জলবায়ু পরিবর্তন রুখতে একাডেমিক জোট

  যুগান্তর ডেস্ক ১২ জুলাই ২০১৯, ০০:০০ | প্রিন্ট সংস্করণ

প্রতিনিয়ত দ্রুতই বদলে যাচ্ছে পৃথিবীর জলবায়ু। দ্রুত এই জলবায়ু পরিবর্তন রুখতে জরুরি অবস্থা (ক্লাইমেট ইমার্জেন্সি) ঘোষণা করেছে বিশ্বের উচ্চশিক্ষা প্রতিষ্ঠান ও বিশ্ববিদ্যালয়গুলো। সেই সঙ্গে জাতিসংঘের সঙ্গে নিজেদেরকে যুক্ত করার প্রত্যয় ব্যক্ত করেছে। এ লড়াইয়ে নিজেদের লাখ লাখ ছাত্রছাত্রীকে শামিল করবে প্রতিষ্ঠানগুলো। বুধবার জাতিসংঘ পরিবেশ কর্মসূচির (ইউএনইপি) কাছে লেখা এক চিঠিতে এ ঘোষণা দেয় ছয় মহাদেশের সাত হাজারের বেশি বিশ্ববিদ্যালয়ের একটি জোট। খবর এএফপির।

চিঠিতে বিশ্ববিদ্যালয় প্রতিনিধিরা ২০৩০ সালের মধ্যে কার্বন নিষ্ক্রিয়তা অর্জন অথবা ২০৫০ সালের মধ্যে তা সর্বনিু অবস্থায় নামিয়ে আনতে প্রতিশ্রুতি ব্যক্ত করেছেন। জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে কর্মভিত্তিক গবেষণা, দক্ষতার বিকাশ, পরিবেশগত শিক্ষার ক্যাম্পাসভিত্তিক ও এর বাইরে উন্নয়নে অধিকতর অর্থ সংস্থানের আহ্বানও জানিয়েছেন তারা। এ উদ্যোগকে স্বাগত জানিয়েছেন জাতিসংঘের পরিবেশবিষয়ক কর্মসূচির (ইউএনইপি) পরিচালক ইঙ্গার অ্যান্ডারসেন। বিশ্ববিদ্যালয়গুলোর এসব উদ্যোগ তুলে ধরা হয়েছে নিউইয়র্কে জাতিসংঘের সদর দফতরে মন্ত্রীপর্যায়ের এক বৈঠকে। এ বিষয়ে ইঙ্গার অ্যান্ডারসেন বলেন, আমরা ভবিষ্যতকে রূপায়নের শিক্ষা দিই। জলবায়ু ও পরিবেশের প্রতি যেসব চ্যালেঞ্জ আসছে তাতে অধিক পদক্ষেপ নেয়ার দাবিতে সামনের সারিতে ক্রমবর্ধমান হারে এগিয়ে আসছেন যুব সমাজ। আর এমন গুরুত্বপূর্ণ উদ্যোগ, যার সঙ্গে সরাসরি যুব সমাজ জড়িত তা অবশ্যই এ কাজের ক্ষেত্রে এক মূল্যবান অবদান। আশা করা হচ্ছে, এ বছরের শেষ নাগাদ এ উদ্যোগের সঙ্গে যুক্ত হবে আরও অনেক বিশ্ববিদ্যালয়। তাতে মোট সংখ্যা ১০ হাজার ছাড়িয়ে যেতে পারে।

২০৫০ সালের মধ্যে বৈশ্বিক উষ্ণায়নে নাটকীয় পরিবর্তন ঘটবে : ২০৫০ সাল নাগাদ বিশ্বের বড় বড় শহরগুলোতে বৈশ্বিক উষ্ণায়নের নাটকীয় পরিবর্তন ঘটবে। বর্তমানে মাদ্রিদে যেমন জলবায়ু বিরাজমান, ঠিক একই রকম অবস্থা ২০৫০ সাল নাগাদ দেখা দেবে লন্ডনে। একই সময়ে বর্তমানে ক্যানবেরার মতো অবস্থা হবে প্যারিসের। বুডাপেস্টের মতো অবস্থা হবে স্কটহোমের। সোফিয়ার মতো অবস্থা হবে মস্কোর। বুধবার প্রকাশিত নতুন এক জলবায়ুবিষয়ক বিশ্লেষণে এসব কথা বলা হয়েছে। এতে বিশ্বের বিভিন্ন শহরের জলবায়ু ২০৫০ সাল নাগাদ কেমন হবে তার একটি ধারণা দেয়া হয়েছে। এতে বলা হয়েছে কুয়ালালামপুর, জাকার্তা ও সিঙ্গাপুরের মতো বিশ্বের বড় সব গ্রীষ্মমণ্ডলীয় শহরগুলোতে নাটকীয় পরিবর্তন ঘটবে।

আরও পড়ুন
  • সর্বশেষ
  • সর্বাধিক পঠিত
সব খবর

ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক : সাইফুল আলম, প্রকাশক : সালমা ইসলাম

প্রকাশক কর্তৃক ক-২৪৪ প্রগতি সরণি, কুড়িল (বিশ্বরোড), বারিধারা, ঢাকা-১২২৯ থেকে প্রকাশিত এবং যমুনা প্রিন্টিং এন্ড পাবলিশিং লিঃ থেকে মুদ্রিত।

পিএবিএক্স : ৯৮২৪০৫৪-৬১, রিপোর্টিং : ৯৮২৪০৭৩, বিজ্ঞাপন : ৯৮২৪০৬২, ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৩, সার্কুলেশন : ৯৮২৪০৭২। ফ্যাক্স : ৯৮২৪০৬৬ 

E-mail: [email protected]

© সর্বস্বত্ব স্বত্বাধিকার সংরক্ষিত ২০০০-২০১৯

converter
×