অভিবাসী ধরতে যুক্তরাষ্ট্রে ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশ : ২৩ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১৪:০৫ | প্রিন্ট সংস্করণ

  যুগান্তর ডেস্ক

ছবি: গার্ডিয়ান

অভিবাসী শিক্ষার্থীদের ফাঁদে ফেলে তাদের গ্রেফতার করতে ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয় খুলেছে যুক্তরাষ্ট্র। মিশিগান রাজ্যে দ্য ইউনিভার্সিটি অব ফারমিংটন নামের বিশ্ববিদ্যালয় তাদের ওয়েবসাইটে জানাচ্ছে, এটি একটি কলেজ, যেখানে শিক্ষার্থীদের বৈশ্বিক অর্থনীতির বিষয়ে সফল জ্ঞান দেয়া হয়।

ওয়েবসাইটে একটি ক্যাম্পাসের ছবিও প্রকাশ করা হয়েছে। মার্কিন প্রশাসন বিদেশি শিক্ষার্থীদের ভর্তির জন্য উপযুক্ত বিশ্ববিদ্যালয়ের তালিকায় ফারমিংটনকেও অন্তর্ভুক্ত করেছে। জমকালো এ ক্যাম্পাসের ছবি দেখে হুড়হুড় করে আবেদন করছেন অভিবাসীরা। আর তাদের আটক করছে মার্কিন প্রশাসন।

যুক্তরাষ্ট্রের হোমল্যান্ড সিকিউরিটি বিভাগ এ বিশ্ববিদ্যালয় চালু করেছে বলে আদালতের এক নথিতে উঠে এসেছে। খবর দ্য গার্ডিয়ানের।

সম্প্রতি ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ে ভর্তি হয়ে শিক্ষার্থী ভিসায় যুক্তরাষ্ট্র যাওয়ার পর গ্রেফতার হয়েছেন ১২৯ ভারতীয় নাগরিক। এর পরই ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয় খুলে প্রতারণার প্রমাণ মিলেছে। ইতিমধ্যে তাদের মুক্তিতে কূটনৈতিক তৎপরতা শুরু করেছে ভারত।

ওই ১২৯ শিক্ষার্থী ইউনিভার্সিটি অব ফারমিংটনে ভর্তি হয়েছিলেন। বাস্তবে ওই নামে কোনো বিশ্ববিদ্যালয়ের অস্তিত্ব নেই। বহু ব্যবহৃত ‘পে টু স্টে’ অভিবাসন প্রতারণার মুখোশ উন্মোচন করতে যুক্তরাষ্ট্রের ডিপার্টেমেন্ট অব হোমল্যান্ড সিকিউরিটির ছদ্মবেশী এজেন্টরা অনলাইনে বিজ্ঞাপন দিয়ে এ ফাঁদ পেতেছিলেন।

যুক্তরাষ্ট্রের সংবাদ মাধ্যমের খবর অনুযায়ী, শিক্ষার্থী ভিসায় যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশের পর সেখানে থেকে যেতে চাওয়া বিদেশিদের পাকড়াও করতে ২০১৫ সালে ওই ভুয়া বিশ্ববিদ্যালয়ের নামে একটি ওয়েবসাইট চালু করা হয়। ওয়েবসাইটে শিক্ষার্থীরা ক্লাস করছে, লাইব্রেরিতে কাজ করছে, সবুজ ক্যাম্পাসে গল্প করছে এমন বেশ কয়েকটি ছবি দেয়া হয়।

বিজ্ঞাপনে আন্ডার গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি বছর টিউশন ফি সাড়ে ৮ হাজার মার্কিন ডলার এবং গ্র্যাজুয়েট শিক্ষার্থীদের জন্য প্রতি বছর ১১ হাজার মার্কিন ডলার ফি’র কথা বলা হয়। তাছাড়া, বিজ্ঞাপনে একটি ভুয়া ফেসবুক পেজের ছবিও জুড়ে দেয়া হয়।

কিন্তু আদালতের প্রকাশিত কাগজপত্র থেকে পরে জানা যায়, যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন ও শুল্কবিষয়ক সংস্থার কর্মকর্তারাই বিশ্ববিদ্যালয়টির কর্মী সেজে আছেন।

সম্প্রতি কয়েক বছর ধরেই যুক্তরাষ্ট্রের অভিবাসন কর্তৃপক্ষ কড়াকড়ি করছে। এবারই দেশটি প্রথম এমন অভিযান চালিয়েছে তা নয়। ২০১৬ সালে মার্কিন প্রেসিডেন্ট বারাক ওবামা প্রশাসনের আমলে অভিবাসন কর্মকর্তারা ভুয়া নর্দার্ন নিউ জার্সি ইউনিভার্সিটি স্থাপন করে সেখান থেকে ২১ জনকে গ্রেফতার করেছিলেন। এদের বেশিরভাগই ছিল চীন ও ভারতের অভিবাসী।