শুধু বসাবসি আর কথা কাজের কাজ কিছুই না
jugantor
ভিয়েতনামে ট্রাম্প-কিম দ্বিতীয় বৈঠক
শুধু বসাবসি আর কথা কাজের কাজ কিছুই না
নিরস্ত্রীকরণে তাড়াহুড়া নেই যুক্তরাষ্ট্রের

   

২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

শুধু বসাবসি আর কথা কাজের কাজ কিছুই না

পরমাণু ইস্যুতে মুখোমুখি অবস্থানে দাঁড়িয়ে উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। যে কোনো মূল্যে পিয়ংইয়ংয়ের নিরস্ত্রীকরণই চূড়ান্ত লক্ষ্য ওয়াশিংটনের।

তা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে চুক্তি করতে তাড়াহুড়া করতে চান না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভিয়েতমানের হ্যানয়ে কিমের সঙ্গে দ্বিতীয় শীর্ষ বৈঠকের আগে একথা বলেন ট্রাম্প।

পাশাপাশি উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে নিজের আশাবাদের কথাও জানান তিনি। বৈঠক থেকে নিজের প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন তিনি। বৈঠকে যোগ দিতে সোমবার ভিয়েতনামের উদ্দেশে রওনা হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এর আগে হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি বলেন, তার বিশ্বাস তিনি কিমের চোখে চোখ রেখে দেখেছিলেন যে ‘তারা অত্যন্ত ভালো একটি সম্পর্ক উন্নয়ন করছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমার তাড়াহুড়া নেই। আমি কাউকে তাড়া দিতেও চাই না। আমি কেবল কোনো পরীক্ষা চাই না। যতদিন পরীক্ষা বন্ধ থাকবে, আমরা ততদিন খুশি থাকব।’ খবর রয়টার্স ও ডেইলি মেইলের।

পূর্বনির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী হ্যানয়ে বুধ ও বৃহস্পতিবার দুই নেতার মধ্যে বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। বৈঠককে সামনে রেখে এর আগে ট্রাম্প বলেন, পারমাণবিক অস্ত্র পরিত্যাগ করলে উত্তর কোরিয়া একটি বৃহৎ অর্থনৈতিক পরাশক্তিতে পরিণত হতে পারে।

রোববার সংবাদ সম্মলনের পর টুইটারে এক পোস্টে তিনি এমন মন্তব্য করেন। ট্রাম্প বলেন, উত্তর কোরিয়ার নেতা এটা উপলব্ধি করতে পারছেন যে, সম্ভবত অন্য যে কোনো কিছুর চেয়ে পারমাণবিক অস্ত্র বাদ দিয়ে তার দেশ দ্রুত একটি অর্থনৈতিক পরাশক্তিতে পরিণত হতে পারে।

ভিয়েতনামে ট্রাম্প-কিম দ্বিতীয় বৈঠক

শুধু বসাবসি আর কথা কাজের কাজ কিছুই না

নিরস্ত্রীকরণে তাড়াহুড়া নেই যুক্তরাষ্ট্রের
  
২৬ ফেব্রুয়ারি ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ
শুধু বসাবসি আর কথা কাজের কাজ কিছুই না
ছবি: সিএনএন

পরমাণু ইস্যুতে মুখোমুখি অবস্থানে দাঁড়িয়ে উত্তর কোরিয়া ও যুক্তরাষ্ট্র। যে কোনো মূল্যে পিয়ংইয়ংয়ের নিরস্ত্রীকরণই চূড়ান্ত লক্ষ্য ওয়াশিংটনের।

তা সত্ত্বেও উত্তর কোরিয়ার নেতা কিম জং উনের সঙ্গে পারমাণবিক অস্ত্র নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে চুক্তি করতে তাড়াহুড়া করতে চান না মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। ভিয়েতমানের হ্যানয়ে কিমের সঙ্গে দ্বিতীয় শীর্ষ বৈঠকের আগে একথা বলেন ট্রাম্প।

পাশাপাশি উত্তর কোরিয়ার পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে নিজের আশাবাদের কথাও জানান তিনি। বৈঠক থেকে নিজের প্রত্যাশার কথা জানিয়েছেন তিনি। বৈঠকে যোগ দিতে সোমবার ভিয়েতনামের উদ্দেশে রওনা হন মার্কিন প্রেসিডেন্ট। এর আগে হোয়াইট হাউসে সংবাদ সম্মেলন করে তিনি বলেন, তার বিশ্বাস তিনি কিমের চোখে চোখ রেখে দেখেছিলেন যে ‘তারা অত্যন্ত ভালো একটি সম্পর্ক উন্নয়ন করছেন।’

তিনি বলেন, ‘আমার তাড়াহুড়া নেই। আমি কাউকে তাড়া দিতেও চাই না। আমি কেবল কোনো পরীক্ষা চাই না। যতদিন পরীক্ষা বন্ধ থাকবে, আমরা ততদিন খুশি থাকব।’ খবর রয়টার্স ও ডেইলি মেইলের।

পূর্বনির্ধারিত সময়সূচি অনুযায়ী হ্যানয়ে বুধ ও বৃহস্পতিবার দুই নেতার মধ্যে বৈঠক হওয়ার কথা রয়েছে। বৈঠককে সামনে রেখে এর আগে ট্রাম্প বলেন, পারমাণবিক অস্ত্র পরিত্যাগ করলে উত্তর কোরিয়া একটি বৃহৎ অর্থনৈতিক পরাশক্তিতে পরিণত হতে পারে।

রোববার সংবাদ সম্মলনের পর টুইটারে এক পোস্টে তিনি এমন মন্তব্য করেন। ট্রাম্প বলেন, উত্তর কোরিয়ার নেতা এটা উপলব্ধি করতে পারছেন যে, সম্ভবত অন্য যে কোনো কিছুর চেয়ে পারমাণবিক অস্ত্র বাদ দিয়ে তার দেশ দ্রুত একটি অর্থনৈতিক পরাশক্তিতে পরিণত হতে পারে।