সাতবারের শিরোপাজয়ীদের সামনে একবারের চ্যাম্পিয়ন

আজ ভারত-শ্রীলংকা

প্রকাশ : ০৫ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  স্পোর্টস রিপোর্টার

সাতবারের চ্যাম্পিয়ন ভারত দক্ষিণ এশিয়ার বিশ্বকাপ খ্যাত সাফ ফুটবলে মূল দল পাঠায়নি। পাঠিয়েছে অনূর্ধ্ব-২৩ দল। অন্যদিকে শ্রীলংকার সাফ-ঐতিহ্য খুব একটা ঋদ্ধ নয়। একবার করে চ্যাম্পিয়ন ও রানার্সআপ হয়েছে তারা। আজ বঙ্গবন্ধু জাতীয় স্টেডিয়ামে একমাত্র ম্যাচে সন্ধ্যা ৭টায় মুখোমুখি হবে বর্তমান চ্যাম্পিয়ন ভারত ও শ্রীলংকা।

ভারত ঢাকায় এসেছে টুর্নামেন্ট শুরুর আগের দিন। সময় স্বল্পতায় সাফের আনুষ্ঠানিক সংবাদ সম্মেলনে যোগ দেয়নি ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ৯৬ স্থানে থাকা দলটি। বয়সভিত্তিক দল নিয়েই সাফের অষ্টম শিরোপা জিততে চান ভারতীয় ব্রিটিশ কোচ স্টিভেন কনস্ট্যান্টাইন। ফিফা র‌্যাংকিংয়ে ১০৫ ধাপ পিছিয়ে থাকা শ্রীলংকাকে হারিয়ে মসৃণ সূচনা চাইছেন তিনি।

২০০৫ সাল থেকে ভারতীয় দলের দায়িত্বে রয়েছেন স্টিভেন। সাফ শিরোপা ধরে রাখতে তার তত্ত্বাবধানে সিডনিতে ১৭ দিনের ক্যাম্প করেছে ভারত। সেখানে তিনটি প্রীতি ম্যাচ খেলেছে লেচার্ড টাইগার এফসি, সিডনি এফসি এবং রাইদালমেয়ার এফসির বিপক্ষে।

কনস্ট্যান্টাইনের কথায়, ‘তিনটি ম্যাচেই দুর্দান্ত খেলেছে ছেলেরা। ছেলেদের স্ট্যামিনা পরীক্ষা হয়েছে।’

ভারতীয় দলের নেতৃত্ব দিচ্ছেন ২৩ বছর বয়সী ডিফেন্ডার শুভাশিস বসু। সিনিয়র জাতীয় দলের মাত্র চারজনের সঙ্গে দলে রয়েছেন এশিয়াডে খেলা বেশিরভাগ ফুটবলার। কোচের কথায়, ‘শুভাশিস বসু অসাধারণ খেলেছে। দারুণভাবে ফিরে এসেছে। আমি তাকে নিয়ে ভীষণ আশাবাদী।’

ব্রিটিশ কোচ যোগ করেন, ‘অবশ্যই আমরা এখানে জিততে এসেছি। সব সময় আমরা এ লক্ষ্য নিয়েই টুর্নামেন্টে খেলে থাকি। সুযোগ কাজে লাগাই। তবে বলব না যে, ফেভারিটের মতোই আমরা শুরু করতে পারব।’

সুভাশিসের কথায়, ‘জাতীয় দলকে নেতৃত্ব দেয়াটা স্বপ্নের মতো। নিজের সেরাটা দিয়েই চেষ্টা করব কোচের বিশ্বাসের মর্যাদা রাখতে।’

সবার আগে এসেছে শ্রীলংকা। বাংলাদেশ দলের বিপক্ষে প্রস্তুতি ম্যাচে জিতেছে তারা নীলফামারীতে। আশির দশকে ঢাকার মাঠে রাজত্ব করা আবাহনীর ডিফেন্ডার পাকির আলী শ্রীলংকার কোচ। তার কথায়, ‘বাংলাদেশকে হারানো আমাদের জন্য বড় অনুপ্রেরণা। আমাদের দলটা ভালো। প্রস্তুতিও ভালো। এর আগে আমরা লিথুয়ানিয়াকে হারিয়েছি। জাপান ও দক্ষিণ কোরিয়ায় প্রস্তুতি নিয়েছি। আশা করি, এখানেও ভালো করব।’

প্রথম ম্যাচের প্রতিপক্ষ ভারতকে নিয়ে পাকির আলীর কথা, ‘ভারত বরাবরই দক্ষিণ এশিয়ার সবচেয়ে শক্তিশালী দল। সাতবারের চ্যাম্পিয়ন তারা। এবার শুনেছি তরুণ দল পাঠিয়েছে ভারত। তবে একটা কথা মনে রাখতে হবে, যারাই আসুক তারা কিন্তু ভারতীয় জার্সি গায়ে দিয়েই মাঠে নামবে।’

ভারতের বিপক্ষে এ পর্যন্ত ১৬টি ম্যাচ খেলেছে শ্রীলংকা। জয় মাত্র তিনটিতে। চারটি ড্র।

বাকি নয় ম্যাচ জিতেছে ভারত। ভারতের বিপক্ষে শ্রীলংকার সবশেষ জয় ১৯৯৯ সালে এশিয়ান কাপের বাছাইপর্বে। ওই আসরে ভারতকে ৩-১ গোলে হারিয়েছিল তারা। সাফের গত দু’আসরে ভারতের কাছে পাত্তাই পায়নি শ্রীলংকা। হেরেছে বড় ব্যবধানে।