আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থার অগ্রগতি নেই

  জ্যোতির্ময় মণ্ডল ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

বাংলাদেশ ক্রিকেট বোর্ড (বিসিবি) আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থার কার্যক্রম চূড়ান্ত করার জন্য সময় নিয়েছিল ১৫ দিন। সেই সময় শেষ হয়েছে ৪ মে। কাজের কোনো অগ্রগতি হয়নি। চার বছর আগে আঞ্চলিক কমিটি গঠনের জন্য প্রস্তাব পাস হয়। বিসিবির বর্তমান কমিটির তৃতীয় সভা শেষে গত ১৮ এপ্রিল সভাপতি নাজমুল হাসান বলেন, ‘১৫ দিনের মধ্যে বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থাকে চূড়ান্ত প্রস্তাব দিতে বলা হয়েছে। আশা করি, এই প্রক্রিয়া এক মাসের মধ্যে সম্পন্ন হবে।’ গত শুক্রবার শেষ হয়েছে এক মাসের নির্ধারিত সময়। বোর্ডের এক শীর্ষ কর্মকর্তা জানিয়েছেন, কোনো আঞ্চলিক সংস্থার কাছ থেকে তারা প্রস্তাব পায়নি। আর পাবেনইবা কী করে? বিসিবি থেকে তাদের কাছে তো প্রস্তাবই চাওয়া হয়নি। বিভাগীয় সংস্থাগুলো পত্রিকা পড়েই আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা নিয়ে যা একটু জেনেছে।

এ প্রসঙ্গে চট্টগ্রাম বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাবেক সাধারণ সম্পাদক সিরাজউদ্দীন মো. আলমগীর বলেন, ‘বিসিবির পরিচালনা পর্ষদের কোনো সদস্য আমাদের সঙ্গে কথা বলেননি। তফসিল পড়ে বা টেলিভিশনে বিবৃতি দেখে আমরা প্রস্তাব পাঠাতে পারি না।’ রংপুর বিভাগীয় ক্রীড়া সংস্থার সাধারণ সম্পাদক ও বিসিবি পরিচালক আনোয়ারুল ইসলাম জানান, তারা তাদের প্রস্তাব চূড়ান্ত করার প্রক্রিয়া এখনও শুরুই করেননি। তিনি বলেন, ‘আমি অন্য বিভাগ সম্পর্কে জানি না। আমরা এখনও প্রক্রিয়া শুরু করতে পারিনি। বিষয়টি শুধু আলোচনার মধ্যে আছে। বোর্ডের কাছ থেকে আমরা কোনো চিঠি পাইনি। চিঠি পেলেই কাজ শুরু করব।’

এদিকে কার্যক্রমের অগ্রগতি নিয়ে গত বুধবার নাজমুল হাসান বলেন, ‘খসড়া কার্যক্রম হয়ে গেছে। এখন শুধু সভার অপেক্ষা। ঘোষণার আগে বোর্ডের অনুমোদন লাগবে। যেখানে করব সেখানে কারা আছে তাদের কার্যাবলী দেখতে হবে। যেমন খুলনায় করলে, সেখানে শেখ সোহেল আছে। তাকে না দেখিয়ে তো করা যাবে না। সিলেটের কথা বললে, নাদেলকে দেখাতে হবে। তারা ব্যস্ত থাকায় দেখান হয়নি।’ তিনি বলেন, ‘আমাদের প্রাথমিক পরিকল্পনা রয়েছে চারটি। যেসব জায়গায় স্টেডিয়াম রয়েছে সেখানেই করা হবে। এরপর একটার পর একটা করে এগিয়ে যাব।’ আঞ্চলিক পর্যায়ে নির্বাচন না দিয়ে কীভাবে কমিটি গঠন করা হবে? বিসিবি সভাপতি বলেন, ‘যারা এখন আছে তাদের নিয়ে প্রথমে একটি অ্যাডহক কমিটি করা হবে। বাইরের লোক তো আগে নেয়া যাবে না। এরপর তিন বা ছয় মাসের একটি তারিখ দিয়ে নির্বাচন দিতে হবে।’

আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থার ধারণা নিয়ে ২০০০ সাল থেকে আলোচনা করা হচ্ছে। সে বছর বাংলাদেশ টেস্ট মর্যাদা পায়। তখনই বিসিবি অনুভব করেছিল ক্রিকেটের বিকেন্দ্রীয়করণ করা প্রয়োজন। ২০১৩ সালের আগে আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা গঠনের বিষয়ে তেমন কোনো অগ্রগতি হয়নি। নাজমুল হাসান এসেই আঞ্চলিক ক্রিকেটের প্রতি গুরুত্ব দেন। মাহবুবুল আনামের নেতৃত্বে একটি কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু কমিটি বিভিন্ন কর্মসূচিতে সীমাবদ্ধ। নাজমুল হাসান তার আগের মেয়াদ শেষ করার পর জানিয়েছিলেন, তার মেয়াদে আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা গড়ে তোলার কাজ সম্পন্ন করতে না পারাই সবচেয়ে বড় ব্যর্থতা। গত বছরের ২ অক্টোবর বিসিবির বার্ষিক সাধারণ সভা শেষে তিনি বলেন, আঞ্চলিক ক্রিকেট সংস্থা গঠনকে তিনি অগ্রাধিকার দেবেন। ওই সভা শেষে সাংবাদিকদের বলেন, ‘আমরা নির্দেশিকা তৈরি করেছি। পরবর্তী কমিটি এর কার্যক্রম শুরু করবে।’ কবে কার্যকর পদক্ষেপ নিয়ে তা বাস্তবায়ন করা হবে সেটাই এখন দেখার।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter