কিমকে ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের পরামর্শ দিয়ে এলেন শি
jugantor
কিমকে ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের পরামর্শ দিয়ে এলেন শি

  যুগান্তর ডেস্ক  

২২ জুন ২০১৯, ০০:০০:০০  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উত্তর কোরিয়া সফরে দেশটির নেতা কিম জং উনকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ফের বৈঠকে বসার পরামর্শ দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

তিনি বলেছেন, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় অগ্রগতি দেখতে চায় বিশ্ব। এ ক্ষেত্রে বেইজিং সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

জবাবে বেইজিং-পিয়ংইয়ংয়ের সম্পর্ক জোরদার করায় জিনপিংয়ের প্রশংসা করেন কিম। দু’দেশের বন্ধুত্বকে ‘অজেয়, অপরিবর্তনীয়’ বলেও অভিহিত করেন তিনি। কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সির (কেসিএনএ) বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

দায়িত্ব নেয়ার পর উত্তর কোরিয়ায় শি’র এটাই প্রথম রাষ্ট্রীয় সফর। দু’দিনের সফর শেষে শুক্রবার দেশে ফিরে যান শি। নিষেধাজ্ঞায় জর্জরিত উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ

বন্ধু হিসেবে বেইজিংয়ের পরিচিতি থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে তাতে খানিকটা ভাটা পড়েছে বলে পর্যবেক্ষকদের অনুমান। উত্তরের পরমাণু কর্মসূচি ও পিয়ংইয়ংয়ের ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞায় চীনের সমর্থন নিয়েই এ টানাপোড়েন বলেও ভাষ্য তাদের।

জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেয়ার আগেই চীনের প্রেসিডেন্টের উত্তর কোরিয়া সফর নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলেও বেশ কৌতূহল লক্ষ করা যাচ্ছে।

সপ্তাহখানেক পর হতে যাওয়া ওই জি-২০ সম্মেলনে শি’র সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈঠক হওয়ার কথা। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীন ও উত্তর কোরিয়ার আলাদা আলাদা বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্বও চলছে।

কিমকে ট্রাম্পের সঙ্গে বৈঠকের পরামর্শ দিয়ে এলেন শি

 যুগান্তর ডেস্ক 
২২ জুন ২০১৯, ১২:০০ এএম  |  প্রিন্ট সংস্করণ

উত্তর কোরিয়া সফরে দেশটির নেতা কিম জং উনকে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের সঙ্গে ফের বৈঠকে বসার পরামর্শ দিয়েছেন চীনের প্রেসিডেন্ট শি জিনপিং।

তিনি বলেছেন, পরমাণু নিরস্ত্রীকরণ নিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে আলোচনায় অগ্রগতি দেখতে চায় বিশ্ব। এ ক্ষেত্রে বেইজিং সার্বিক সহযোগিতা অব্যাহত রাখবে বলে প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন তিনি।

জবাবে বেইজিং-পিয়ংইয়ংয়ের সম্পর্ক জোরদার করায় জিনপিংয়ের প্রশংসা করেন কিম। দু’দেশের বন্ধুত্বকে ‘অজেয়, অপরিবর্তনীয়’ বলেও অভিহিত করেন তিনি। কোরিয়ান সেন্ট্রাল নিউজ এজেন্সির (কেসিএনএ) বরাত দিয়ে এ খবর দিয়েছে বিবিসি।

দায়িত্ব নেয়ার পর উত্তর কোরিয়ায় শি’র এটাই প্রথম রাষ্ট্রীয় সফর। দু’দিনের সফর শেষে শুক্রবার দেশে ফিরে যান শি। নিষেধাজ্ঞায় জর্জরিত উত্তর কোরিয়ার সবচেয়ে ঘনিষ্ঠ

বন্ধু হিসেবে বেইজিংয়ের পরিচিতি থাকলেও সাম্প্রতিক সময়ে তাতে খানিকটা ভাটা পড়েছে বলে পর্যবেক্ষকদের অনুমান। উত্তরের পরমাণু কর্মসূচি ও পিয়ংইয়ংয়ের ওপর জাতিসংঘের নিষেধাজ্ঞায় চীনের সমর্থন নিয়েই এ টানাপোড়েন বলেও ভাষ্য তাদের।

জি-২০ শীর্ষ সম্মেলনে যোগ দেয়ার আগেই চীনের প্রেসিডেন্টের উত্তর কোরিয়া সফর নিয়ে আন্তর্জাতিক মহলেও বেশ কৌতূহল লক্ষ করা যাচ্ছে।

সপ্তাহখানেক পর হতে যাওয়া ওই জি-২০ সম্মেলনে শি’র সঙ্গে মার্কিন প্রেসিডেন্ট ডোনাল্ড ট্রাম্পের বৈঠক হওয়ার কথা। যুক্তরাষ্ট্রের সঙ্গে চীন ও উত্তর কোরিয়ার আলাদা আলাদা বিষয় নিয়ে দ্বন্দ্বও চলছে।

 

ঘটনাপ্রবাহ : উত্তর কোরিয়া সঙ্কট