শ্রীলংকা হামলার নিন্দা জানিয়ে ভোট চাইলেন মোদি

  যুগান্তর ডেস্ক ২৩ এপ্রিল ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

শ্রীলংকা হামলার নিন্দা জানিয়ে ভারতে ভোটারদের আশ্বস্ত করেছেন প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি। তিনি ওই হামলার নিন্দা জানিয়ে বলেছেন, শুধু তিনিই ভারতের জন্য হুমকি এমন ‘সন্ত্রাসীদের’ পরাজিত করতে পারেন। তাই ভোটারদের উচিত তাকে ভোট দেয়া। সোমবার এ খবর দিয়েছে বার্তা সংস্থা রয়টার্স। নরেন্দ্র মোদি রোববার রাজস্থানে এক নির্বাচনী প্রচারণায় বক্তব্য দিচ্ছিলেন। তিনি এ সময় ভোটারদের উদ্দেশে বলেন, ‘সন্ত্রাসকে নিশ্চিহ্ন করে দেয়া উচিত কিনা? কে এটা করতে পারে? আপনারা কি মোদিকে বাদ দিয়ে অন্য কোনো নাম চিন্তা করতে পারেন? অন্য কেউ কি এ কাজ করতে পারে?’

ভারতের এবারের লোকসভা নির্বাচনে নরেন্দ্র মোদি ও তার ক্ষমতাসীন ভারতীয় জনতা পার্টি (বিজেপি) জাতীয় নিরাপত্তা রেকর্ডকে সামনে তুলে ধরেছে। এর ওপর ভিত্তি করে তারা নির্বাচনী বৈতরণী পার হতে চায়। বিশেষ করে, পাকিস্তানের বিরুদ্ধে মোদি যে পেশীশক্তি দেখিয়েছেন তাতে বিজেপির জনপ্রিয়তা অনেকটা বেড়েছে। যেখানে বিরোধীরা কর্মসংস্থান ও নিুআয়ের মতো দুর্বল ইস্যুগুলোকে প্রাধান্য দিয়েছে।

সর্বশেষ বক্তব্যে সন্ত্রাসীদের পরাজিত করা বলতে মোদি কি তবে পাকিস্তানের দিকে ইঙ্গিত করেছেন! এ বছরের শুরুতে দেশ দুটির মধ্যে উত্তেজনা চরমে পৌঁছে। পুলওয়ামা হামলার পর পাকিস্তানে যুদ্ধবিমান পাঠান মোদি। ১৯৭১ সালে বাংলাদেশের স্বাধীনতা যুদ্ধের পর এমনটা প্রথম ঘটাল ভারত।

শ্রীলংকা হামলায় কমপক্ষে ৬ জন ভারতীয় নিহত হয়েছেন। মোদি বলেন, আমাদের প্রতিবেশী শ্রীলংকায় সন্ত্রাসীরা রক্তাক্ত খেলা খেলেছে। তারা হত্যা করেছে নিরপরাধ মানুষকে। রোববার রাজস্থানে আরেকটি নির্বাচনী র‌্যালিতে মোদি শ্রীলংকা হামলার কথা উল্লেখ করেন। তিনি বলেন, জঙ্গিদের কারণে ভারতও অব্যাহতভাবে ভুগছে। পাকিস্তানের হুমকিতে ভয় পাওয়ার নীতি শেষ করেছে ভারত। তিনি আরও বলেন, আমাদের হাতে আছে পারমাণবিক অস্ত্রের বোতাম। জবাব দিতে তা ব্যবহার করা হবে। তার এ বক্তব্যের পর জনতার মধ্য থেকে উল্লাস ছড়িয়ে পড়ে।

এনআরসি প্রয়োগ হবে দেশজুড়ে-অমিত শাহ : দেশজুড়ে প্রয়োগ করা হবে এনআরসি নীতি। কলকাতায় এসে এমনটাই জানালেন বিজেপির সর্বভারতীয় সভাপতি অমিত শাহ। সোমবার নিউটাউনে এক সাংবাদিক সম্মেলনে এসে তিনি জানান, প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদি বিশেষ নজরে দেখে বাংলাকে।

এদিন অমিত শাহ জানান, নাগরিকত্ব সংশোধনী বিল আইনে পরিণত করা হবে এবং গোটা দেশজুড়ে এনআরসি নীতি প্রয়োগ করা হবে। যাতে কোনওভাবেই অনুপ্রবেশ না ঘটে দেশে এবং উদ্বাস্তুরা স্বস্তিতে বসবাস করতে পারেন। এমনকী বিজেপি বাংলাতেও অনুপ্রবেশ রুখবে। তিনি বলেন, ‘নরেন্দ্র মোদি ৫০ কোটি গরীবদের উন্নতি সাধন করেছেন। গত পাঁচ বছরে বিশ্বে এ দেশের সুনাম বেড়েছে। মোদি বিশেষভাবে বাংলারও উন্নতি করতে চান।’ তিনি এদিন সাংবাদিক সম্মেলনে শ্রীলঙ্কার বিস্ফোরণ কাণ্ডের প্রসঙ্গ তুলে জানান যে বিজেপি সন্ত্রাস দমনে যথার্থ ভূমিকা গ্রহণ করেছে। তারা জঙ্গি কার্যকলাপ বরদাস্ত করবে না। ভারতে সংবিধানের ৩৭০ ও ৩৫এ ধারা আইনে পরিবর্তন করা হবে বলেও জানান অমিত শাহ।

গরমে ঘেমে, বৃষ্টিতে ভিজে প্রচার : সকালে গরমে ঘেমেনেয়ে, সন্ধেয় বৃষ্টিতে ভিজে রবিবাসরীয় প্রচার করলেন প্রার্থীরা। কেউ রোড শো করে, কেউবা আবার নাচে-গানে বর্ণাঢ্য শোভাযাত্রায় সারলেন জনসংযোগ। সোমবার বেলা বাড়ার সঙ্গে গরম, ঘাম বাড়তে থাকে। অনেকেই তাই সকালের প্রচার একটু আগেভাগেই সেরে নিয়েছিলেন। সন্ধেয় প্রচার শুরু হতেই নামে বৃষ্টি। তাতে কিছুক্ষণের জন্য প্রচার থামিয়ে দিতে হয়। বৃষ্টি থামতে ফের শুরু হয় এলাকায় ঘুরে ঘুরে জনসংযোগ। এদিন বিকেলে শেষ হয় তৃতীয় দফার ভোটের প্রচার।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×