জি-২০ শেষেও ট্রাম্পের গোঁয়ার্তুমি, বাণিজ্য যুদ্ধে সাময়িক বিশ্রাম

২০২২ সালে সম্মেলন হবে ভারতে * ঋণ জালিয়াতিদের বিরুদ্ধে টাস্কফোর্স প্রস্তাব মোদির * খাসোগির খুনিদের হস্তান্তর দাবি এরদোগানের * মস্কোয় ২০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে সৌদি

প্রকাশ : ০৩ ডিসেম্বর ২০১৮, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: এএফপি

চীন ও যুক্তরাষ্ট্রের মধ্যে চলমান বাণিজ্য যুদ্ধে সাময়িক বিরতি ঘোষণা করা হয়েছে। ৯০ দিনের এ বাণিজ্য যুদ্ধবিরতি ১ জানুয়ারি থেকে কার্যকর হবে।

এরপর থেকে একে অপরের বিরুদ্ধে নতুন করে শুল্কারোপ করবে না বিশ্বের বৃহত্তম অর্থনীতির এ দুই দেশ। ইতিমধ্যে দু’দেশের পণ্যের ওপর যে শুল্কারোপ কার্যকর হয়েছে তা বহাল থাকবে। জানুয়ারি থেকে মার্চের মধ্যে আলোচনার মাধ্যমে সমস্যার সমাধান করতে হবে। অন্যথায় ফের শুরু হবে বাণিজ্য যুদ্ধ।

আর্জেন্টিনার বুয়েন্স আয়ার্সে জি-২০ সম্মেলনের শেষ দিন শনিবার টানা দুই ঘণ্টার তর্ক-বিতর্কের পর এ বিষয়ে একমত হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প ও চীনা প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং। খবর রয়টার্স ও এএফপির।

ট্রাম্পের একটানা হুমকি-ধামকির পর চলতি বছরের জুলাই থেকে শুরু হয় দু’দেশের বাণিজ্য যুদ্ধ। যুক্তরাষ্ট্র ইতিমধ্যে চীনের ২৫০ বিলিয়ন ডলার মূল্যের পণ্যের ওপর শুল্কারোপ করেছে। পাল্টা ১১০ বিলিয়ন মার্কিন পণ্যের ওপর শুল্ক বসিয়েছে চীন। জি-২০ সম্মেলন শেষে শি ও ট্রাম্প নৈশভোজে এ বৈঠক করেন বলে জানিয়েছে রয়টার্স। প্রায় আড়াই ঘণ্টার এ বৈঠকে দু’নেতার সঙ্গে তাদের উপদেষ্টারাও ছিলেন।

পাল্টাপাল্টি শুল্ক আরোপ স্থগিত রাখার কথা নিশ্চিত করেছেন চীনের শীর্ষ কূটনীতিক ওয়াং ই। আর্জেন্টিনায় দুই প্রেসিডেন্টের মধ্যে ‘বন্ধুত্বপূর্ণ ও খোলামেলা পরিবেশে’ আলোচনা হয়েছে বলেও জানান চীনের এ স্টেট কাউন্সিলর।

জি-২০ সম্মেলনেও গোঁয়ার্তুমি দেখালেন ট্রাম্প। শুরুতে ‘আমেরিকাই প্রথম’ নিজের রক্ষণশীল বাণিজ্য নীতির পক্ষেই সাফাই গাইলেন। এর মধ্যদিয়ে কানাডা ও মেক্সিকোর নিকট থেকে আদায় করে ছাড়লেন নতুন ভার্সনের নাফটা চুক্তি। সম্মেলন শেষে জি-২০ এর ১৯ সদস্য অভিন্ন বিবৃতিতে স্বাক্ষর করলেও তাতে সই দিলেন না ট্রাম্প।

বিবৃতিতে উল্লেখ জলবায়ু পরিবর্তন রুখতে এ সম্পর্কিত প্যারিস চুক্তিতে আর সবাই একমত হন। এর আগে চলতি বছর কানাডায় জি-৭ সম্মেলনের বিবৃতিতে স্বাক্ষর করেননি ট্রাম্প।

২০২২ সালে জি-২০ সম্মেলন হবে ভারতে। দেশটির স্বাধীনতার ৭৫ বছর পূর্তি হিসেবে ওই বছরকেই বেছে নিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। আগামী বছর থেকে যথাক্রমে জাপান ১৪তম ও সৌদি আরব ১৫তম ও ইতালি ১৬তম সম্মেলন আয়োজন করবে। এরপরই ভারতের পালা।

জি-২০ সম্মেলনে ঋণ জালিয়াতির বিরুদ্ধে আন্তর্জাতিক টাস্কফোর্স গড়ার প্রস্তাব দিয়েছেন মোদি। তিনি বলেন, ঋণ পরিশোধ না করে বিদেশে পলাতকদের বিরুদ্ধে একযোগে একটি টাস্কফোর্স গঠন করে শাস্তিমূলক ব্যবস্থা নেয়া প্রয়োজন।

রাশিয়ায় নতুন করে আরও ২০০ কোটি ডলার বিনিয়োগ করবে সৌদি আরব। শনিবার দ্বিপক্ষীয় এক বৈঠকে প্রেসিডেন্ট ভ্লাদিমির পুতিন ও সৌদি যুবরাজ এ সম্পর্কিত একটি চুক্তি করেন। এদিন বিশ্বনেতাদের ভিড়ে কোণঠাসা যুবরাজকে হঠাৎই ‘লাইমলাইটে’ তুলে ধরেন পুতিন।

প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান সৌদি সাংবাদিক জামাল খাসোগি হত্যায় জড়িত ব্যক্তিদের তুরস্কের কাছে হস্তান্তরের দাবি করেছেন। শনিবার এক সংবাদ সম্মেলনে এরদোগান সৌদি আরবের কাছে এ দাবি করেন।