ব্রেক্সিটের পরামর্শ ফি ৯৭ মিলিয়ন ইউরো

  যুগান্তর ডেস্ক ০৯ জুন ২০১৯, ০০:০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

ব্রেক্সিট প্রস্তুতির জন্য পরামর্শ ফি বাবদ ৯৭ মিলিয়ন (৯ কোটি ৭০ লাখ) ইউরো খরচ করেছে ব্রিটিশ সরকার। দেশটির জাতীয় অডিট দফতর (এনএও) এ তথ্য দিয়েছে।

এনএও জানায়, বৈদেশিক বিশেষজ্ঞ ভাড়া করতে গিয়ে এ পরিমাণ অর্থ খরচ হয়েছে। কারণ যুক্তরাজ্যে এ ধরনের দক্ষ কর্মকর্তার অভাব রয়েছে।

এনএও সরকারের স্বচ্ছতা নিয়েও প্রশ্ন তুলেছে বলে জানিয়েছে বিবিসি। বলেছে, মন্ত্রিসভার প্রকাশিত ব্যয়ের চেয়ে ব্রেক্সিট ব্যয় আরও অনেক বেশি।

মন্ত্রিসভার দফতরের হিসাব অনুসারে, ২০১৮ সালের এপ্রিল থেকে ২০১৯ সালেল এপ্রিল পর্যন্ত পরামর্শ সেবার জন্য ৬৫ মিলিয়ন ইউরো খরচ হয়েছে। কিন্তু এনএও’র তদন্ত বলছে, মন্ত্রিসভা আরও অন্তত ৩২ মিলিয়ন ইউরোর খরচ অগোচরে রেখেছে। আলোচনার পরিধি বাড়ানো হয়েছিল চলতি বছরের এপ্রিলে। সে সময় ইইউ ছাড়ার সময়সীমা ৩১ অক্টোবর নির্ধারিত হয়েছিল। এনএও বলছে, ব্রেক্সিট বাস্তবায়নে এখনও প্রস্তুতি চলছে এবং পরামর্শ বাবদ মোট ব্যয় আরও বাড়বে। সরকারের নির্দেশনা অনুসারে, ৯০ দিনের মধ্যে সব বিভাগের তথ্য প্রকাশের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু এজন্য গড়ে ১১৯ দিন সময় নিয়েছে বলে জানিয়েছে এনএও। তারা আরও জানিয়েছে, ছয়টি কনসালটেন্সি ফার্ম (পরামর্শ প্রতিষ্ঠান) ব্রেক্সিট সম্পর্কিত কাজের ৯৬ শতাংশ গ্রহণ করেছে। এদের মধ্যে সবচেয়ে বেশি পেয়েছে ডেলোইট, ২২ শতাংশ। অন্য প্রতিষ্ঠানগুলো হল, পিএ কনসালটিং (১৯ শতাংশ), পিডব্লিউসি (১৮), ইওয়াই (১৫), বাইন অ্যান্ড কোম্পানি (১১) এবং বোস্টন কনসালটেন্সি গ্রুপ (১০)।

প্রধানমন্ত্রী হলে শিক্ষার্থী ভিসা সহজ করবেন সাজিদ

যুক্তরাজ্যের প্রধানমন্ত্রী হলে বাংলাদেশের মতো দেশগুলো থেকে পড়তে যাওয়া শিক্ষার্থীদের জন্য ভিসা সহজ করার অঙ্গীকার করেছেন দেশটির স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী সাজিদ জাভিদ। তিনি প্রধামন্ত্রী তেরেসা মের স্থলাভিষিক্ত হওয়ার দৌড়ে এগিয়ে আছেন। সাজিদ জাভিদ বলেন, যুক্তরাজ্যের বিশ্ববিদ্যালয় থেকে পড়াশোনা শেষ করা বিদেশি শিক্ষার্থীদের কাজ করতে বাধা দেয়ার কোনো মানে হয় না। শুক্রবার আনুষ্ঠানিকভাবে দলীয় নেতৃত্ব থেকে সরে দাঁড়িয়েছেন তেরেসা মে। তবে নতুন নেতা নির্বাচিত না হওয়া পর্যন্ত তিনি প্রধানমন্ত্রী পদে বহাল থাকবেন। সেক্ষেত্রে ব্রেক্সিট প্রশ্নে তার কোনো নিয়ন্ত্রণ থাকবে না। তেরেসার স্থলাভিষিক্ত হওয়ার দৌড়ে ১১ জন কনজারভেটিভ এমপির মধ্যে রয়েছেন সাজিদ জাভিদও।

ঘটনাপ্রবাহ : ব্রেক্সিট ইস্যু

সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত