বোনের খুনিকে ক্ষমা করেননি সেরেনা উইলিয়ামস

  ওয়েবসাইট ১৯ আগস্ট ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সেরেনা,

ক্যারিয়ারের সবচেয়ে শোচনীয় হার। কোনোমতে একটি গেমে জিতেছিলেন। তারপর অসহায় আত্মসমর্পণ। গত ৩১ জুলাই ব্রিটেনের জোহানা কন্তার কাছে ৬-১, ৬-০ গেমের অভাবনীয় হারের কারণটা অবশেষে জানালেন মার্কিন টেনিস তারকা সেরেনা উইলিয়ামস।

সেদিন কোর্টে নামার আগে একটি খবর এলোমেলো করে দিয়েছিল সব। কোন খবর? বড় বোন ইউটুন্ডে প্রাইসের খুনি ছাড়া পেয়ে গেছে! টাইম ম্যাগাজিনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে সেরেনা জানিয়েছেন, ‘কোর্টে নামার ১০ মিনিট আগে ইনস্টাগ্রামে খবরটা জানতে পারি। রবার্ট এডওয়ার্ড মিক্সফিল্ড, সেই খুনি জেল থেকে ছাড়া পেয়ে গেছে। ওই মানুষটার ১৫ বছর জেল হয়েছিল। ১২ বছরের মাথায় ছাড়া পেয়ে গেল! খবরটা শোনার পর কিছুতেই মাথা থেকে তা ঝেড়ে ফেলতে পারিনি। আমার বোন আর কখনও ফিরে আসবে না। তবে আমার বোনের কী দোষ ছিল বলুন তো? সে তো আমাকে কখনও জড়িয়েই ধরতে পারল না?’ এতগুলো বছর পেরিয়ে গেছে, এতদিন শাস্তি পাওয়ার পরও কি রবার্টকে ক্ষমা করা যায় না? সেরেনার জবাব, ‘না, আমি এখনও মানসিকভাবে সেই জায়গায় পৌঁছতে পারিনি। মাঝে মাঝে মনে হয়, দিই ক্ষমা করে। তবে এখনও পারিনি। হয়তো পারব কোনো একদিন।’

সেরেনার বোন প্রাইস যখন মারা যান ২০০৩ সালে, তখন তার তিন সন্তানের বয়স যথাক্রমে ১১, নয় ও পাঁচ বছর। সেরেনা বলেছেন, ‘বাচ্চাগুলোর কথা যখন ভাবি, খুব কষ্ট হয়। ওদের খুব ভালোবাসি। তাই বোধহয় ওদের মায়ের খুনিকে ক্ষমা করতে এতটা কষ্ট অনুভব করি।’

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter