ভেনিজুয়েলায় স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে সমর্থনের আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের

ইউরোপের আলটিমেটাম মানবে না মাদুরো সরকার * ওয়াশিংটনে বসে বিরোধী নেতাকে স্বীকৃতি ভেনিজুয়েলার সামরিক কূটনীতিকের

  যুগান্তর ডেস্ক ২৮ জানুয়ারি ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভেনিজুয়েলায় স্বাধীনতার পক্ষের শক্তিকে সমর্থনের আহ্বান যুক্তরাষ্ট্রের
ভেনিজুয়েলার বিরোধীদলীয় নেতা জুয়ান গুইদো। ছবি: এএফপি

ভেনিজুয়েলার প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরোকে উৎখাতে এখনও মরিয়া যুক্তরাষ্ট্র। আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি ভেনিজুয়েলায় স্বাধীনতার শক্তি অথবা মাদুরো-এ দুটির মধ্যে যে কোনও একটিকে বেছে নেয়ার পরামর্শ দিয়েছেন দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও।

শনিবার জাতিসংঘ নিরাপত্তা পরিষদের জরুরি বৈঠকে তিনি এ আহ্বান জানান। বিশ্ব সম্প্রদায়ের প্রতি নিজেকে ‘অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট’ দাবি করা ভেনিজুয়েলার বিরোধীদলীয় নেতা জুয়ান গুইদোকে স্বীকৃতি দেয়ার আহ্বান জানান পম্পেও। খবর আল জাজিরা ও বিবিসির।

মাইক পম্পেও বলেন, ‘এখনই প্রতিটি দেশের জন্য একটি পক্ষ বেছে নেয়ার সেরা সময়। আর দেরি নয়, আর কোনও খেলা নয়। আপনি হয় স্বাধীনতার পক্ষের শক্তির সঙ্গে থাকবেন, অন্যথায় নিকোলাস মাদুরো ও তার সাঙ্গোপাঙ্গদের সঙ্গে।’

গত বছর বিরোধীদের বর্জনের মধ্যে অনুষ্ঠিত এক নির্বাচনে জয়ী হন মাদুরো। চলতি মাসে দ্বিতীয় মেয়াদে শপথ নেন তিনি। নির্বাচনে ভোট জালিয়াতির অভিযোগে মাদুরোবিরোধী এক বিক্ষোভ সমাবেশে বুধবার নিজেকে ভেনিজুয়েলার ‘অন্তর্বর্তী প্রেসিডেন্ট’ দাবি করেন গুইদো।

কয়েক মিনিটের মাথায় তাকে ‘স্বীকৃতি’ দেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। এখনও সেনাবাহিনী মাদুরোর পক্ষেই রয়েছে। বিশ্লেষকরা মনে করেন, দেশটির সেনাবাহিনী যেদিকে দাঁড়াবে, ক্ষমতার পাল্লা সেদিকেই হেলে পড়বে।

ইউরোপের কয়েকটি দেশ মাদুরোকে ৮ দিনের আলটিমেটাম দিয়েছে। এ সময়ের মধ্যে নির্বাচন না দিলে বিরোধী নেতাকে স্বীকৃতির হুমকি দিয়েছে যুক্তরাজ্য, স্পেন, ফ্রান্স ও জার্মানি।

তবে এ আলটিমেটাম প্রত্যাখ্যান করে দেশটির পররাষ্ট্রমন্ত্রী জর্জ আরিয়াজা বলেন, ‘নির্বাচন ডাকার জন্য আমাদের সময় বেঁধে দেয়ার অধিকার কারও নেই।’ মাদুরোকে উৎখাতের প্রস্তাবে আগে থেকেই বিরোধিতা করে আসছে নিরাপত্তা পরিষদের স্থায়ী সদস্য রাশিয়া।

মাদুরোকে উৎখাতের মার্কিন প্রস্তাবের বিরোধিতা করে রাশিয়া বলেছে, যুক্তরাষ্ট্র অভ্যুত্থান চেষ্টার মাধ্যমে দেশটিতে বাড়তে থাকা ভূ-রাজনৈতিক উত্তেজনাকে জোরালো করে তুলতে চাইছে। শুক্রবার রুশ বার্তা সংস্থা আরআইএকে পররাষ্ট্রমন্ত্রী সের্গেই ল্যাভরভ বলেন, ‘মস্কো প্রস্তাব করবে আন্তর্জাতিক আইন মেনে চলার।’

এদিকে যুক্তরাষ্ট্রে নিযুক্ত ভেনিজুয়েলার শীর্ষ সামরিক কূটনীতিক মাদুরো সরকারের পক্ষ ত্যাগ করেছেন। কর্নেল জোস লুইস সিলভা নামে ওই কূটনীতিক বলেন, প্রেসিডেন্ট হিসেবে তিনি গুইদোকেই স্বীকৃতি দিয়েছেন। চলমান রাজনৈতিক সংকটের মধ্যে প্রথমবারের মতো কোনও সেনা কর্মকর্তা প্রকাশ্যে পক্ষত্যাগের ঘোষণা দিলেন।

শনিবার ওয়াশিংটন দূতাবাসে ধারণকৃত এক ভিডিওতে সিলভা ভেনিজুয়েলায় অবাধ ও নিরপেক্ষ নির্বাচনের আহ্বান জানিয়েছেন। ‘সামরিক বাহিনীতে কর্মরত ভাইদের’ গুইদোকে ‘ বৈধ প্রেসিডেন্ট’ মেনে নেয়ার আহ্বান জানান।

তিনি বলেন, ‘আমাদের দেশে গণতন্ত্র পুনঃপ্রতিষ্ঠায় সামরিক বাহিনীর মৌলিক ভূমিকা রাখতে হবে। ভাইয়েরা, দয়া করে আমাদের জনগণের ওপর হামলা করবেন না।’ পরে রয়টার্সকে তিনি বলেন, যুক্তরাষ্ট্রে কনস্যুলার কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত তার দুই ভেনিজুয়েলান ভাইও গুইদোকে স্বীকৃতি দিয়েছেন।

ঘটনাপ্রবাহ : ভেনিজুয়েলায় অচলাবস্থা

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×