ভেনিজুয়েলায় সরকার পতনে ‘বিদ্যুৎ যুদ্ধে’ বিরোধীরা

তিনদিন ধরে অন্ধকার, হাসপাতাল-স্কুল-কলেজ বন্ধ * পাল্টাপাল্টি সমাবেশ মাদুরো-গুইদোর

  যুগান্তর ডেস্ক ১০ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভেনিজুয়েলায় সরকার পতনে ‘বিদ্যুৎ যুদ্ধে’ বিরোধীরা

গত তিন দিন ধরে অন্ধকারে ভেনিজুয়েলা। দেশের মোট ২৩টি প্রদেশের ১৫টিই এখন বিদ্যুৎবিহীন। প্রধান বিদ্যুৎ কেন্দ্র দখলে নিয়ে বিকল করে দিয়েছে বিরোধীরা।

ভেনিজুয়েলার বিদ্যুৎমন্ত্রী লুই মোত্তা দোমিনগুয়েজে বলেছেন, ‘সরকারকে চাপে ফেলতেই বিদ্যুৎ কেন্দ্র বিকল করে দিয়েছে বিরোধীরা। এটা বৈদ্যুতিক যুদ্ধ।’

বিদ্যুৎবিভ্রাটের দায় সরকারের ওপর চাপিয়ে শনিবার বিক্ষোভের ডাক দিয়েছেন বিরোধী নেতা ও স্বঘোষিত প্রেসিডেন্ট হুয়ান গুইদো। পাল্টা সমাবেশ করতে সমর্থকদের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন প্রেসিডেন্ট নিকোলাস মাদুরো। খবর এএফপির।

বৃহস্পতিবার দক্ষিণের প্রদেশ বলিভারের গুরি অঞ্চলে দেশের মূল জলবিদ্যুৎ প্রকল্প বিকল করে দেয় বিরোধীরা। এদিন বিকাল থেকে শুরু হয় বিদ্যুৎবিভ্রাট।

শুক্রবার রাতের মধ্যে বিদ্যুৎবিচ্ছিন্ন হয়ে পড়ে প্রায় ৭০ শতাংশ এলাকা। স্তব্ধ হয়ে যায় রাজধানী কারাকাস। থমকে আছে পরিবহন, ব্যবসা।

বন্ধ স্কুল, কলেজ, অফিস, দোকানপাট, পেট্রল পাম্প। হাসপাতালগুলোতেও অস্ত্রোপচার বিঘ্নিত হচ্ছে। হাসপাতাল এবং ক্লিনিকের প্রতিনিধিদের অভিযোগ, গত চার মাস ধরে বিদ্যুৎ সরবরাহে ঘাটতি চললেও সরকারের কোনো মাথাব্যথা নেই।

বিদ্যুতের অভাবে হাসপাতালগুলোর প্রায় ৮০ শতাংশ ওটিতে কোনো কাজ হচ্ছে না। টানা চালানোর ফলে অনেক হাসপাতালের জেনারেটর বিগড়ে গেছে। কারাকাসের শিশু হাসপাতালে মোবাইল ফোনের আলোতে চিকিৎসা করছেন চিকিৎসকরা।

তবে জাতীয় সংবাদমাধ্যম ভিটিভি দেশের কয়েকটি জায়গায় বিদ্যুৎ আসার দাবি করেছে। গুরির জলবিদ্যুৎ প্রকল্প থেকেই ভেনিজুয়েলার ৭০ শতাংশ বিদ্যুৎ সরবরাহ হয়। ভেনিজুয়েলার জাতীয় বিদ্যুৎ কর্পোরেশনের সাবেক এক্সিকিউটিভ মিগেল লারার মতে, পুরনো যন্ত্রপাতি এবং খারাপ ব্যবস্থাপনার কারণেই এভাবে বিদ্যুৎ পরিসেবা ধসে পড়েছে।

স্বঘোষিত কার্যকরী প্রেসিডেন্ট তথা বিরোধী দলনেতা হুয়ান গুইদো টুইটারে বলেছেন, ‘এই বিদ্যুৎবিভ্রাটই প্রমাণ করছে মাদুরোর সময় শেষ। যেদিন তাকে হটিয়ে নতুন সরকার গঠন হবে সেদিনই আলো ফিরবে দেশে। পাল্টা টুইটে এর পেছনে আমেরিকার ষড়যন্ত্রের প্রতি ইঙ্গিত করেছেন মাদুরো।

বলেন, বিরোধীদের সৃষ্ট নাশকতাতেই গুরি জলবিদ্যুৎ কেন্দ্রটির সরবরাহে বিঘ্ন ঘটেছে। মার্কিন সাম্রাজ্যবাদের নির্দেশে বৈদ্যুতিক যুদ্ধ ঘোষণা করা হয়েছে।’ তিনি আরও বলেন, ‘দেশপ্রেমীরা সবাই একত্রিত আছেন। সাইমন বলিভার আর হুগো শাভেজের সৈনিকদের কেউ হারাতে পারবে না।’ একই অভিযোগ আনেন মাদুরোর ভাইস প্রেসিডেন্ট ডেলসি রদ্রিগেজ। মাদুরোর অভিযোগকে খণ্ডন করে মার্কিন পররাষ্ট্রমন্ত্রী মাইক পম্পেও এক টুইটে বলেছেন, কোনো বিদেশি রাষ্ট্র নয়, ভেনিজুয়েলার বিদ্যুৎবিভ্রাটের জন্য দায়ী মাদুরো সরকারের অক্ষমতা।

জাতীয় নিরাপত্তা উপদেষ্টা জন বোল্টন বলেছেন, ‘বিদ্যুৎবিভ্রাটের কারণ মাদুরোর কয়েক বছরের দুর্নীতি, বিনিয়োগহীনতা ও অব্যবস্থাপনা।’

ঘটনাপ্রবাহ : ভেনিজুয়েলায় অচলাবস্থা

আরও
আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×