গোয়ায়ও কোণঠাসা কংগ্রেস রাজপথে সোনিয়া-রাহুল

বিজেপিতে যোগ ১০ বিধায়ক

  যুগান্তর ডেস্ক ১২ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

কর্নাটকে কংগ্রেস-জনতা দল ধর্মনিরপেক্ষ (জেডিএস) জোট সরকার সুতোয় ঝুলছে। ঠিক তখনই গোয়া রাজ্যেও বড় ধরনের ধাক্কা খেল কংগ্রেস। রাজ্যটির ১৫ জন কংগ্রেস বিধায়কের মধ্যে ১০ জনই দলত্যাগ করে যোগ দিয়েছেন ক্ষমতাসীন বিজেপিতে। এ ঘটনায় অভিযোগের তীর ফের বিজেপি শিবিরের দিকে। কংগ্রেস নেতাদের অভিযোগ, কাঁড়ি কাঁড়ি টাকার বিনিময়ে বিধায়কদের ভাগিয়ে নিচ্ছে দলটির নেতারা। সেই সঙ্গে প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সরকারের বিরুদ্ধে প্রতিবাদ-বিক্ষোভ অব্যাহত রেখেছে। বৃহস্পতিবার নয়াদিল্লিতে ভারতীয় পার্লামেন্টের সামনে বিক্ষোভ করেন সোনিয়া গান্ধী ও রাহুল গান্ধীসহ দলটির বহু শীর্ষ নেতা বিধায়ক। এ সময় ‘গণতন্ত্র রক্ষা করো’ লেখা ব্যানার ও প্লাকার্ড বহন করে নানা স্লোগান দেন। বলেন, ‘লোভ দেখিয়ে রাজ্যে রাজ্যে টুঁটি চেপে গণতন্ত্র হত্যা করছে বিজেপি।’ এনডিটিভি এ খবর জানিয়েছে। গত শনিবার কর্নাটকে ক্ষমতাসীন কংগ্রেসে-জেডিএস জোটের ১৩ বিধায়ক স্পিকার রমেশ কুমারের কাছে তাদের পদত্যাগপত্র জমা দেন। এরপর পদত্যাগ করেন আরও একজন। ফলে সংখ্যাগরিষ্ঠতা হারিয়ে ভাঙনের ঝুঁকিতে পড়ে মুখ্যমন্ত্রী এইচডি কুমারাস্বামীর সরকার। সরকারে অস্থিতিশীলতা সৃষ্টির নেপথ্যে বিজেপির হাত রয়েছে বলে অভিযোগ করেন রাজ্য কংগ্রেস নেতা মল্লিকার্জুন খাড়গে। যুক্তরাষ্ট্র সফর শেষে রোববার দেশে ফেরেন কুমারাস্বামী। সরকার বাঁচাতে রোববার রাতে শরিকদের নিয়ে বৈঠক করেন তিনি। পরদিন সোমবার বিদ্রোহী বিধায়কদের মন্ত্রিসভায় জায়গা করে দিতে মুখ্যমন্ত্রী বাদে জোটের সব মন্ত্রী ইস্তফা দেন। কিন্তু আশার কথা, মঙ্গলবার ১৪ জনের পদত্যাগপত্র যাচাই-বাছাইয়ের পর ৮ জনের পদত্যাগ খারিজ করেন স্পিকার। তিনি বলেছেন, পদত্যাগপত্র যথাযথ প্রক্রিয়ায় পূরণ করে তাদের ফের দেখা করতে বলা হয়েছে। কর্নাটক সংকট শেষ না হতেই গোয়ায় কংগ্রেসে ভাঙন শুরু হল। বুধবার ১০ বিধায়ক দলত্যাগ করে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন। বৃহস্পতিবারই তারা নয়াদিল্লিতে বিজেপি সভাপতি ও কেন্দ্রীয় স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী অমিত শাহ’র সঙ্গে সাক্ষাৎ করেন। বিধায়কদের ইস্তফা প্রসঙ্গে গোয়া বিধানসভার অধ্যক্ষ রাজেশ পাটনেকর বলেন, ‘তাদের ইস্তফাপত্র গ্রহণ করেছি। ১৫ জুলাই থেকে বিধানসভার বাদল অধিবেশন শুরু হবে। ওই দিন তাদের আসন বদলাতে হবে।’ কংগ্রেসের অভিযোগ অস্বীকার করে বিধায়কদের বিজেপিতে যোগদান প্রসঙ্গে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত বলেন, ‘কোনো চাপে পড়ে নয় বরং নিজেদের কেন্দ্র ও রাজ্যের উন্নয়নের জন্য তারা নিঃশর্তে বিজেপিতে যোগ দিয়েছেন।’ বিজেপিতে যোগ দেয়া কংগ্রেস বিধায়করাও বলছেন, ‘উন্নয়নের কাজের জন্যই তারা বিজেপিতে যোগদান করেছেন।’ গোয়া বিধানসভা নির্বাচনের পর একক বৃহত্তম দল ছিল কংগ্রেসই। কিন্তু তাদের না ডেকে সংশ্লিষ্ট রাজ্যের রাজ্যপাল সরকার গড়তে ডেকেছিল বিজেপি, জিএফপি জোটকেই। রাজ্যটিতে এখন বিজেপি এবং গোয়া ফরওয়ার্ড পার্টির জোট সরকার রয়েছে। কংগ্রেসের ১০ জন যোগ দেয়ায় ৪০ আসনের গোয়া বিধানসভায় বিজেপির বিধায়ক সংখ্যা আপাতত ২৭। রাজ্যটিতে কংগ্রেসের বিধায়ক সংখ্যা এখন মাত্র ৫ জন।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×