিজের ওপর বিশ্বাস আমার আছে। একজন খেলোয়াড়ের ভালো সময়, খারাপ সময় যাবে এটাই স্বাভাবিক। আমার খারাপ

সময় গেছে। এখন চেষ্টা করব সর্বোচ্চটা দেয়ার।

প্রশ্ন : বিরতির পর আত্মউপলব্ধি?

মোসাদ্দেক : যদি চিন্তা করি এখন অনেক কিছুই করে ফেলব, তাহলে ফলাফল হয়তো কিছুই হবে না। আমি আমার জায়গাতে থাকব, আমার যতটুকু সামর্থ্য আছে তা দিয়ে আশা করি এখান থেকে ভালো কিছু করতে পারব।

প্রশ্ন : পেস বোলিংয়ের বিরুদ্ধে স্বচ্ছন্দ নন, এমন কথা বলা হয় আপনার সম্পর্কে?

মোসাদ্দেক : আন্তর্জাতিক ক্যারিয়ারে ২৫-২৬টা ম্যাচ খেলেছি। এর মধ্যে তিন থেকে চারটা দেশের মাটিতে। বাকি সব ম্যাচ দেশের বাইরে। আমার সফলতা সব দেশের বাইরে। দেশের বাইরে পেস কন্ডিশনে খেলতে হয়। এখন আপনারাই ভালো বলতে পারবেন কী পরিস্থিতি বা কন্ডিশন ছিল। আমি পেস বলে না স্পিন বলে ভালো, সেটা সময়ই বলে দেবে।

প্রশ্ন : দলে থাকার ব্যাপারে কতটা আশা করেছিলেন?

মোসাদ্দেক : আমার আত্মবিশ্বাস আছে, যদি পারফর্ম করি, তাহলে বাদ পড়ার কথা নয়। বিরতি এখন আমার জন্য অতীত। এ নিয়ে চিন্তা করছি না। সামনে যা আছে তা নিয়েই ভাবছি।

প্রশ্ন : ঢাকা লিগের পারফরম্যান্স কাজে লাগল কিনা?

মোসাদ্দেক : প্রিমিয়ার লিগের শেষ ১০ ম্যাচের মধ্যে হয়তো আটটিতেই আমি অপরাজিত ছিলাম। এটা আমার জন্য অনেক বড় পাওয়া।

প্রশ্ন : আফগানিস্তানের বিপক্ষে সিরিজে বোলার হিসেবে ভূমিকা নিয়ে কতটা প্রস্তুত?

মোসাদ্দেক : বল হাতে নিলেই আমি চিন্তা করি এখন বোলার হিসেবে খেলছি। চিন্তা করি কীভাবে ডট বল করা যায়। ব্যাটসম্যানকে ‘পড়ে’ বল করার চেষ্টা করি।

প্রশ্ন : আইপিএলের ব্যাটিং দেখে কিছু মাথায় আসে?

মোসাদ্দেক : আইপিএল দেখে আমরা যাদের সঙ্গে খেলতে যাব তাদের বিচার করা যাবে না। আইপিএলে তাদের (আফগান) ব্যাটসম্যানরা কেউ খেলছে না, সব বোলার। আমরা যদি চিন্তা করি ওরা এবি ডি ভিলিয়ার্স বা বিরাট কোহলির মতো মারবে তাহলে ভুল চিন্তা হবে। আমরা ওদের দুর্বলতা জানি।

প্রশ্ন : আফগানিস্তানের স্পিন সামলানোর পরিকল্পনা কী?

মোসাদ্দেক : ওদের দু’জন স্পিনার আছে, খুব ভালো। তারা আন্তর্জাতিক ক্রিকেটেও সফল বোলার। তবে এটা ভেবে অতিরিক্ত রক্ষণে যাওয়া ভুল হবে। তারা আইপিএলে খুব ভালো বল করছে। তবে আমাদের বিপক্ষে তারা ভালো জায়গায় বল না-ও করতে পারে। ওদের নিয়ে চিন্তা না করে নিজেদের ওপর ফোকাস করা উচিত, নিজেদের সামর্থ্যে বিশ্বাস রাখা উচিত।

প্রশ্ন : টি ২০ র‌্যাংকিংয়ে বাংলাদেশের চেয়ে আফগানিস্তান এগিয়ে, তাহলে ওরা কি আমাদের চেয়ে বড় দল?

মোসাদ্দেক : টি ২০তে বলা যায় না কে বড়। নিজেদের দিনে এই ফরম্যাটে যে কেউ যে কাউকে হারাতে পারে। ভালো ক্রিকেট খেলাটা গুরুত্বপূর্ণ।

প্রশ্ন : কথায় আত্মবিশ্বাস আছে, মাঠেও থাকবে?

মোসাদ্দেক : কথা দিয়ে যদি ক্রিকেট খেলা যেত তাহলে তো ভালোই হতো! কথা দিয়ে ক্রিকেট হয় না। ক্রিকেটটা মাঠেই খেলতে হয়।

 

 

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
.