হংকংয়ে ‘ড্যান্সিং আন্টি হটাও’ বিক্ষোভ

চীনা পর্যটকদের দৃষ্টি আকর্ষণে পর্যটন এলাকায় বিক্ষোভ

  যুগান্তর ডেস্ক ০৯ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

হংকংয়ে ‘ড্যান্সিং আন্টি হটাও’ বিক্ষোভ

প্রায় এক মাস ধরে বিক্ষোভ-প্রতিবাদ করে আসছেন হংকংবাসী। শনিবারও রাস্তায় নামেন কয়েক হাজার অধিবাসী। তবে এবার আর অপরাধী প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে নয়, শহরের একদল মধ্যবয়সী নারীর বিরুদ্ধে।

শহরে এই নারীরা ‘দাইমা’ বা ‘ড্যান্সিং আন্টি’ বলে পরিচিত। বিক্ষোভকারীদের অভিযোগ, চীনের মূল ভূখণ্ড থেকে আসা এসব নারী হংকংয়ের পার্কগুলোতে উচ্চ ও কানফাটানো শব্দে গান বাজান।

গানের সঙ্গে অশ্লীল নাচের মাধ্যমে পরিবেশ দূষণ ঘটাচ্ছে। বারবার অভিযোগ জানানো হলেও এ ব্যাপারে প্রশাসন কোনো পদক্ষেপ নিচ্ছে না। আর তাই ‘দাইমা হটাও, পার্ক বাচাও’ আন্দোলন।

ড্যান্সিং আন্টিদের প্রধান পছন্দের জায়গা শহরের বড় পার্ক ‘তুয়েন মুন’। এদিন বিকালে এ পার্কটিকেই ঘেরাও করেন বিক্ষোভকারীরা। জনতার তোপের মুখে নাচ-গান ফেলে পিছু হটতে বাধ্য হন নাচনেওয়ালিরা।

কেউ কেউ পার্কের টয়লেট বা নিরাপদ স্থানে লুকিয়ে পড়েন। প্রায় দুই ঘণ্টা ঘেরাও করে রাখার পর পুলিশ তাদের উদ্ধার করে।

এ সময় বিক্ষোভকারীদের ছত্রভঙ্গ করতে টিয়ারগ্যাস ও মরিচের গুঁড়াও ছোড়ে পুলিশ। হংকংয়ের আইনে পার্কে গান-বাজনা অবৈধ নয়। আর তাই মনের সুখে যেখানে খুশি গানের আসর বসান দাইমারা।

সাধারণত পার্কে আসা বৃদ্ধ মানুষগুলোই তাদের শ্রোতা-দর্শক। দাইমাদের সঙ্গে শরীর দুলিয়ে নাচতেও দেখা যায় কাউকে কাউকে। বিনিময়ে জোটে মোটা অঙ্কের বকশিশ।

কিন্তু শব্দদূষণ কোনোভাবেই মানতে পারছেন না শহরবাসী। বিক্ষোভের আয়োজক তুয়েন মুন পার্ক স্যানিটেশন কনসার্ন গ্রুপের আহ্বায়ক মাইকেল মো বলেন, প্রচণ্ড শব্দে গান বাজান তারা।

এটা পার্কে আসা অন্যদের জন্য খুবই বিরক্তিকর। এছাড়া অনেকেই ছেলেমেয়ে নিয়ে পার্কে আসেন। এটা এই পরিবেশ তাদের জন্য বিব্রতকর।

এদিকে বিতর্কিত প্রত্যর্পণ বিলের বিরুদ্ধে ফের বিক্ষোভ করেছে হংকং বিক্ষোভকারীরা। চীনা পর্যটকদের সমর্থন ও সহমর্মিতা পেতে শহরের প্রধান প্রধান পর্যটন এলাকায় জড়ো হয়ে বিক্ষোভ করে। রোববার শুরু হওয়া এই বিক্ষোভেও কয়েক লাখ বিক্ষোভকারী রয়েছেন। প্রবল বৃষ্টিপাতের মধ্যেও জনপ্রিয় পর্যটন এলাকা কাউলুনের উত্তরে মংকং ও শিম শা শুইয়ের প্রধান সড়কগুলোতে প্রতিবাদ মার্চ করেন।

এর আগে চীনা অর্থব্যবস্থার সঙ্গে যুক্ত সেখানকার একটি ট্রেনস্টেশনের বাইরে গণসমাবেশ করেন তারা। এ সময় পুলিশের সঙ্গে সংঘর্ষে জড়িয়ে পড়েন তারা।

পুলিশ ছয়জন বিক্ষোভকারীকে আটক করেছে। খবর রয়টার্সের। প্রতিবাদ কর্মসূচি চাঙ্গা করতে চীনা বাণিজ্যিক এলাকায় চীনের দাফতরিক ভাষায় স্লোগান দিয়ে ও চীনা পর্যটকদের মাঝে প্রচারপত্র বিলি করেন বিক্ষোভকারীরা।

বৃষ্টি উপেক্ষা করে আড়াই লাখ প্রতিবাদকারী আন্দোলনে যোগ দিয়ে সামাজিক যোগাযোগমাধ্যম ও মোবাইলফোনে চীনা বর্ণমালায় ক্ষুদে বার্তা পাঠান।

জনপ্রিয় বিলাসবহুল পণ্য বিক্রয় এলাকার সড়কে বিক্ষোভ র‌্যালিটি হংকংয়ের সঙ্গে চীনের সংযোগকারী দ্রুতগামী ট্রেনস্টেশনে গিয়ে গণসমাবেশ করে। প্রত্যর্পণ বিল প্রত্যাহারের দাবিতে এটাই সবচেয়ে বড় বিক্ষোভ।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×