‘এতটুকু আশা’ বিচ ভলিবলে

এশিয়ান গেমসে স্বপ্ন ও সম্ভাবনা

প্রকাশ : ১০ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  ওমর ফারুক রুবেল

আসন্ন এশিয়ান গেমসে বাংলাদেশের সম্ভাবনা নিয়ে ধারাবাহিক প্রতিবেদনের দশম কিস্তিতে আজ বিচ ভলিবল।

দেশে নিয়মিত খেলা হয় ভলিবল। প্রতি বছর জাতীয় চ্যাম্পিয়নশিপ, প্রিমিয়ার, প্রথম ও দ্বিতীয় বিভাগ এবং সার্ভিসেস দলগুলোকে নিয়ে ভলিবল টুর্নামেন্টও অনুষ্ঠিত হয়। ঢাকায় বঙ্গবন্ধু মধ্য এশিয়া পুরুষ আন্তর্জাতিক ভলিবলে চ্যাম্পিয়ন হয়েছে বাংলাদেশ।

ঘরোয়া আসর নিয়মিত বসলেও আন্তর্জাতিক আসরে অংশ নেয়া হয় কালেভদ্রে। বিচ ভলিবলে খুব একটা খেলা হয় না বললেই চলে। বছরে একটি টুর্নামেন্ট হয়। সেখানে খেলেই কিছুটা অভিজ্ঞতা অর্জনের চেষ্টা করেন খেলোয়াড়রা। সেই অভিজ্ঞতা নিয়েই ইনচন এশিয়ান গেমসে বিচ ভলিবলে প্রথমবার অংশ নিয়েছিল বাংলাদেশ।

চীন, কোরিয়া ও কাজখস্তানসহ ১৮টি দল অংশ নেয় ইনচনে। বাংলাদেশের হরষিত বিশ্বাস ও মুনির হোসেন খুব একটা ভালো করতে পারেননি। এবার মনির হোসেন থাকলেও হরষিত নেই। তাকে টেক্কা দিয়ে দলে জায়গা করে নিয়েছেন শাহজাহান আলী।

মনির হোসেন বলেন, ‘আন্তর্জাতিক বিচ ভলিবলে অনেক অভিজ্ঞ দেশ রয়েছে। আবার এশিয়ান গেমসে একটি দেশের দুটি দলও খেলে থাকে। যেমন ইনচনে চীনের দুটি দল রুপা এবং ব্রোঞ্জ পদক জিতেছে। জাপানও খেলিয়েছে দুটি দল।’

তিনি যোগ করেন, ‘সচরাচর কক্সবাজারে আমাদের খেলা হয় না। এশিয়ান গেমস উপলক্ষে প্রায় দেড় মাস অনুশীলন করেছি আমরা। নিজেদের সেরাটা দিতে চেষ্টা করব।’

গেমসে দ্বিতীয়বার অংশগ্রহণ বলেই শুধু ভালো খেলার প্রতিশ্রুতি দিচ্ছেন কর্মকর্তারা। ফেডারেশনের যুগ্ম-সম্পাদক অ্যাডভোকেট ফজলে রাব্বি বাবুল বলেন, ‘‘এশিয়ান গেমসে আমাদের লক্ষ্য ভালো করা। এরচেয়ে বেশি কিছু চাইতে পারছি না। কারণ প্রতিপক্ষ দেশগুলো শক্তিশালী। কক্সবাজারে দেড় মাসের অনুশীলন করেছে খেলোয়াড়রা। ‘এতটুকু আশা’ নিয়েই তারা লড়বে জাকার্তার বিচে।’’