সাফের দল নিয়ে বিতর্ক

প্রকাশ : ০৩ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  স্পোর্টস রিপোর্টার

সাফ চ্যাম্পিয়নশিপের জন্য স্বাগতিক বাংলাদেশের ২০ সদস্যের দল ঘোষণা করার কথা ছিল আজ। কিন্তু আগের দিন দল ঘোষণা করেন জেমি ডে। ব্রিটিশ কোচের দলে জায়গা হয়নি যুব দলের হয়ে দুর্দান্ত খেলা জাফর ইকবালের। আবদুল্লাহ, মতিন মিয়াও বিবেচনায় আসেননি।

কোচের দাবি, তরুণ ও অভিজ্ঞতার সংমিশ্রণে গড়া হয়েছে দল। তরুণ দুই গোলরক্ষক আনিসুর রহমান ও মাহফুজ হাসান প্রিতমকে বাদ দিয়ে কোচ আস্থা রেখেছেন শ্রীলংকা ম্যাচে হতাশ করা শহিদুল আলম সোহেলের ওপর। বর্ষীয়ান ফয়সাল মাহমুদকে দলে নেয়া হয়েছে। এ নিয়েও সমালোচনা হচ্ছে। জেমির ডে’র ২০ সদস্যের বাংলাদেশ দলে সর্বাধিক ১০ জন ঢাকা আবাহনীর ফুটবলার।

সাফ সামনে রেখে তিন মাস আগে ৪৪ জনের প্রাথমিক দল বাছাই করা হয়েছিল। সেটি ছোট করে আনা হয়েছে। মাঝে এশিয়ান গেমসে খেলেছেন তরুণ ফুটবলাররা। এশিয়ান গেমসের ২০ জনের দলের সঙ্গে ছিলেন আরও সাত সিনিয়র ফুটবলার।

নীলফামারীতে শ্রীলংকার বিপক্ষে আরও তিনজন ক্যাম্পে যোগ দিলে সংখ্যাটা দাঁড়ায় ৩০ জনে। সবার পারফরম্যান্স দেখে টিম হোটেলে জেমি চূড়ান্ত স্কোয়াড জানিয়ে দেন। এশিয়াডে খেলা একাদশ রেখে মূলত দল গড়া হয়েছে।

দলে জায়গা পেয়েছেন আশরাফুল ইসলাম রানা, শহীদুল ইসলাম সোহেল, তপু বর্মণ, টুটুল হোসেন বাদশা, বিশ্বনাথ ঘোষ, সুশান্ত ত্রিপুরা, নাসির চৌধুরী, ওয়ালী ফয়সাল, ফয়সাল মাহমুদ, জামাল ভূঁইয়া, আতিকুর রহমান ফাহাদ, মাশুক মিয়া জনি, মাহবুবুর রহমান সুফিল, বিপলু আহমেদ, মামুনুল ইসলাম, ইমন মাহমুদ বাবু, সোহেল রানা, রবিউল হাসান, সাদ উদ্দীন ও শাখাওয়াত রনি।

আগামীকাল টুর্নামেন্টের প্রথমদিন ভুটানের বিপক্ষে ম্যাচ দিয়ে সাফ মিশন শুরু করবে আগের তিন আসরের গ্রুপপর্ব থেকে বিদায় নেয়া বাংলাদেশ। ‘এ’ গ্রুপে স্বাগতিকদের অপর দুই প্রতিপক্ষ পাকিস্তান ও নেপাল।