লোকসভা নির্বাচন-২০১৯

শেষ পর্বেও রণক্ষেত্র বাংলা

ইসলামপুরে মুড়ি-মুড়কির মতো বোমাবাজি

  যুগান্তর ডেস্ক ২০ মে ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ভারতের লোকসভা নির্বাচনের শেষ ধাপেও পশ্চিমবঙ্গ ছিল রণক্ষেত্র। ভোটগ্রহণের আগের রাত থেকে শুরু হয়েছে বাংলায় অশান্তি। শনিবার রাতে রাজ্যের ভাটপাড়ায় বোমা বিস্ফোরণ ও অগ্নিসংযোগের পর রোববার সকালেও কয়েকটি স্থানে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। আটক করা হয়েছে রাজ্যের ক্ষমতাসীন দল তৃণমূল কংগ্রেসের এক নেতাকে। চব্বিশ পরগনার ভাটপাড়ায় তৃণমূল ও বিজেপি সমর্থকদের মধ্যে ব্যাপক সংঘর্ষ ও গোলাগুলি হয়েছে। উত্তর দিনাজপুরের ইসলামপুরে মুড়ি-মুড়কির মতো বোমাবাজির ঘটনা ঘটেছে। খবর এনডিটিভি ও ইকনোমিক টাইমসের। শেষ পর্বে সাতটি রাজ্য ও একটি কেন্দ্রশাসিত অঞ্চলের ৫৯টি আসনে ভোটগ্রহণ শুরু হয়েছে। কেন্দ্রের ক্ষমতার পালাবদল প্রশ্নে এবারে সবক’টি প্রতিদ্বন্দ্বী দলের কাছে গুরুত্বপূর্ণ হয়ে উঠেছে এই ধাপে অনুষ্ঠিত হওয়া পশ্চিমবঙ্গের আসনগুলো। গত বছর বিধানসভা নির্বাচনে গুরুত্বপূর্ণ কয়েকটি রাজ্যে পরাজয়ের পর পশ্চিমবঙ্গসহ পূর্বাঞ্চলীয় রাজ্যগুলোতে জয়ের লক্ষ্য নির্ধারণ করে বিজেপি। আর তিন দশকের বাম-শাসন হটিয়ে ২০১১ সালে পশ্চিমবঙ্গের শাসনে আসা তৃণমূল কংগ্রেসের কাছে লোকসভা নির্বাচন হয়ে উঠেছে মুখ্যমন্ত্রী মমতার মর্যাদার লড়াই। ভোটগ্রহণের আগের দিন রাতে রাজ্যের ভাটপাড়ায় সহিংসতার পর রাইদীঘি এলাকার মথুরাপুরে বোমা বিস্ফোরণের ঘটনা ঘটেছে। কদমপুর নিউ টাউনের ২০১ নাম্বার বুথের কাছে বিজেপির অফিস ভাংচুর করা হয়েছে। এ দুই ঘটনার জন্য তৃণমূলকে দায়ী করেছে দলটি। নির্বাচন কমিশনের নির্দেশে রাজ্যের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা সুভাস বোসকে আটক করা হয়েছে। বিধাননগর কর্পোরেশনের ৬ নাম্বার ওয়ার্ডের এ কমিশনারকে কলকাতা বিমানবন্দর থেকে আটক করা হয়। সুভাস দাবি করেছেন, ষড়যন্ত্রের অংশ হিসেবে বিজেপির ইন্ধনে তাকে আটক করা হয়েছে। এদিকে গৃহবন্দি রাখা হয়েছে বিধাননগর এলাকার বিজেপি নেতা অনুপম দত্তকে। জ্বালিয়ে দেয়া হয়েছে পুলিশের গাড়ি। লোকসভা ভোটের আগেও ভাটপাড়ার আর্যসমাজ মোড় এলাকায় দু’পক্ষের সংঘর্ষ বেধেছিল। এ দিন বিজেপি নেতা অর্জুন সিংয়ের গাড়ি এলাকা দিয়ে যাওয়ার সময়ে কয়েক রাউন্ড গুলি চলে বলে অভিযোগ বিজেপির। তৃণমূলের লোকজনই গুলি চালিয়েছে বলে অভিযোগ পদ্মশিবিরের। তৃণমূলের পাল্টা দাবি, সন্ধ্যার দিকে তাদের দলের এক কর্মীকে মারধর করে বিজেপির লোকজন। তা থেকেই উত্তেজনা ছড়ায়। পরে বিজেপির বহিরাগত লোকজন এসে হামলা চালায়। গুলি ছোড়ে। বোমাও মারে। গাড়িতে আগুন ধরিয়ে দেয়। ভাটপাড়ার পুরপ্রধান সোমনাথ তালুকদার বলেন, ‘মানুষ যাতে আতঙ্কে ভোট দিতে না যান, সেজন্যই বিজেপির লোকজন এ কাণ্ড ঘটায়।’ ইসলামপুর বিধানসভা উপনির্বাচনকে ঘিরে ব্যাপক বোমাবাজি হয়েছে। সংবাদমাধ্যমের কর্মীদের ব্যাপক মারধর করার অভিযোগও উঠেছে তৃণমূলের বিরুদ্ধে। অমিত সরকার নামে এক সাংবাদিককে গুরুতর আহত অবস্থায় ইসলামপুর মহকুমা হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। ঘটনার সূত্রপাত ইসলামপুর বিধানসভা কেন্দ্রের মাদারিপুর এলাকায় ৬ নম্বর বুথে। স্থানীয় সূত্রে জানা গেছে, ওই বুথে ভোটদাতাদের ভোটদানে বাধা দেয় দুষ্কৃতরা।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×