সিরিয়াকে নতুন সংকটে ফেলছে যুক্তরাষ্ট্র

গোলান মালভূমি ইসরাইলের : স্বীকৃতি দিতে চান ট্রাম্প

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ মার্চ ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

সিরিয়ায় আট বছরের গৃহযুদ্ধ এখন শেষের পথে। একেবারে কোণঠাসা হয়ে পড়েছে জঙ্গিগোষ্ঠী আইএস ও বিদ্রোহী গোষ্ঠীগুলো। ফের ঘুরে দাঁড়ানোর অপেক্ষায় দেশটির জনগণ। কিন্তু একটি সংকট কাটিয়ে উঠতে না উঠতে ফের আরেক সংকট এসে হাজির তাদের সামনে। এই সংকট সৃষ্টি করছে যুক্তরাষ্ট্র। অধিকৃত গোলান মালভূমিকে ইসরাইলের সার্বভৌম অঞ্চল বলে স্বীকৃতি দিতে চাচ্ছেন মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্প। বৃহস্পতিবারই এক টুইট বার্তায় তিনি বলেছেন, ‘অধিকৃত গোলান মালভূমিতে ইসরাইলের সার্বভৌমত্বকে স্বীকৃতি দেয়ার সময় এসেছে।’ গোলান প্রশ্নে তার এ অবস্থান কয়েক দশকের মার্কিন নীতির বিরোধী। একই সঙ্গে জাতিসংঘ ও আন্তর্জাতিক আইনের পরিপন্থীও।

১৯৬৭ সালে আরব দেশগুলোর সঙ্গে ছয় দিনের যুদ্ধে সিরিয়ার গোলান মালভূমি দখল করে নেয় ইসরাইল। ১৯৮১ সালে সেখানে নিজেদের শাসন ও আইন বলবৎ করে দেশটি। তবে ইসরাইলের এ পদক্ষেপকে স্বীকৃতি দেয়নি আন্তর্জাতিক বিশ্ব। একই নীতি মেনে আসছে যুক্তরাষ্ট্রও। কিন্তু সেই নীতি থেকে সরে এসে গোলান প্রশ্নে ভিন্ন অবস্থান প্রকাশ করলেন ট্রাম্প। টুইটার বার্তায় ট্রাম্প দাবি করেন, ‘ইসরাইল ও আঞ্চলিক স্থিতিশীলতার জন্য গোলান মালভূমির কৌশলগত গুরুত্ব রয়েছে।’

বৃহস্পতিবার ট্রাম্পের টুইটের পরপরই স্বাগত জানিয়েছেন ইসরাইলি প্রধানমন্ত্রী বেঞ্জামিন নেতানিয়াহু। তবে ট্রাম্পের অবস্থানের কড়া সমালোচনা করেছে সিরিয়া। যে কোনো উপায়ে গোলান পুনরুদ্ধারের শপথ নিয়েছে দেশটি। কয়েক ঘণ্টা পর ট্রাম্পের এ অবস্থানের কড়া নিন্দা জানায় দামেস্ক। বলেছে, তার এ অবস্থানে ইসরাইলের প্রতি যুক্তরাষ্ট্রের অন্ধ পক্ষপাতিত্ব প্রকাশ পেয়েছে। এক বিবৃতিতে দামেস্ক বলেছে, ট্রাম্পের অবস্থান শুধু আন্তর্জাতিক আইনেরই পরিপন্থী নয়, তার প্রতিশ্রুতি এ অঞ্চলে সংকটকে আরও উসকে দেবে। আরও বলা হয়, ‘গোলান সিরিয়ার, আরবদের ছিল, থাকবে। এ বাস্তবতার কখনোই পরিবর্তন হবে না। সম্ভাব্য সব উপায়ে গোলানের পবিত্র ভূমিকে স্বাধীন করার ব্যাপারে রাষ্ট্র সিরিয়া আরও বেশি দৃঢ়প্রতিজ্ঞ।’

গোলান ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্রের ভিন্ন অবস্থানে উদ্বেগ জানিয়েছে তুরস্ক। এ সিদ্ধান্ত মধ্যপ্রাচ্যে নতুন সংকট উসকে দিতে পারে বলেও সতর্ক করেছে আঙ্কারা। শুক্রবার মুসলিম রাষ্ট্রগুলোর জোট ওআইসির এক বৈঠকে তুর্কি প্রেসিডেন্ট রিসেপ তায়েপ এরদোগান বলেছেন, ‘গোলানের দখলদারিত্বকে বৈধতা দেয়ার বিষয়কে অনুমোদন দিতে পারি না আমরা।’ ট্রাম্পের অবস্থানকে ‘অগ্রহণযোগ্য’ বলে অভিহিত করেছে ইরানও। ইরানের পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র বাহরাম কাশেমী বলেছেন, ‘গোলান যে সিরিয়ারই, এই বাস্তবতা (মার্কিনের) অবৈধ ও অগ্রহণযোগ্য স্বীকৃতিতে বদলাবে না।’

হুশিয়ারি দিয়েছে রাশিয়াও। রাশিয়ার পররাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের মুখপাত্র মারিয়া জাখারোভা বলেছেন, যুক্তরাষ্ট্রের এ অবস্থান জাতিসংঘের সিদ্ধান্তের সুস্পষ্ট লংঘন। গোলানের মালিকানার বিষয়ে সিরিয়াকে পূর্ণ সমর্থন দেয়ার ঘোষণা দিয়েছেন আরব লীগের মহাসচিব আহমেদ আবুল গেইত। তিনি বলেছেন, তার সংস্থা মনে করে গোলান মালভূমির ওপর সিরিয়ার পূর্ণ মালিকানা থাকবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×