সরকারি কর্মকর্তাদের ভর্তুকি দেবে যুক্তরাষ্ট্র

  যুগান্তর ডেস্ক ২৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সরকারি কর্মকর্তাদের ভর্তুকি দেবে যুক্তরাষ্ট্র
মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ছবি: এএফপি

যুক্তরাষ্ট্রে দীর্ঘ ৩৫ দিনের অচলাবস্থা নিরসনের পর শনিবার থেকে কর্মস্থলে ফিরতে শুরু করেছেন সরকারি কর্মকর্তারা। ভুক্তভোগী কর্মকর্তাদের ক্ষতিপূরণ দেয়ার ঘোষণা দিয়েছে মার্কিন কোম্পানিগুলো।

শুক্রবার হোয়াইট হাউস থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে অর্থ মন্ত্রণালয়ের কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন।

সেখানে কোম্পানি ব্যবস্থাপনা নীতি অনুসারে কর্মকর্তাদের জমে থাকা কাজের বিনিময়ে অর্থ পরিশোধের বিষয়ে চরম বিতর্ক হয়। পরে ক্ষতিপূরণ দেয়ার বিষয়ে সম্মত হন তারা। তবে ক্ষতিপূরণের পরিমাণ উল্লেখ করা হয়নি বলে জানিয়েছে রয়টার্স।

রাজনৈতিক চাপের কাছে নতি স্বীকার করে শুক্রবার ফেডারেল সরকারের চাকা আবার সচল করেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বাজেট ইস্যুতে বিতর্কের জেরে যুক্তরাষ্ট্রের ইতিহাসে রেকর্ডসংখ্যক ৩৫ দিন বন্ধ ছিল ফেডারেল সরকারের একাংশের কাজকর্ম।

অর্থ বরাদ্দ না পেয়ে ফেডারেল সরকারের আট লাখ কর্মী বিনা বেতনে দিন যাপন করেছেন। এ নিয়ে দফায় দফায় বিক্ষোভ করেছেন ফেডারেল কর্মীরা। দেয়াল বিল ছাড়াই তিন সপ্তাহের জন্য অর্থ বরাদ্দে রাজি হন ট্রাম্প।

শনিবার এক টুইট বার্তায় খাদ্য ও ওষুধ প্রশাসনের (এফডিএ) কমিশনার স্কট গোটলিয়েব লিখেছেন, কর্মকর্তাদের পাওনা বেতন পরিশোধ করা মঙ্গলবারের আগে সম্ভব হবে না। কর্মকর্তাদের উদ্দেশে তিনি আরও বলেন, মঙ্গলবার এফডিএ এ বিষয়ে একটি বৈঠকে বসতে যাচ্ছে।

দীর্ঘ অচলাবস্থায় ফান্ডিং নিয়ে সমস্যা থাকলেও এফডিএ সেই চ্যালেঞ্জ মোকাবেলা করেছে। কোস্ট গার্ড তাদের কর্মকর্তাদের উদ্দেশে বলেছে, অতি দ্রুত সম্ভব নিরাপত্তা সদস্যদের বেতন পরিশোধ করা হবে। তবে সেটি মঙ্গলবার পর্যন্ত গড়াতে পারে বলেও জানিয়েছে কোস্ট গার্ড।

শুক্রবার প্রকাশিত এক জরিপে দেখা গেছে, সরকারি কর্মকর্তারা প্রায় ৬০০ কোটি ডলার বেতন পাবে।

সরকারি সংস্থাগুলো জানিয়েছে, চলতি সপ্তাহ চরম দৌড়ের মধ্যে দিন কাটাতে হবে কর্মকর্তাদের। অচলাবস্থা চলাকালে অপঠিত ই-মেইল পড়া, মেয়াদোত্তীর্ণ ই-মেইলের পাসওয়ার্ড পুনরুদ্ধারের মতো কাজে ব্যস্ত থাকতে হবে। কর্মহীন থাকাকালে সরকারি কর্মকর্তাদের দাফতরিক ফোন কল বা ই-মেইল পড়ার ওপর নিষেধাজ্ঞা ছিল।

মার্কিন মহাকাশ গবেষণা সংস্থা নাসা তাদের কর্মকর্তাদের আগামী ৪৮ ঘণ্টা ‘চরম ধৈর্যের সঙ্গে ও মনোযোগী হয়ে’ কাজ করার আহ্বান জানিয়েছে।

যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল সরকারকে ১৫ ফেব্রুয়ারি পর্যন্ত অর্থ বরাদ্দ বিলে স্বাক্ষর করে ট্রাম্প বলেন, বকেয়া সব অর্থ দিয়ে দেয়া হবে। তিনি ফেডারেল কর্মীদের ‘অত্যন্ত দেশপ্রেমিক’ উল্লেখ করেন। তবে এই সময়ের মধ্যে দেয়াল নির্মাণের অর্থ না পেলে আবারও অচলাবস্থার হুমকি দিয়েছেন প্রেসিডেন্ট।

জরুরি অবস্থা ঘোষণার বিষয়ে ট্রাম্প বলেন, এই ‘শক্তিশালী বিকল্প ব্যবস্থা’ নেয়ার ব্যাপারে এখনও চূড়ান্ত সিদ্ধান্ত নেননি। জরুরি অবস্থা ঘোষণার মাধ্যমে সামরিক খাতের জন্য বরাদ্দ করা অর্থ দিয়ে প্রেসিডেন্ট ট্রাম্প দেয়াল নির্মাণ করতে পারতেন, তবে সেটা করলে তিনি আইনি চ্যালেঞ্জের মুখে পড়তেন।

এর পরও ট্রাম্প বলেছেন, ‘একটি শক্তিশালী দেয়াল বা ইস্পাতের প্রতিবন্ধকতা তৈরি করা ছাড়া আমাদের কাছে সত্যিই বিকল্প কোনো পথ নেই।

ঘটনাপ্রবাহ : মার্কিন সরকারে অচলাবস্থা

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×