রোদে পোড়ার ভয় থাকলে স্বপ্ন পূরণ হবে না
jugantor
রোদে পোড়ার ভয় থাকলে স্বপ্ন পূরণ হবে না
বললেন সালমা খাতুন

  ক্রীড়া প্রতিবেদক  

০৮ মে ২০২২, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতে মেয়েদের আইপিএল খ্যাত উইমেন্স টি ২০ চ্যালেঞ্জে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি সালমা খাতুন। তার সাক্ষাৎকার-

প্রশ্ন : দেশের একমাত্র প্রতিনিধি হিসাবে আইপিএলে খেলবেন। কেমন লাগছে?

সালমা : ভালো লাগছে। আবার খারাপও। গত আসরে আমার সঙ্গে জাহানারা ছিল। আমাদের আরও কয়েকজন সুযোগ পেলে ভালো লাগত।

প্রশ্ন : এর আগেও সেখানে খেলেছেন। এই ধরনের টুর্নামেন্টে খেলার প্রাপ্তি কি?

সালমা : বড় মাপের টুর্নামেন্ট। ড্রেসিংরুমের পরিবেশ, জেতার প্রবল ইচ্ছা এগুলো সম্পর্কে জানা যায়। অন্য দেশের ক্রিকেটাররা থাকে। তাদের সঙ্গে কথা বলে ক্রিকেট নিয়ে তাদের লক্ষ্য বোঝা যায়। আগেও দেশে ফিরে সেই অভিজ্ঞতা সবার সঙ্গে শেয়ার করেছি। সবাইকে বলেছি সেখানে কি হয়।

প্রশ্ন : বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলটাকেকোথায় দেখতে চান?

সালমা : আমরা যখন শুরু করি তখন মেয়েরা ঠিকমতো অনুশীলনই করত না। এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর অনেক বদল এসেছে। সবাই এখন গুরুত্বের সঙ্গে অনুশীলন করে। আমরা ভালো অবস্থানে দলকে রেখে যেতে পারলে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে। জুনিয়র যারা আসছে তারাও চেষ্টা করছে।

প্রশ্ন : উন্নতি করা কিভাবে সম্ভব?

সালমা : প্রতিভা থাকতে হবে। এরপর অবশ্যই লক্ষ্য। আমি লক্ষ্যের পেছনে ছুটি। লক্ষ্যে পৌঁছাতে যত কষ্টই হোক, চেষ্টা করি। স্বপ্ন থাকলে পূরণ হবেই। আমি সবসময় স্বপ্ন দেখি। বিশ্বকাপের আগে স্বপ্ন দেখতাম সেরা দশে থাকব। সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে (সেরা একাদশে)। তবে রোদে পোড়ার ভয় থাকলে স্বপ্ন পূরণ হবে না।

প্রশ্ন : কোনো আক্ষেপ?

সালমা : কোনো আফসোস নেই আমার। যা চেয়েছি, পেয়েছি। যখন পাইনি, ভেবেছি আরও পরিশ্রম করা দরকার। এখন হয়নি পরে হবে।

প্রশ্ন : ওয়ানডে বিশ্বকাপ শেষে কি মনে হয়, আমরা কোথায় পিছিয়ে আছি?

সালমা : নিজেদের প্রথম বিশ্বকাপে অনেক ভালো করেছি। কিছু ভুল হয়েছে। ব্যাটিংয়ে হয়তো আরও একটু ভালো করলে কয়েকটা ম্যাচ জিততে পারতাম। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতে পারতাম, নিউজিল্যান্ডকে ধরতে পারতাম। অভিজ্ঞতা একটা ব্যাপার। আগে আমরা বিশ্বকাপ খেলিনি। তবে প্রথম ম্যাচে সব দলই বুঝে যায় বাংলাদেশ ছোট দল নয়।

রোদে পোড়ার ভয় থাকলে স্বপ্ন পূরণ হবে না

বললেন সালমা খাতুন
 ক্রীড়া প্রতিবেদক 
০৮ মে ২০২২, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতে মেয়েদের আইপিএল খ্যাত উইমেন্স টি ২০ চ্যালেঞ্জে বাংলাদেশের একমাত্র প্রতিনিধি সালমা খাতুন। তার সাক্ষাৎকার-

প্রশ্ন : দেশের একমাত্র প্রতিনিধি হিসাবে আইপিএলে খেলবেন। কেমন লাগছে?

সালমা : ভালো লাগছে। আবার খারাপও। গত আসরে আমার সঙ্গে জাহানারা ছিল। আমাদের আরও কয়েকজন সুযোগ পেলে ভালো লাগত।

প্রশ্ন : এর আগেও সেখানে খেলেছেন। এই ধরনের টুর্নামেন্টে খেলার প্রাপ্তি কি?

সালমা : বড় মাপের টুর্নামেন্ট। ড্রেসিংরুমের পরিবেশ, জেতার প্রবল ইচ্ছা এগুলো সম্পর্কে জানা যায়। অন্য দেশের ক্রিকেটাররা থাকে। তাদের সঙ্গে কথা বলে ক্রিকেট নিয়ে তাদের লক্ষ্য বোঝা যায়। আগেও দেশে ফিরে সেই অভিজ্ঞতা সবার সঙ্গে শেয়ার করেছি। সবাইকে বলেছি সেখানে কি হয়।

প্রশ্ন : বাংলাদেশ নারী ক্রিকেট দলটাকে কোথায় দেখতে চান?

সালমা : আমরা যখন শুরু করি তখন মেয়েরা ঠিকমতো অনুশীলনই করত না। এশিয়া কাপে চ্যাম্পিয়ন হওয়ার পর অনেক বদল এসেছে। সবাই এখন গুরুত্বের সঙ্গে অনুশীলন করে। আমরা ভালো অবস্থানে দলকে রেখে যেতে পারলে বাংলাদেশ আরও এগিয়ে যাবে। জুনিয়র যারা আসছে তারাও চেষ্টা করছে।

প্রশ্ন : উন্নতি করা কিভাবে সম্ভব?

সালমা : প্রতিভা থাকতে হবে। এরপর অবশ্যই লক্ষ্য। আমি লক্ষ্যের পেছনে ছুটি। লক্ষ্যে পৌঁছাতে যত কষ্টই হোক, চেষ্টা করি। স্বপ্ন থাকলে পূরণ হবেই। আমি সবসময় স্বপ্ন দেখি। বিশ্বকাপের আগে স্বপ্ন দেখতাম সেরা দশে থাকব। সেই স্বপ্ন পূরণ হয়েছে (সেরা একাদশে)। তবে রোদে পোড়ার ভয় থাকলে স্বপ্ন পূরণ হবে না।

প্রশ্ন : কোনো আক্ষেপ?

সালমা : কোনো আফসোস নেই আমার। যা চেয়েছি, পেয়েছি। যখন পাইনি, ভেবেছি আরও পরিশ্রম করা দরকার। এখন হয়নি পরে হবে।

প্রশ্ন : ওয়ানডে বিশ্বকাপ শেষে কি মনে হয়, আমরা কোথায় পিছিয়ে আছি?

সালমা : নিজেদের প্রথম বিশ্বকাপে অনেক ভালো করেছি। কিছু ভুল হয়েছে। ব্যাটিংয়ে হয়তো আরও একটু ভালো করলে কয়েকটা ম্যাচ জিততে পারতাম। ওয়েস্ট ইন্ডিজকে হারাতে পারতাম, নিউজিল্যান্ডকে ধরতে পারতাম। অভিজ্ঞতা একটা ব্যাপার। আগে আমরা বিশ্বকাপ খেলিনি। তবে প্রথম ম্যাচে সব দলই বুঝে যায় বাংলাদেশ ছোট দল নয়।

যুগান্তর ইউটিউব চ্যানেলে সাবস্ক্রাইব করুন