কাফুর ব্রাজিল ক্রেসপোর আর্জেন্টিনা

  ইশতিয়াক সজীব ২২ মে ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কাফু,

বাংলাদেশের ফুটবলপ্রেমীদের কাছে বিশ্বকাপ মানেই ব্রাজিল-আর্জেন্টিনা। এবারও দুই লাতিন পরাশক্তিকে ঘিরেই স্বপ্নের জাল বুনছে সবাই। তবে আসন্ন ২০১৮ রাশিয়া বিশ্বকাপে সম্ভাবনার দৌড়ে মেসির আর্জেন্টিনার চেয়ে নেইমারের ব্রাজিলকে এগিয়ে রাখছেন ফুটবলবোদ্ধারা।

কারণ তিতের কোচিংয়ে গত দু’বছরে সত্যিকারের একটি সুসংগঠিত দল হয়ে উঠেছে ব্রাজিল। দলের গভীরতাই এবার পাঁচবারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের চালিকাশক্তি।

অন্যদিকে আর্জেন্টিনার বড় দুর্বলতা মেসির ওপর অতিনির্ভরতা। তারকাখচিত দল নিয়েও বাছাইপর্ব পেরোতে ঘাম ছুটে গেছে দু’বারের বিশ্বচ্যাম্পিয়নদের। বাস্তবতার জমিনে দাঁড়িয়েই এবারের বিশ্বকাপে ব্রাজিল ও আর্জেন্টিনাকে নিয়ে নিজেদের প্রত্যাশা, স্বপ্ন ও শঙ্কার কথা জানালেন দু’দলের দুই সাবেক তারকা কাফু ও হার্নান ক্রেসপো।

২০০২ সালে কাফুর নেতৃত্বেই সর্বশেষ বিশ্বকাপ জিতেছিল ব্রাজিল। চারটি বিশ্বকাপে খেলা এই কিংবদন্তি ডিফেন্ডারের বিশ্বাস, এবার বিশ্বকাপ জিততে প্রস্তুত সেলেকাওরা। তার আশা, গত আসরের সেমিফাইনালে জার্মানির কাছে ব্রাজিলের ৭-১ গোলে চূর্ণ হওয়াটা যে নিছক অঘটন ছিল, সেটা এবার প্রমাণ করে দেবেন নেইমাররা।

ওদিকে আর্জেন্টিনার সাবেক ফরোয়ার্ড হার্নান ক্রেসপো এবার বিশ্বকাপ ট্রফিটা দেখতে চান মেসির হাতে। তবে গ্রুপপর্বেই আর্জেন্টিনার একটি কঠিন পরীক্ষা দেখছেন ক্রেসপো। ‘ডি’ গ্রুপে আর্জেন্টিনা লড়বে আইসল্যান্ড, ক্রোয়েশিয়া ও নাইজেরিয়ার বিপক্ষে। এর মধ্যে নাইজেরিয়াকেই নিয়ে বেশি চিন্তিত ক্রেসপো।

এর আগে বিশ্বকাপে চারবার একই গ্রুপে পড়ে প্রতিবারই নাইজেরিয়াকে হারিয়েছে আর্জেন্টিনা। কিন্তু এবার গল্পটা অন্যরকম হতে পারে বলে মনে করছেন ক্রেসপো। ১৯৯৬ অলিম্পিক ফুটবলের ফাইনালে নাইজেরিয়ার কাছে হারের দুঃখ এখনও হয়তো ভুলতে পারেননি ক্রেসপো।

কাফু ও ক্রেসপোর নিজেদের বয়ানেই এবার শোনা যাক তাদের বিশ্বকাপ ভাবনা।

কাফু

ব্রাজিল দলটা এবার দারুণ হয়েছে। দলের প্রায় সবাই অভিজ্ঞ। বয়সে তরুণ হলেও ইউরোপের শীর্ষ সব লিগে খেলে তারা। তিতে দু’বছর ধরে দলটা তৈরি করেছেন। খুব কাছ থেকে দেখার পর বিশ্বকাপের জন্য সেরা ২৩ জনকে বেছে নিয়েছেন তিনি। দীর্ঘদিন একসঙ্গে খেলায় দলের সমন্বয় ও বোঝাপড়াটা চমৎকার। ২৩ জনের সবাই শুরুর একাদশে থাকার যোগ্যতা রাখে। গতবার দলে এত গভীরতা ছিল না।

এবার বিশ্বকাপ জিততে প্রস্তুত ব্রাজিল। আমি আশাবাদী, রাশিয়ায় দুর্দান্ত কিছু করে দেখাবে তারা। নেইমারের কাছে অনেক প্রত্যাশা আমার। ২০১৪ সালে যা হয়েছিল সেটিকে অঘটন প্রমাণ করার চ্যালেঞ্জ নিয়ে সে রাশিয়ায় যাচ্ছে। এটা দলের সবার জন্যই একধরনের বাধ্যবাধকতা। ব্রাজিলের ইতিহাস ও ঐতিহ্যের সঙ্গে এমন হার খুবই বেমানান। চোটের কারণে মাঝে লম্বা একটা সময় মাঠের বাইরে ছিল নেইমার। এতে প্রয়োজনীয় বিশ্রাম পেয়েছে সে। আশা করি, চনমনে ও নির্ভার এক নেইমারকেই আমরা রাশিয়ায় দেখব।

হার্নান ক্রেসপো

বিশ্বের শীর্ষস্থানীয় সব স্ট্রাইকার আছে আমাদের। কিন্তু সঠিক সমন্বয়টা এখনও খুঁজে বের করতে পারিনি আমরা। মেসির মতো একজন জাদুকর আছে আমাদের। আছে আগুয়েরো, ইকার্দি ও দিবালার মতো দুর্দান্ত সব স্ট্রাইকার। কিন্তু তাদের কাছে থেকে সেরাটা পেতে দরকার সমন্বয়। আমি জানি না, সাম্পাওলি (কোচ) কী ভাবছেন।

রক্ষণ, মাঝমাঠ ও আক্রমণে ভারসাম্য না থাকলে চূড়ান্ত সাফল্য পাওয়া খুবই কঠিন। বিশ্বকাপের মতো সর্বোচ্চ আসরে অনেক সময় ছোটোখাটো কিছু বিষয়ই ব্যবধান গড়ে দেয়। তবে ইতিহাস বলে, বিশ্বকাপে কখনই আপনি আর্জেন্টিনাকে হিসাবের বাইরে রাখতে পারেন না। গ্রুপপর্বে পিটার্সবার্গে নাইজেরিয়ার বিপক্ষে ম্যাচটি কঠিন হবে।

তবে আমরা আশা করব ওই ম্যাচের আগেই আইসল্যান্ড ও ক্রোয়েশিয়াকে হারিয়ে নকআউট পর্ব নিশ্চিত করে ফেলবে আর্জেন্টিনা। ১৯৯৯ সালে আমি মস্কোয় উয়েফা কাপের ফাইনালে খেলেছিলাম। চাইব এখানে এবার জাতীয় দলের হয়ে বিশ্বকাপ ট্রফিটা উঁচিয়ে ধরুক মেসি।

ঘটনাপ্রবাহ : বিশ্বকাপ ফুটবল ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter