অগ্নিগর্ভ দ্বৈরথ নিয়ে নিরুত্তাপ দুই অধিনায়ক

  স্পোর্টস ডেস্ক ১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

রোহিত,

হংকংয়ের বিপক্ষে বড় জয় দিয়ে এশিয়া কাপ মিশন শুরু করেছে ভারত। পরেরদিন আজ চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী পাকিস্তানের বিপক্ষে খেলবে বর্তমান চ্যাম্পিয়নরা। ম্যাচটি ঘিরে আগে থেকেই উত্তেজনার রেণু উড়ছে বাতাসে। তবে দুই অধিনায়ক উত্তেজনার ধারেকাছেও নেই। তারা মনে করছেন, চিরপ্রতিদ্বন্দ্বিতার চেয়ে এশিয়া কাপ আরও বেশি কিছু।

পাকিস্তান অধিনায়ক সরফরাজ আহমেদ ম্যাচটির জন্য চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির জয়কে হিসেবে নিচ্ছেন না। তিনি মনে করেন, ‘আমাদের মনে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির ছাপ থাকবে না। সেটা এক বছর আগের ঘটনা। মাঠে আমরা নতুন কৌশল আর প্রবল উৎসাহ নিয়ে নামব।’

বিরাট কোহলিকে বিশ্রাম দেয়ায় অনেকেই ভারতের শক্তি কমেছে বলে মনে করেন। পাকিস্তান অধিনায়ক মনে করেন, তাতে হেরফের হবে না মোটেও, ‘এ নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই যে, কোহলি বিশ্বমানের একজন ব্যাটসম্যান। তবে কোহলি ছাড়াও ভারত শক্তিশালী দল। ওদের ব্যাটিং লাইনআপ খুবই শক্তিশালী। তাই সব মিলিয়ে বলতে পারি, দারুণ একটা ম্যাচ হতে যাচ্ছে।’

অপর দিকে হংকং ম্যাচের আগে ভারত অধিনায়ক রোহিত শর্মা বলেন, ‘প্রথম ম্যাচ খেলার পর পাকিস্তান নিয়ে ভাবার সুযোগ পাব। ওদের শক্তি ও দুর্বলতা নিয়ে পরে ভেবে দেখব। তবে পিচের অবস্থা দেখে আমাদের কম্বিনেশন সঠিক বলেই মনে হচ্ছে। এখন ছেলেদের কাজটা ঠিকভাবে করতে হবে।’

ভারত-পাকিস্তান ম্যাচে দর্শক ইমরান খান!

ভারত পাকিস্তান ম্যাচকে ঘিরে দর্শকদের আগ্রহ, উদ্দীপনার কমতি নেই। সদ্য পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রী হওয়া বিশ্বকাপজয়ী অধিনায়ক ইমরান খান যদি এমন একটি ম্যাচে মাঠে উপস্থিত থাকেন, কেমন হয়? পাকিস্তান গণমাধ্যমের খবর, আজকের ম্যাচ দেখতে দুবাই যেতে পারেন ইমরান খান। আপাতত তিনি দু’দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে সৌদি আরব রয়েছেন। সেখান থেকে সরাসরি দুবাইয়ে যেতে পারেন।

পাকিস্তান ও ভারতের মধ্যে রাজনৈতিক বৈরিতা সবার জানা। তাদের একসঙ্গে করার একমাত্র মাধ্যম ক্রিকেট। রাজনৈতিক টানাপোড়েনে এই লড়াইটাও এখন হয় কালেভদ্রে। দু’দল দ্বিপক্ষীয় সিরিজ খেলছে না, আইসিসির ইভেন্টগুলো ছাড়া দেখা মেলা ভার। এশিয়া কাপ আবারও মুখোমুখি করিয়ে দিল দুই চিরপ্রতিদ্বন্দ্বীকে। ২০১৭ সালের জুনে চ্যাম্পিয়ন্স ট্রফির পর এবারই প্রথম মাঠের লড়াইয়ে নামছে ভারত ও পাকিস্তান। সংযুক্ত আরব আমিরাতে তারা মুখোমুখি হচ্ছে দীর্ঘ ১২ বছর পর।

এমন এক লড়াইয়ে ইমরান খান উপস্থিত থাকলে দু’দেশের জন্যই সেটা আনন্দের খবর। ইমরান এখন আর শুধু ক্রিকেটার নন, পাকিস্তানের প্রধানমন্ত্রীও। খেলার ফাঁকে নিশ্চয়ই অভ্যন্তরীণ অনেক সমস্যা সমাধানের বিষয় নিয়েও আলোচনা হবে।

ভারত-পাকিস্তান

এশিয়া কাপে

১৯৮৪ : ভারত ৫৪ রানে জয়ী

১৯৮৮ : ভারত ৪ উইকেটে জয়ী

১৯৯৫ : পাকিস্তান ৯৭ রানে জয়ী

১৯৯৭ : বৃষ্টিতে ম্যাচ পরিত্যক্ত

২০০০ : পাকিস্তান ৪৪ রানে জয়ী

২০০৪ : পাকিস্তান ৫৯ রানে জয়ী

২০০৮ : গ্রুপপর্বে ভারত ৬ উইকেটে জয়ী। সুপার ফোরে জয়ী পাকিস্তান

২০১০ : ভারত ৩ উইকেটে জয়ী

২০১২ : ভারত ৬ উইকেটে জয়ী

২০১৪ : পাকিস্তান ১ উইকেটে জয়ী

২০১৬ : ভারত ৫ উইকেটে জয়ী

ঘটনাপ্রবাহ : এশিয়া কাপ ২০১৮

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৮

converter
×